BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

কিউয়িদের কালঘাম ছুটিয়েও হেরে গেল বাংলাদেশ

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: June 6, 2019 9:59 am|    Updated: June 6, 2019 11:13 am

An Images

বাংলাদেশ- ২৪৪ (শাকিব ৬৪, হেনরি ৪/৪৭)
নিউজিল্যান্ড- ২৪৮/৮ (টেলর ৮২, মোসাদ্দেক ২/৩৩)
নিউজিল্যান্ড ২ উইকেটে জয়ী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকা পারেনি। ফাফ ডু’প্লেসির টিমকে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই হারিয়ে গোটা ক্রিকেটবিশ্বকে চমকে দিয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেই রূপকথাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া আর সম্ভব হল না। বাংলাদেশ শেষ পর্যন্ত হেরে গেল ঠিকই। কিন্তু হারার আগে কেন উইলিয়ামসনের টিমের কালঘাম বার করে দিয়ে গেল!

বুধবার প্রথমে ব্যাট করে ৪৯.২ ওভারে ২৪৪ তোলে বাংলাদেশ। নিজের কেরিয়ারের দু’শোতম ওয়ান ডে ম্যাচ খেলা শাকিব আল-হাসান ৬৮ বলে ৬৪ করে যান। মারেন সাতটা বাউন্ডারি। মূলত শাকিবের হাফসেঞ্চুরির উপরেই ভিত্তি করে আড়াইশোর কাছাকাছি পৌঁছয় বাংলাদেশ। কিন্তু টিমের আর কারও থেকে তিনি প্রয়োজনীয় সহায়তা পাননি। টিমের অধিকাংশ ব্যাটসম্যান ভাল শুরু করেও কুড়ি রানের ঘরে আউট হয়ে যান। তামিম ইকবাল (২৪), সৌম্য সরকার (২৫), মহম্মদ মিঠুন (২৬), মাহমুদুল্লাহ (২০), সইফুদ্দিন (২৯)– সবাই ভাল শুরু করেও সেটাকে বড় ইনিংসে পরিণত করতে ব্যর্থ। দুঃখ একটাই। ২৪৫ তুলে জিততেও যে ভাবে শেষ পর্যন্ত নিউজিল্যান্ড গলদঘর্ম হল, তাতে আর গোটা পনেরো-কুড়ি রান বেশি উঠলে কী হত, কে জানে!

[আরও পড়ুন: দুই মহিলার সঙ্গে ছবি, শাস্ত্রীকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষ অজি সাংবাদিকের]

নিউজিল্যান্ডের হয়ে সবচেয়ে বেশি উইকেট পান ম্যাট হেনরি। ৯.২ ওভারে ৪৭ রান দিয়ে চার উইকেট তুলে নেন তিনি। ভাল বল করেন ট্রেন্ট বোল্টও। ১০ ওভারে ৪৪ রান দিয়ে দু’উইকেট নেন। লোকি ফার্গুসন এবং মিচেল স্যান্টনার পান একটা করে উইকেট। জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ঝটকা খায় নিউজিল্যান্ড। টিমের ৩৫ ও ব্যক্তিগত ২৫ রানের মাথায় সাকিব আল হাসানের বলে আউট হয়ে যান নিউজিল্যান্ড ওপেনার মার্টিন গাপ্তিল। তখনকার মতো মনে হচ্ছিল, ব্যাটে ও বলে অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে শাকিবই না ম্যাচ নিয়ে চলে যান! কারণ শুধু গাপ্তিল তো নয়। নিউজিল্যান্ডের আর এক ওপেনার কলিন মুনরোর উইকেটও তুলে নেন শাকিব। প্রাথমিক দু’টো ঝটকা খাওয়ার পর খেলা কিছুটা ধরেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন এবং ব্যাটিংয়ের অন্যতম সেরা ভরসা রস টেলর। উইলিয়ামসন ৪০ করে আউট হন। টেলর করেন ৮২।

[আরও পড়ুন: হিটম্যানের ‘কুল’ সেঞ্চুরি, সহজ জয় দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু ভারতের]

কিন্তু তারপরেও একটা সময় চাপে পড়ে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। টম ল্যাথাম (০), জিমি নিশাম (২৫), কলিন ডি’গ্র্যান্ডহোম (১৫) সবাই ব্যর্থ। এক সময় নিউজিল্যান্ডের সাত উইকেট পড়ে গিয়েছিল। জয়ের জন্য তখনও ২৭ রান দরকার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মিচেল স্যান্টনার (১৭ ন:আ:) এবং লোকি ফার্গুসন (৪ ন:আ:) মিলে জয়ের রানটা তুলে দেন। ম্যাচ হারলেও সম্মান অটুট রেখেই পরবর্তী বিশ্বকাপ ম্যাচে নামবে বাংলাদেশ। কেউ ভাবেনি, ইংল্যান্ডের পরিবেশে দক্ষিণ আফ্রিকা-নিউজিল্যান্ডের মতো টিমের গলদঘর্ম করিয়ে ছাড়বে তারা। বাংলাদেশ যদি শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল যেতে পারে, তা হলে তো কথাই নেই। কিন্তু বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে না উঠলেও তারা একটা বার্তা ছেড়ে যাবে বাকি ক্রিকেটবিশ্বের জন্য। আমরা হাজির! বিশ্বের মহড়া নিতে হাজির এগারো বাঙালি!

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement