BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারতের প্রতি পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ, আইসিসির বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফুঁসছে পিসিবি

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 16, 2020 2:53 pm|    Updated: April 16, 2020 3:57 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইসিসির (International Cricket Council) বিরুদ্ধে ভারতের প্রতি পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ নতুন কিছু নয়। অনেক ক্রিকেট খেলিয়ে দেশই মনে করে, আর্থিক ক্ষমতার জন্য বিসিসিআইয়ের সামনে (BCCI) পদানত হয়ে চলে আইসিসি (ICC)। ফের এমনই একটি অভিযোগ তুলে সরব হল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (Pakistan Cricket Board)। তাঁদের দাবি, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সিরিজ খেলতে অস্বীকার করা সত্বেও ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলকে যেভাবে অর্ধেক পয়েন্ট উপহার দেওয়া হয়েছে, তা নিয়ম বহির্ভূত।

PCB

আসলে ২০১৭ থেকে ২০২০ পর্যন্ত আইসিসির মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপের মোট তিনটি সিরিজ আয়োজিত হয়নি। তাই আইসিসির টেকনিক্যাল কমিটি (TC) সিদ্ধান্ত নেয়, ওই সিরিজগুলির পয়েন্ট সবকটি দেশের মধ্যে সমান ভাগে ভাগ করে দেওয়া হবে। এর মধ্যে ভারত ও পাকিস্তানের মহিলা দলের একটি সিরিজ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দুই দেশের মধ্যেকার অশান্তির বাতাবরনের জন্য ভারতীয় দল ওই সিরিজ খেলতে রাজি হয়নি। তা সত্বেও সিরিজ থেকে অর্ধেক পয়েন্ট ভারত পেয়েছে। এবং ২০২১ বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। পিসিবির (PCB) দাবি, ভারতকে এভাবে পয়েন্ট দেওয়া অনুচিত। যদিও এ নিয়ে প্রকাশ্যে কিছু বলতে পারছে না পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। কারণ, অন্য সিরিজগুলির ক্ষেত্রেও একই ধরণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

[আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কের মধ্যে খুশির খবর, বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করলেন হরমনপ্রীতরা]

ভারতকে শায়েস্তা করতে অন্য ফন্দি আঁটছে তাঁরা। ২০২৩-৩১ সাল পর্যন্ত যে একগুচ্ছ আইসিসি ইভেন্ট হওয়ার কথা। তাঁর মধ্যে অন্তত ছ’টি টুর্নামেন্ট আয়োজনের দাবি জানাবে পাকিস্তান। সংযুক্ত আরব আমিরশাহির সঙ্গে হাত মিলিয়ে ওই টুর্নামেন্টগুলি আয়োজন করতে চায় পাক বোর্ড। পিসিবি কর্তা এহসান মণির ধারণা, যে ছ’টি টুর্নামেন্ট আয়োজনের দাবি তাঁরা জানাচ্ছেন, তাঁর মধ্যে অন্তত দু’টি আয়োজনের অনুমতি পাবেন। যদি তা হয়। তাহলে তা পাকিস্তানের জন্য জোড়া ফায়দা হিসেবে কাজ করবে। প্রথমত, পাক বোর্ড আর্থিকভাবে লাভবান হবে। দ্বিতীয়ত, ভারতকে পাক বোর্ডের অধীনে খেলতেই হবে। তা সে পাকিস্তানেই হোক, বা সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement