BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পুকুর ভরাট করে বহুতল তৈরির ছক, প্রোমোটার-রাজের প্রতিবাদে ঐক্যবদ্ধ গাইঘাটা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 22, 2019 5:11 pm|    Updated: August 22, 2019 5:12 pm

An Images

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: রাস্তার পাশে জলাশয় ভরাটের মতো বেআইনি কাজের প্রতিবাদে গর্জে উঠলেন বনগাঁর গাইঘাটার বাসিন্দারা। পোস্টার হাতে, রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখালেন আট থেকে আশি সকলেই। গাইঘাটার চাঁদপাড়া-ঠাকুরনগর সড়কের সোনাটিকারি এলাকার একটি স্কুলের উলটোদিকে বহু বছর ধরে একটি জলাশয় রয়েছে। বর্ষার সময়ে সেখানে বৃষ্টির জল সঞ্চিত হয়। পুকুর ভরাট হলে, জলসঞ্চয়ে সমস্যা দেখা দেবে বলে দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের।

[ আরও পড়ুন: মৃত হিমবাহের ঠিকানায় চিঠি, পরিবেশ বাঁচাতে আইসল্যান্ডে অভিনব স্মরণসভা]

এলাকাবাসীরা জানিয়েছেন, এই এলাকায় পুকুর ভরাট, গাছ কাটার মতো বেআইনি কাজে বহুদিন ধরেই সক্রিয় একটি চক্র। এনিয়ে স্থানীয় প্রশাসনের কাছে বহুবার অভিযোগ জানিয়েছেন। তা নিয়ে পদক্ষেপও নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু স্থানীয়দের অভিযোগ, রাতের অন্ধকারে কেউ বা কারা পুকুরে আবর্জনা ফেলে তা ভরাট করার চেষ্টা করছে। স্থানীয় বাসিন্দা আনন্দ সাহা জানিয়েছেন, জলাশয়টির মধ্যে পিডব্লুডি-র জমি ও মালিকানাধীন সম্পত্তি রয়েছে।

বুধবার এরই প্রতিবাদে এলাকার ছোট থেকে বয়স্ক বাসিন্দারা প্ল্যাকার্ড হাতে জলাশয়ের পাশে দাঁড়িয়ে বিক্ষোভ দেখান। গোটা দুপুর ধরে চলে তাঁদের সেই বিক্ষোভ।তাঁদের আরও অভিযোগ, বর্তমানে জলাশয়টি আবর্জনায় ভরতি হয়ে থাকায় মশাবাহিত রোগের আতঙ্কে ভুগছেন তাঁরা। তাই পুকুর সংস্কারের দাবিও উঠেছে। স্থানীয় গৃহবধূ সাধনা সাহা বলেন,”আমাদের এলাকায় বহু বছর আগে থেকে একটি পুকুর রয়েছে, সেটি জোর করে ভরাট করবার  প্রতিবাদে আমরা রাস্তায় নেমেছি৷” বৃদ্ধ কুমারেশ সাহার কথায়, “প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে গণ স্মারকলিপি দিয়েছি, কিন্তু কোনও লাভ হয়নি, প্রশাসনের নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে কৌশলে ময়লা ফেলে ভরাট করা হচ্ছে। প্রোমোটার রাজ চলছে৷”

[ আরও পড়ুন: নুুন-ভাতের পর বিস্কুট, মিড ডে মিলে এই খেয়েই বাড়ি ফিরছে পড়ুয়ারা]

অনেকেই বলছেন, আসল সমস্যার মূলে এই প্রোমোটার রাজই। পুকুর ভরাট করে সেখানে বহুতল তৈরির পরিকল্পনা চলছে। কিন্তু এলাকাবাসীর ঐক্যবদ্ধ প্রতিবাদের কাছে তা কার্যকর হচ্ছে না। এরপরও পুকুর ভরাটের চেষ্টা হলে, বৃহত্তর আন্দোলনে নামবেন বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন স্থানীয়রা। এবিষয়ে গাইঘাটার বিডিও বিব্রত বিশ্বাস বলেন,”বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে দেখা হচ্ছে৷” 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement