BREAKING NEWS

২৫ বৈশাখ  ১৪২৮  রবিবার ৯ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মাঝপথেই স্থগিত আইপিএল, বিরাট অঙ্কের আর্থিক ক্ষতির মুখে বিসিসিআই

Published by: Biswadip Dey |    Posted: May 4, 2021 10:13 pm|    Updated: May 4, 2021 10:13 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত কয়েক দিন ধরেই আশঙ্কার মেঘ ঘনাচ্ছিল। অবশেষে মঙ্গলবার সানরাইজার্স হায়দরাবাদ (SRH) শিবিরে করোনা (COVID-19) থাবা বসাতেই আইপিএল (IPL 2021) স্থগিত করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড তথা বিসিসিআই (BCCI)। এইভাবে মাঝপথে প্রতিযোগিতা স্থগিত করে দেওয়ার ফলে ২ হাজার কোটি টাকারও বেশি ক্ষতির মুখে পড়তে হবে বোর্ডকে। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক সিনিয়র বোর্ড কর্তা সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে একথা জানিয়েছেন।

ঠিক কী জানিয়েছেন তিনি? তাঁর মতে, ক্ষতির অঙ্কটা ২ হাজার থেকে ২,৫০০ কোটি টাকার মধ্যে। ঠিকঠাক হিসেবে তা ২২০০ কোটি টাকা। যার সিংহভাগই সম্প্রচারকারী চ্যানেলের কাছ থেকে পাওয়া অঙ্কের হিসেবে। ৫২ দিনে ৬০ ম্যাচের প্রতিযোগিতা আইপিএল। শেষ হওয়ার কথা ছিল ৩০ মে। কিন্তু ২৯টি ম্যাচের পরই থামিয়ে দেওয়া হয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে দামি টি২০ প্রতিয়োগিতার এই মরশুমের চাকা। সম্প্রচারকারী চ্যানেলের সঙ্গে বোর্ডের চুক্তি পাঁচ বছরের। মোট টাকার অঙ্ক ১৬ হাজার ৩৪৭ কোটি টাকা। অর্থাৎ প্রতি মরশুম পিছু ৩২৬৯.৪ কোটি। সেই হিসেবে তা ম্যাচ পিছু দাঁড়ায় ৫৪.৫ কোটি টাকা। এই মরশুমের ৩২৭০ কোটির মধ্যে বোর্ড এযাবৎ পেয়েছে ১৫৮০ কোটি টাকা। অর্থাৎ ক্ষতি ১৬৯০ কোটি টাকা।

[আরও পড়ুন: করোনার জেরে স্থগিত চলতি মরশুমের IPL, ক্রিকেটারদের নিরাপদে ফেরানো হবে, জানালেন সৌরভ]

এছাড়া প্রতিযোগিতার শীর্ষ স্পনসর ভিভো দিচ্ছে ৪৪০ কোটি টাকা। মাঝপথে প্রতিযোগিতা স্থগিত হওয়ায় অর্ধেক টাকাই আর পাওয়া যাবে না। বাকি স্পনসর আনঅ্যাকাডেমি, ড্রিম ১১, সিরেড প্রভৃতি থেকেও প্রাপ্য অর্থের পরিমাণ ১২০ কোটি টাকা। সেই টাকারও অর্ধেক মিলবে না। সব মিলিয়ে ক্ষতির অঙ্ক দাঁড়াচ্ছে ২২০০ কোটি টাকা।

প্রসঙ্গত, দুই নাইট তারকা কোভিড পজিটিভ হওয়ায় সোমবার স্থগিত হয়েছিল কেকেআর বনাম আরসিবি ম্যাচ। এরপরই শোনা যায়, চেন্নাই সুপার কিংসের শিবিরেও ঢুকে পড়েছে মারণ ভাইরাসটি। ক্রিকেটাররা সুরক্ষিত থাকলেও ফ্র্যাঞ্চাইজির সিইও, বোলিং কোচ ও এক বাসকর্মী করোনা আক্রান্ত। ফলে অনুশীলন বাতিল করে দেয় দল। উদ্বেগজনক পরিস্থিতিতে বুধবার খেলার ইচ্ছা ছিল না ধোনিদের। কারণ যে স্টেডিয়ামে খেলা, সেই দিল্লিতেই পাঁচ গ্রাউন্ড স্টাফও সংক্রমিত। সবমিলিয়ে বেশ চাপে ছিল বিসিসিআই। তাই সংক্রমণ ঠেকাতে বাকি টুর্নামেন্ট একটি শহরেই আয়োজনের পরিকল্পনা করা হচ্ছিল। কিন্তু এরই মাঝে আসে দুঃসংবাদ। করোনা আক্রান্ত ঋদ্ধিমান সাহাও। এমন পরিস্থিতিতে এই মরশুমের মতোই স্থগিত করে দেওয়া হল আইপিএল।

[আরও পড়ুন: মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের বিরুদ্ধে লাগাতার ‘বিষোদগার’, সাসপেন্ড কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement