২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৫ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘আশা করি দ্রুত সব ঠিক হয়ে যাবে’, আমফানের ভয়াবহতায় মর্মাহত কোহলি

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 21, 2020 8:36 pm|    Updated: May 21, 2020 8:36 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আবহেই প্রবল সাইক্লোনে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছে বাংলা। প্রাণ হারিয়েছেন ৭২ জন মানুষ। কারও বিদ্যুৎস্পৃষ্ঠ হয়ে মৃত্যু হয়েছে তো কারও প্রাণ গিয়েছে মাথায় গাছ ভেঙে পড়ে। ঘূর্ণিঝড় আমফানে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে ওড়িশারও। দুই ২৪ পরগণা, কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, পূর্ব মেদিনীপুরকে তছনছ করে বাংলা ছেড়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে এই সুপার সাইক্লোন। রাতারাতি বদলে গিয়েছে দুই রাজ্যে চেহারা। যা দেখে মর্মাহত বিরাট কোহলি, কুলদীপ সিংরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় শোকপ্রকাশ করেন ভারতীয় অধিনায়ক।

দিনভর সোশ্যাল মিডিয়া এবং সংবাদ মাধ্যমে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির ছবি ও ভিডিও ফুটে উঠেছে। কোথাও জলের নিচে চলে গিয়েছে বিমানবন্দর। তো কোথাও রাস্তার উপর গাছ ভেঙে পড়ায় ব্যাহত চলাচল। বহু মানুষের ঘর-বাড়িও ভেঙে গিয়েছে। বাংলাতেই পাঁচ লক্ষ মানুষকে আগে থেকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এরপরও অনেকে ঘরছাড়া হয়েছেন এই তাণ্ডবের কারণে। আর সেই সব মানুষগুলির জন্যই দুঃখপ্রকাশ করেছেন টিম ইন্ডিয়ার ক্রিকেটাররা।

[আরও পড়ুন: কোহলি নয়, এই কারণেই ওয়ানডে ক্রিকেটে শচীনকে বেশি পছন্দ গম্ভীরের]

কোহলি টুইট করেছেন, “ওড়িশা আর পশ্চিমবঙ্গে যাঁরা এই সাইক্লোনে বিপর্যস্ত হয়েছেন, তাঁদের প্রতি আমার সহানুভূতি রইল। ঈশ্বর প্রত্যেককে সুরক্ষিত রাখুন। আশা করি তাড়াতাড়ি সব ঠিক হয়ে যাবে।”

ইতিমধ্যেই ইউনিসেফের (UNICEF) তরফে জানানো হয়েছে, এই ঘূর্ণিঝড়ের জন্য ভারত ও বাংলাদেশের প্রায় ১৯ মিলিয়ন শিশুর জীবনে ঝুঁকি নেমে এল। এদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, রাজ্যের প্রচুর ক্ষতি হয়ে গিয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে অন্তত ১০-১২ দিন সময় লাগবে। গোটা পরিস্থিতি দেখে ভাষা হারিয়েছেন আরেক ভারতীয় তারকা কে এল রাহুল। তিনিও মৃত ও ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারের প্রতি সহানুভূতি জানিয়েছেন। টুইটারে দুঃখপ্রকাশ করেছেন কুলদীপ যাদবও।

[আরও পড়ুন: পরের বছর না হলে বাতিলই হবে টোকিও অলিম্পিক, জানিয়ে দিলেন আইওসি প্রধান]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement