২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রবিবার রাতে নাটকীয় মোড়ের পরই বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট হওয়া নিশ্চিত হয়ে যায় সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের। সোমবার মুম্বইয়ে সেই পদে মনোনয়ন জমা দিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে কলকাতায় ফেরেন দাদা। আর ঘরের ছেলেকে সংবর্ধনা জানাতে স্বাভাবিকবশতই জমকালোভাবে সেজে উঠেছে সিএবি (বাংলা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন)।

[আরও পড়ুন: বাউন্ডারি কাউন্টে আর ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারিত হবে না, বড়সড় সিদ্ধান্ত আইসিসির ]

সৌরভের কাটআউট থেকে কেক সবকিছুরই বন্দোবস্ত করা হয়েছিল এদিন সিএবিতে। ফুল দিয়ে সাজানো হয়েছিল অ্যাসোসিয়েশন। সিএবিতে পা রাখতেই পুষ্পবৃষ্টি করে স্বাগত জানানো হয় বিসিসিআইয়ের নয়া সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে। চারদিকে যেন জনসুনামি। ১০ পাউন্ডের একটি কেক কেটে সিএবি কর্মকর্তাদের সঙ্গে এই আনন্দ উদযাপন করেন মহারাজ। গোলাপের মালা দিয়ে সংবর্ধনা জানানো হয় সৌরভকে। উচ্ছ্বসিত সৌরভ বলেন, “তৃপ্ত অনুভূত হচ্ছে। কঠিন সময়ে বোর্ডের দায়িত্ব পেয়ে খুশি। যখন ভারতীয় ক্রিকেট টিমের অধিনায়ক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলাম, তখনও চ্যালেঞ্জিং সময় ছিল। এবারও বোর্ডের খারাপ সময়ে দায়িত্ব পেয়েছি। অধিনায়কত্ব এবং সভাপতিত্ব কাজ দুটো যদিও আলাদা, এই দুটোকে গুলিয়ে ফেলা উচিত হবে না। গোটা বিশ্বে ভারত ক্রিকেটের ‘পাওয়ার হাউস’।” ভারতীয় ক্রিকেট টিমের প্রশংসাতেও পঞ্চমুখ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নিজের কাছেও অকল্পনীয় ঠেকছে এই রূপান্তর। রবিবার দুপুরে দিল্লি থেকে যখন মুম্বইয়ে নামেন তখন জানতেন, সাম্রাজ্য প্রাপ্তি কয়েক ঘণ্টার মাত্র অপেক্ষা। রাতে আচম্বিতে আবিষ্কার করেন, তাঁকে প্রেসিডেন্ট বা সচিব, কিছুই করা হচ্ছে না। ব্রিজেশ প্যাটেল হচ্ছেন প্রেসিডেন্ট। অপমানিত, অসম্মানিত সৌরভ হোটেল লবিতে দাঁড়িয়ে থাকা সাংবাদিকদের জানিয়েও দেন তিনি কিছু হচ্ছেন না। এরপর চলে যান নিজের ঘরে। সেখানে আচমকা ফোন আসে জনৈক প্রভাবশালী বোর্ড কর্তার, ‘তোমাকেই আমরা প্রেসিডেন্ট করছি!’ সৌরভ ভাবতেই পারেননি এমন কিছু হতে পারে।

[আরও পড়ুন: ‘বোর্ডের ভাবমূর্তি ঠিক করার এটাই সেরা সুযোগ’, প্রেসিডেন্ট পদ সামলাতে প্রস্তুত সৌরভ ]

শহরে পা রেখেই নোবেল জয়ের জন্য অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানান তিনি। সেই সঙ্গে বলেন, “বিসিসিআইয়ের সভাপতি হয়ে আগে ক্রিকেটের গোড়ায় জল দেবেন তিনি।” তাঁর মতে, জাতীয় দলে ভাল ক্রিকেটার পেতে হলে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। এবিষয়টি কড়া হাতে সামলাতে চান তিনি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং