BREAKING NEWS

৭  আশ্বিন  ১৪২৯  শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘ক্রিকেটারকে আর্থিক নিরাপত্তা দেয় টি-টোয়েন্টি লিগ’, সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের টুর্নামেন্টের পক্ষে সওয়াল শাস্ত্রীর

Published by: Krishanu Mazumder |    Posted: September 17, 2022 1:07 pm|    Updated: September 17, 2022 4:26 pm

Cricketer can play T-20 league if he does not get chance in National team | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: টি-টোয়েন্টি লিগ একজন ক্রিকেটারকে আর্থিক নিরাপত্তা দেয়। অবসর নেওয়ার পরে এই ধরনের লিগে নামলে কেরিয়ার দীর্ঘায়িত হয়, খেলা ছাড়ার পরের অনিশ্চয়তা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব। খেলা ছাড়ার পর সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটার কী করবেন, সেটাই স্থির করে উঠতে পারেন না। সেই জায়গায় অবসর নিয়ে কোনও ক্রিকেটার যদি  বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা টি-টোয়েন্টি লিগে নেমে পড়েন, তাহলে খেলা ছাড়ার পরের বিষন্নতা, ধাক্কা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব।

ইদানীং বহু বিদেশি খেলোয়াড় নিজেদের ক্রিকেট কেরিয়ার অনেক আগেই শেষ করে দিচ্ছেন। কেউ আবার দেশের ক্রিকেট বোর্ডের সেন্ট্রাল কন্ট্র্যাক্টে সই করতেই চাইছেন না। তার পরিবর্তে বিদেশের বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট লিগে খেলছেন। দেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার সুযোগ না পেলে, বিদেশের বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি লিগে খেলা কি বৈধ? এই প্রশ্নই করা হয়েছিল দেশের প্রাক্তন ক্রিকেটার রবি শাস্ত্রীকে।

বিরাট কোহলিদের ‘হেডস্যর’ হিসেবে সাত বছর কাজ করেছেন শাস্ত্রী। এখন তিনি ধারাভাষ্য দিচ্ছেন। আবার লেজেন্ডস ক্রিকেট লিগের চেয়ারম্যানও তিনি। স্পোর্টসটুডে-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে শাস্ত্রী বলেছেন, ”কেউ যদি মনে করে, সে জাতীয় দলের হয়ে আর খেলতে পারবে না, তাহলে সেন্ট্রাল কন্ট্র্যাক্টে সই নাই করতে পারে। তার পরিবর্তে বিদেশের বিভিন্ন ক্রিকেট লিগে খেলতে পারে সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটার। এতে কোনও সমস্যা নেই। দিনের শেষে নিরাপত্তাই শেষ কথা। এই ধরনের টি-টোয়েন্টি লিগে খেলে যদি অর্থ পাওয়া যায়, তাহলে তা একজন ক্রিকেটারের জন্য ভালই বলতে হবে।”

[আরও পড়ুন: ‘রিহ্যাবের জন্য পকেটের টাকা খরচ করে লন্ডনে গিয়েছিল শাহিন’, পিসিবিকে তোপ শাহিদ আফ্রিদির]

শাস্ত্রী আরও একটি কারণের কথা উল্লেখ করেছেন। আর তা হল, চোটের জন্য কোনও ক্রিকেটারের কেরিয়ার যদি দ্রুত শেষ হয়ে যায়, তাহলে সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটারের কাছে তা বড় ধাক্কা। শাস্ত্রী বলছেন, ”হঠাৎ করেই আমার ক্রিকেট জীবন থমকে গিয়েছিল। চোটের জন্য ২৯ বছর বয়সে আমাকে খেলা ছাড়তে হয়। ধারাভাষ্য, ব্রডকাস্টিং না থাকলে আমাকেও বড় সড় ধাক্কা খেতে হত সন্দেহ নেই। অনেকেরই মনে হয় ক্রিকেট ছাড়ার পরে কী করব। আমার ক্ষেত্রেও তা হতেই পারত। তাই আমার মতে, ক্রিকেট ছাড়ার পরে বা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার সুযোগ না থাকলে এই ধরনের বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি লিগে খেলা যেতেই পারে। এর মধ্যে কোনও অন্যায় তো নেই।”

কোচিং জীবনে কি তিনি আবার ফিরবেন? স্পোর্টসটুডের এই প্রশ্নের জবাবে শাস্ত্রী বলেছেন, ”মেরা কোচিং কা হিসাব খতম হো গ্যায়া। সাত বছর যা করার ছিল, তা আমি করেছি। এবার যদি কোচিং করিও, তাহলে তৃণমূল স্তরে কোচিং করাব। কোচ হিসেবে আমার কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে। এবার দূর থেকে আমি ক্রিকেট দেখব আর তা উপভোগ করব।” 

[আরও পড়ুন: ‘এশিয়া কাপে ভাল না করলেও, বিশ্বকাপে ভারতই ফেভারিট’, বললেন ইংল্যান্ডের প্রাক্তন স্পিনার পানেসর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে