BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নিউজিল্যান্ডের সেরা বোলিংই আজ কোহলিদের কাছে চ্যালেঞ্জ, মত সৌরভের

Published by: Sulaya Singha |    Posted: July 9, 2019 9:45 am|    Updated: July 9, 2019 9:45 am

ICC World Cup 2019: New Zealand's bowling is the challenge for India

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়: ভারত এখনও পর্যন্ত টুর্নামেন্টে শুধুই ভাল নয়, দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলছে। কিন্তু এটাই সেই সপ্তাহ, যেখানে খেলার জন্য এতকিছু করা। এতদিন পর্যন্ত গ্রুপ লিগের টিমগুলো যা পারফর্ম করছে, এবার সেটা উত্তুঙ্গ পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে। আর কেউ আন্ডারডগ হয়ে নামছে না সুপার পাওয়ার হয়ে, সেটা কোনও ফ্যাক্টর হবে না। নির্দিষ্ট দিনে কোন টিম পারফর্ম করছে, কতটা নার্ভ ধরে রাখতে পারছে, সেটাই আসল।

আমরা দেখেছি গোটা টুর্নামেন্টজুড়ে কর্তৃত্ব করা অস্ট্রেলিয়া তুলনায় দুর্বল দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হেরে যাওয়ার লিগ টেবিল ওলট-পালট হয়েছে। সেটা থেকে ইন্ডিয়ার একটা ব্যাপার শেখা উচিত, নিউজিল্যান্ডকে কোনওভাবেই হালকাভাবে না নেওয়া। ওদের টিমে প্রচুর অভিজ্ঞ ক্রিকেটার রয়েছে। যারা নকআউটে টিমের চেহারা সম্পূর্ণ বদলে দিতে পারে। পাঁচটা সেঞ্চুরি করার পরও রোহিত শর্মাকে বলতে শুনলাম ওর কাছে ব্যক্তিগত মাইলস্টোনের থেকেও বড় হল ট্রফি জেতা। গত কুড়ি বছরে ভারতীয় ড্রেসিংরুমে এই পরিবর্তনের কথাই বলছি। টিম সবচেয়ে আগে। বিশ্ব ক্রিকেটে সবাই বিরাট কোহলিকে নিয়ে বলাবলি করে। সেটা অবশ্য ঠিকই। কিন্তু সাদা বলের ক্রিকেটে শেষ তিনবছরে রোহিত চ্যাম্পিয়নের মতোই পারফর্ম করছে। দু’জনেরই আঠারোটা করে সেঞ্চুরি হয়েছে। এটাই প্রমাণ করছে, ভারতীয় টিমের কাছে রোহিত কতটা গুরুত্বপূর্ণ।

[আরও পড়ুন: শেষ মুহূর্তে অঙ্ক বদল, চরম বিপাকে সেমিফাইনাল দেখতে যাওয়া ভারতীয় সমর্থকরা]

সেমিফাইনালে ভারতীয় দলের কী কম্বিনেশন হবে, সেটা নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে। সেটার কারণ শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে গ্রুপের শেষ ম্যাচে রবীন্দ্র জাদেজাকে প্রথম এগারোয় নিয়ে আসা হয়। কোনও টিমই নকআউটের কারণ ছাড়া দলে পরিবর্তন করতে চাইবে না। এখন জাদেজা চলে আসায় একটা কথা শোনা যাচ্ছে, কার্তিককে বসিয়ে ভারত হয়তো ছ’জন বোলার নিয়ে নামতে পারে। প্রেস কনফারেন্সে বিরাট বড় ম্যাচে ঝুঁকি নেওয়ার কথা বলেছে। ম্যাচের দিন সকালে টিম ঘোষণার আগে সেটাই ব্যাপারটাকে আরও ইন্টারেস্টিং করে তুলেছে। এটা হলে, মহম্মদ শামি টিমে চলে আসবে। এই টুর্নামেন্টে মোটামুটি সবাই আগে ব্যাট করতে চেয়েছে। আশা করি, এই ম্যাচে অন্যরকম কিছু হবে না। ম্যাঞ্চেস্টারে দুই স্পিনার নিয়ে নামতেই হবে। এখানে বল বেশ ঘোরে। আর এই মাঠে কুলদীপ যাদবের যা রেকর্ড তাতে ওকে বাইরে রাখাটা খুব কঠিন হবে।

মিডল অর্ডারের প্রসঙ্গে আসি। ভারতীয় মিডল অর্ডার নিয়ে প্রচুর কথাবার্তা চলছে। আমি মনে করি না এই টিমের মিডল অর্ডার দুর্বল। লোকেরা প্রথম তিন ব্যাটসম্যানের পারফরম্যান্সের সঙ্গে বাকিদের মধ্যে হয়তো প্রচুর তফাত খুঁজে পাচ্ছে। সেটা খুব স্বাভাবিক। প্রথম তিন ব্যাটসম্যান যতটা সময় পায়, বাকিরা ততটা পায় না। কিন্তু বিশ্বাস করুন ভারতের ব্যাটিং লাইন আপ যথেষ্ট শক্তিশালী। ওদের নিউজিল্যান্ডের শক্তিশালী বোলিংয়ের বিরুদ্ধে নামতে হবে। অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের পর নিউজিল্যান্ড বোলিংই সেরা। বিরাটদের আসল সময় এখন শুরু হল। ইন্ডিয়ার জন্য শুভেচ্ছা রইল।

[আরও পড়ুন: বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে কেমন খেলে ভারত? কী বলছে ইতিহাস?]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে