১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ডোপ পরীক্ষায় ফেল, ঘুরে দাঁড়ানোর প্রতিজ্ঞা আটমাস নির্বাসিত পৃথ্বীর

Published by: Sulaya Singha |    Posted: July 31, 2019 8:53 am|    Updated: August 1, 2019 2:26 pm

BCCI suspends Prithvi Shaw for eight months for doping

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতীয় ক্রিকেটে হঠাৎই চাঞ্চল্য! ডোপিং নীতি লঙ্ঘনের অপরাধে চলতি বছর ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত পৃথ্বী শ’কে নির্বাসিত করল বোর্ড। মঙ্গলবার এক প্রেস বিবৃতিতে বিসিসিআই জানিয়েছে যে, ‘‘অসাবধানতা বশত একটা নিষিদ্ধ পদার্থ সেবনের প্রমাণ পাওয়ায় ভারতীয় টেস্ট ওপেনার পৃথ্বীকে ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ পর্যন্ত সাসপেন্ড করছে বোর্ড।’’ একইসঙ্গে বিসিসিআই বলেছে, “ওই নিষিদ্ধ পদার্থ সাধারণত কাশির সিরাপে পাওয়া যায়।”

সেই স্কুল ক্রিকেটজীবন থেকেই শুরু হয়েছিল স্বয়ং শচীন তেণ্ডুলকরের সঙ্গে পৃথ্বীর ব্যাটিংয়ের তুলনা। যা কিনা বিরাট কোহলির ভাগ্যেও জোটেনি। শচীনের মতোই রঞ্জি-দলীপে আবির্ভাবেই সেঞ্চুরি। শচীনের পর দ্বিতীয় কনিষ্ঠতম ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্ট অভিষেকে সেঞ্চুরি। ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসে কনিষ্ঠতম ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্ট আবির্ভাবে সেঞ্চুরি। পৃথ্বীর উৎক্ষেপণের রেখচিত্র অবিশ্বাস্য! কিন্তু গত নভেম্বরে সিডনিতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সফরকারী ভারতীয় দলের ওয়ার্ম আপ ম্যাচে ফিল্ডিং করার সময় পা পিছলে পড়ে পৃথ্বীর কোমরের নিচের পেশিতে চোট লাগে। তারপর সাত-আট মাস ধরে মুম্বইয়ের বিস্ময় বালকের খারাপ সময় চলেছেই। অথচ অস্ট্রেলিয়ায় বিরাটের ভারতের ঐতিহাসিক টেস্ট সিরিজ জয়ের অন্যতম শরিক হওয়ার কথা ছিল পৃথ্বীরও। অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্টের আগে সিডনির ওই ওয়ার্ম আপ ম্যাচে ৬৯ বলে ৬৬ রান করেছিলেন তিনি। অথচ তারপরের দিন মাঠে চোট পেয়ে শেষপর্যন্ত সফরের মাঝপথে পৃথ্বীকে দেশে ফেরত আসতে হয়। ডনের দেশে টেস্ট খেলা হয়ে ওঠেনি।

[আরও পড়ুন: সাদার্ন-পিয়ারলেস ম্যাচ ঘিরে ধুন্ধুমার, হাতাহাতি দুই দলের সমর্থকদের]

তারপর সুস্থ হয়ে তিনি বোর্ডের সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট খেলেন মুম্বইয়ের হয়ে। তারপর গোটা আইপিএল। শেষ ম্যাচ খেলেছেন গত ১০ মে। আইপিএল কোয়ালিফায়ার টু-তে দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে সিএসকের বিরুদ্ধে। কিন্তু তারপর ফের বেঙ্গালুরু এনসিএ’তে রিহ্যাব প্রোগ্রামে যোগ দিয়েছিলেন। সদ্য ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে উড়ে যাওয়া ভারতীয় দল নির্বাচনের ক’দিন আগে পৃথ্বী আক্ষেপ করেছিলেন, কবে তিনি পুরো ম্যাচফিট হবেন বুঝতে পারছেন না।

বোর্ডের এদিনের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানা যাচ্ছে, বিসিসিআইয়ের অ্যান্টি ডোপিং টেস্ট প্রোগ্রামের অংশ হিসেবে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফি চলাকালীন গত ২২ ফেব্রুয়ারি পৃথ্বীর মুত্রনমুনা নেওয়া হয়েছিল ইন্দোরে। তাঁর মুত্রের নমুনার মধ্যে ‘টারবুটালিন’ পাওয়া গিয়েছে। যা ওয়াডার তালিকা অনুযায়ী নিষিদ্ধ পদার্থ। এবং ডোপিংয়ের অন্তর্ভুক্ত। গোটা ঘটনায় ‘কেঁপে’ গিয়েছেন বলে স্বীকার করছেন দেশের সেরা তরুণ ক্রিকেট প্রতিভা। ২ টেস্টে একটি সেঞ্চুরি, একটি হাফসেঞ্চুরি-সহ ২৩৭ রান করা (গড় ১১৮.৫) পৃথ্বী এখনও টিনএজার।

[আরও পড়ুন: ‘পশ্চিমবঙ্গে বসে ইস্টবেঙ্গলকে সমর্থন কেন?’ তথাগত রায়ের মন্তব্যে বিতর্কের ঝড় ময়দানে]

এদিন রাতে তিনি দীর্ঘ টুইটে লিখেছেন, “ঘটনাটায় আমি সত্যিই কেঁপে গিয়েছি। তবে আমার ভাগ্যকে আমি আন্তরিকভাবে মেনে নিচ্ছি। এখনও আমার চোটের চিকিৎসা চলছে। যে চোট আমি শেষ টুর্নামেন্টে খেলার সময় পেয়েছি। আজকের ঘটনাটার জন্য আমি দায় নিচ্ছি। একইসঙ্গে আশা করছি আমাকে দেখে দেশের সমস্ত খেলোয়াড় অসুস্থ থাকাকালীন ওষুধ খাওয়ার ব্যাপারে আরও বেশি সতর্ক হবে। আমি খুব তাড়াতাড়ি আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসব। ক্রিকেট আমার জীবন। ভারত আর মুম্বইয়ের হয়ে খেলার চেয়ে বেশি গর্ব আমার আর কিছুতে নেই।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে