৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ করার লাগাতার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরো। এবার ভারতীয় বিজ্ঞানীদের সঙ্গে হাত মেলাল মার্কিন স্পেস সংস্থা ন্যাশনাল এরোনোটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (নাসা)। জানা গিয়েছে, নাসা এবং জেট প্রোপালশন ল্যাবরেটরিও (জেপিএল) বিক্রমকে রেডিও সিগন্যাল পাঠানোর চেষ্টা করছে।

[আরও পড়ুন: বায়ুমণ্ডলে ছিল পর্যাপ্ত অক্সিজেন, একসময় বসবাসের যোগ্য ছিল মঙ্গল]

দিন কয়েক আগেই ইসরো জানিয়েছিল, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছিল বিক্রম চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে ২.১ কিলোমিটার উচ্চতায় থাকাকালীন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। অরবিটার এবং ইসরোর গ্রাউন্ড স্টেশন থেকে সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে যায় ল্যান্ডার বিক্রমের। কিন্তু, বিশদ গবেষণার পর বলা হয়, চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে ল্যান্ডার। চন্দ্রপৃষ্ঠের ৪০০ মিটার দূর পর্যন্তও বিক্রমের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করতে সফল হয়েছিল ইসরো। এবার ইসরোর দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল নাসা। ইসরোর তরফে জানানো হয়েছে, বিক্রমের সঙ্গে নতুন করে যোগাযোগের প্রয়াস অব্যাহত। সেপ্টেম্বরের ২০ থেকে ২১ তারিখ পর্যন্ত এই চেষ্টা চলবে। চন্দ্রপৃষ্ঠের যেদিকে বিক্রম রয়েছে, সেখানে সূর্যের আলো পড়লেই যোগাযোগের চেষ্টা করা হবে। বেঙ্গালুরুতে অবস্থিত ভারতীয় ডিপ স্পেস নেটওয়ার্কের (আইডিএসএন) মাধ্যমে বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনের চেষ্টা করছে ইসরো। শুক্রবারই মহাকাশচারী স্কট টিলি জানান, বেতার তরঙ্গের মাধ্যমে বিক্রমকে সিগন্যাল পাঠিয়েছে নাসা। চন্দ্রযান ২-এর অরবিটার স্পষ্টভাবেই সিগন্যাল গ্রহণ করেছে। তবে ল্যান্ডারের তরফে কোনও
সাড়া মেলেনি। তবে প্রয়াস জারি রয়েছে।

গত শুক্রবার ভোররাতে বিক্রমের উপর থেকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছিল ইসরো। রবিবারই ল্যান্ডারের হদিশ পান বিজ্ঞানীরা। তবে জানা যায়, চাঁদের পিঠে সফট ল্যান্ডিং না হওয়ায় সামান্য ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে সে। সেই কারণেই তার সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে হাল ছাড়েনি কেউ। এবার ইসরোর পাশে দাঁড়িয়ে সবরকম সাহায্য করছে নাসা।

[আরও পড়ুন: ল্যান্ডার বিক্রমের আয়ু মাত্র ১৪ দিন, কেন জানেন?]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং