BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা ভাইরাসের মোকাবিলায় আশা জাগাচ্ছে লামা ‘ফিফি’, দাবি গবেষকদের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 20, 2020 6:21 pm|    Updated: July 20, 2020 6:21 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে চলছে করোনা ভাইরাসের মৃত্যুমিছিল। এই রোগের দাওয়াই বা টিকার জন্য মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে বিশ্বের তাবড় দেশগুলি। মহামারী থেকে উদ্ধার পেতে গবেষকদের দিকে চাতকের মতো তাকিয়ে আছে গোটা দুনিয়া। এহেন পরিস্থিতে এক আশ্চর্য তথ্যের সন্ধান পেয়েছেন গবেষকরা। বিজ্ঞানীদের একাংশ মনে করছেন, পাহাড়ের লোমশ জন্তু লামার শরীর থেকে মিলতে পারে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করার হাতিয়ার।

[আরও পড়ুন: করোনা আবহে প্রথম, আজ থেকে চিনে খুলে গেল সিনেমা হলের দরজা]

সম্প্রতি, ব্রিটেনের রোসালিন্ড ফ্র্যাঙ্কলিন ইউনিভার্সিটির গবেষকরা দাবি করেছেন। তাঁদের তত্ত্বাবধানে ‘ফিফি’ নামের একটি লামার শরীরে তৈরি হয়েছে এমন অ্যান্টিবডি যা সার্সকোভ-২ ভাইরাসের স্পাইক প্রোটিনগুলিকে খতম করে দিতে পারবে। অসংখ্য এমন অ্যান্টিবডি দিয়ে তৈরি হয়েছে ‘অ্যান্টিবডি ককটেল’ । মানুষের শরীরে ঢুকলে যা করোনা ভাইরাসকে মারার মতো প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলবে বলেই দাবি গবেষকদের। সংস্থাটিতে কর্মরত গবেষক জেমস নাইসমিথ বলেছেন, মানুষের শরীরে যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয় তার থেকে লামার শরীরে তৈরি হওয়া অ্যান্টিবডি আলাদা। সাধারণত উট জাতীয় প্রাণী যেমন লামা, আলপাকাদের শরীরে এমন অ্যান্টিবডি তৈরি হয়। লামা ফিফির রক্তে যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে তাকে বিশেষ বৈজ্ঞানিক উপায় তৈরি করা হয়েছে। করোনা ভাইরাসের স্ট্রেন লামার শরীরে ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে ঢুকিয়ে এমন অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। আকারে ছোট কিন্তু মানুষের শরীরে তৈরি অ্যান্টিবডির থেকে অনেক বেশি শক্তিশালী।

জানা গিয়েছে, লামার শরীরে যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়, তার দুটি আলাদা প্রকারকে জুড়ে দিয়েছেন গবেষকরা। এই প্রক্রিয়ার ফলে তৈরি হয়েছে এক বিশেষ ধরণের অ্যান্টিবডি যা মানুষের শরীরে করোনা মোকাবিলায় সাহায্য করতে পারে। এই অ্যান্টিবডি করোনা ভাইরাসের বন্ধু প্রোটিনের সঙ্গে এক‌টি জোট তৈরি করে যা করোনার সংক্রমণ আটকে দেয়। এই প্রোটিনটি স্পাইক প্রোটিন এবং দেখতে অনেকটা মুকুটের মতো। মানুষের শরীরে এই প্রোটিনই করোনা সংক্রমণ বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। বেলজিয়ামের একটি বিশ্ববিদ্যালয় ও আমেরিকার টেক্সাসের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরাও যৌথভাবে এই গবেষণার ফল প্রকাশ করেছেন।

[আরও পড়ুন: করোনা পরিসংখ্যানে রেকর্ড বিশ্বেও, একদিনে নতুন করে সংক্রমিত আড়াই লক্ষের বেশি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement