BREAKING NEWS

১৫ মাঘ  ১৪২৯  সোমবার ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

সিরিজ হেরে ভুল বকছেন ডু প্লেসি! প্রোটিয়া অধিনায়ককে তুলোধোনা নেটিজেনদের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: October 27, 2019 7:04 pm|    Updated: October 27, 2019 8:13 pm

Du Plessis believes getting rid of the toss in Test cricket would help teams

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সদ্য শেষ হওয়া টেস্ট সিরিজে ভারতের হাতে দুরমুশ হয়ে গিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। বিরাটরা ব্যাট-বল-ফিল্ডিং তিন বিভাগেই প্রোটিয়াদের মাত করেছেন। কিন্তু, দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটাররা এই হার মেনে নিতে পারছেন না। খারাপ খেলেই যে হেরেছেন সেটাও স্বীকার করতে নারাজ তাঁরা। এর আগে ডিন এলগার হারের জন্য দোষ দিয়েছিলেন ভারতের খাবার এবং হোটেলকে। এবার খোদ দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ডু প্লেসি হারের জন্য দুষলেন টসকে। তাঁর মতে, টসে জেতে বলেই ভারত ম্যাচ জেতে।


সম্প্রতি ইএসপিএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক বলেন, “সব টেস্ট ম্যাচেই ওঁরা আগে ব্যাট করে। আগে ৫০০ রান করে। তারপর দ্বিতীয় দিনের শেষের দিকে যখন অন্ধকার হয়ে যায়, তখন ইনিংস ঘোষণা করে। অন্ধকার থাকতে থাকতেই ওঁরা তিনটি উইকেট তুলে নেয়। তৃতীয় দিন শুরুর আগেই আমরা অত্যন্ত চাপে পড়ে যায়। এই একই কাজ ওঁরা সব ম্যাচে করে। টস যদি না থাকত তাহলে হয়তো বিপক্ষের দলের কাছে সুযোগ থাকত। আর যদি বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকার কথা, সেখানে আমরা এমনিতেই সবুজ পিচে খেলি, তাই টস টা কোনও ফ্যাক্টর নয়।”

[আরও পড়ুন: দীপাবলির পরপরই প্রথম টি-২০, বাংলাদেশ ম্যাচের আগে দিল্লির দূষণ নিয়ে চিন্তায় বোর্ড]


উল্লেখ্য, এর আগে ডিন এলগার হারের অজুহাত দিতে গিয়ে রীতিমতো ভারত সম্পর্কে অসম্মানজনক মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, ভারত খুব চালাক দেশ। আমরা যখন ছোট ছোট জায়গায় খেলতে যায়, সেখানে হয়তো হোটেলগুলো ভাল না, বা খাবার-দাবার সেই মানের নয়। সেসবের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া খুব কঠিন। এবার হারের অজুহাত হিসেবে টসকে দূষলেন খোদ অধিনায়ক। যা কিনা একেবারেই পছন্দ হয়নি ভারতীয় সমর্থকদের। তাঁরা বলছেন, নিজেদের হারটা কিছুতেই স্বীকার করতে চায় না প্রোটিয়ারা। কেউ কেউ আবার বলছেন, ডু প্লেসির মতো ক্রিকেটারের এই ধরনের অজুহাত দেওয়া মানায় না।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে