১২ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ক্রমেই বসবাসের অযোগ্য হয়ে উঠবে পৃথিবী, পরিত্রাণের আশ্চর্য উপায় বাতলালেন নাসার প্রাক্তন বিজ্ঞানী

Published by: Biswadip Dey |    Posted: August 24, 2021 5:37 pm|    Updated: August 24, 2021 6:04 pm

Scientist warns Earth will be too hot for Humans in a billion years। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘জন্মিলে মরিতে হবে।’ একথা কেবল মানুষের জীবন কিংবা জীবজগতের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য তা নয়। যে নীল রঙের গ্রহে আমরা বাস করি, সেটাও চিরকাল থাকবে না। নাসার (NASA) প্রাক্তন বিজ্ঞানী ডেভিড হলজ দাবি করলেন, পৃথিবী আর ১০০ কোটি বছরের মধ্যেই ধ্বংস হয়ে যাবে। কিন্তু যদি পৃথিবীর কক্ষপথকে বড় করে তোলা যায় তাহলে পৃথিবীর আয়ু বাড়ানো সম্ভব অন্তত ৫ গুণ।

নিজের বক্তব্যের সমর্থনে হলজ উল্লেখ করেছেন নাসার একটি গবেষণাপত্রের কথা। ক্যালিফোর্নিয়া ও মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও গবেষকদের লেখা ওই গবেষণাপত্রের নাম ‘অ্যাস্ট্রনমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং: এ স্ট্র্যাটেজি ফর মডিফাইং প্ল্যানেটরি অরবিটস’। অর্থাৎ কোনও গ্রহের কক্ষপথ বৃদ্ধির উপায়। ঠিক কী দাবি হলজের? তাঁর মতে, আজ থেকে ১০০ কোটি বছরের মধ্যে সূর্য (Sun) এত উত্তপ্ত হয়ে উঠবে যে তার ফলে পৃথিবীও ক্রমে গরম হয়ে যাবে। ফলে ক্রমেই মানুষ অবলুপ্ত হয়ে যাবে পৃথিবী থেকে।

[আরও পড়ুন: মহাকাশে ফের সচল নাসার হাবল টেলিস্কোপ, পাঠাল ‘গয়নার মতো’ ঝলমলে ছায়াপথের ছবি]

এই পরিস্থিতি থেকে উদ্ধার পাওয়ার উপায়ও বাতলাচ্ছেন তিনি। তাঁর পরামর্শ, বৃহস্পতি (Jupiter) থেকে শক্তি সংগ্রহ করে তার সাহায্যে পৃথিবীর কক্ষপথকে একটু একটু করে বাড়ানো সম্ভব। সেজন্য প্রতি ৬ হাজার বছর অন্তর এই প্রক্রিয়ার পুনরাবৃত্তি করতে হবে। আর তাহলেই পৃথিবী কোনওভাবেই সূর্যের কাছাকাছি আসতে পারবে না। আর তার ফলে মানুষ তথা পৃথিবীর জীবজগতের বাসযোগ্য হয়ে থাকবে আমাদের এই বসুন্ধরা।

কিন্তু কীভাবে বৃহস্পতি থেকে শক্তি আহরণ করা যাবে? তার হদিশ রয়েছে গবেষণাপত্রটিতেই। সেখানে বলা হয়েছে পৃথিবী ও বৃহস্পতির মধ্যে দিয়ে কোনও গ্রহাণুকে যেতে বাধ্য করলেই এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যাবে।
হলজ আরও জানাচ্ছেন, সূর্য এখন তার মধ্যবয়সে রয়েছে। কিন্তু আগামী দিনগুলিতে যতই সূর্যের বয়স বাড়বে ততই পরিস্থিতি বদলাবে। ক্রমেই মানুষের বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়তে থাকবে পৃথিবী। সেই বিপদ থেকে মুক্তির উপায়ই বাতলে দিলেন হলজ।

[আরও পড়ুন: জলবায়ুর সংকটের ধাক্কায় বড় বিপদের মুখে ভারতের শিশুরা! চাঞ্চল্যকর দাবি UNICEF-এর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে