১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

স্টাফ রিপোর্টার: চিন্নাস্বামীতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে নামছে ভারত। বিরাটের ‘সেকেন্ড হোম’-এ সিরিজ জয় নিশ্চিত করার পাশাপাশি নিজেদের শক্তি-দুর্বলতা যাচাই করে নিতে চাইছে টিম ইন্ডিয়া।অস্ট্রেলিয়ায় বিশ্বকাপের আগে পঁচিশটা টি-টোয়েন্টি ম্যাচ পাবেন বিরাটরা। ম্যানেজমেন্ট চাইছে সবাইকে ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে দেখে নিতে।

[আরও পড়ুন: সত্যি হল জল্পনা, ফের সিএবি প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়]

সিরিজের শেষ ম্যাচে অবশ্য দলে পরিবর্তনের সম্ভাবনা খুব একটা নেই। যদি বেঙ্গালুরুতে আসার আগে টিম ২-০ করে ফেলতে পারত, তাহলে  কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলত। কিন্তু ধরমশালায় বৃষ্টিতে ম্যাচ ভেস্তে যাওয়ায় আপাতত সে’সব হচ্ছে না। মোহালিতে ভারত তিন স্পিনার নিয়ে নেমেছিল। চিন্নস্বামীতে অবশ্য স্পিনারদের পরিসংখ্যান খুব একটা ভাল নয়।মাঠের বাউন্ডারি খুব ছোট। সেক্ষেত্রে একজন স্পিনার বসিয়ে বাড়তি পেসার খেলানোর ভাবনা থাকতে পারে। সেটা হলে হয়তো খলিল আহমেদ সুযোগ পেতে পারেন। আবার এটাও শোনা যাচ্ছে, মোহালিতে মাত্র এক ওভার বল করা ক্রুণাল পাণ্ডিয়ার জায়গায় রাহুল চাহারকে খেলানো হতে পারে।

এমনিতে এই দক্ষিণ আফ্রিকা নিয়ে খুব একটা ভাবার কারণ নেই।  এবি ডে’ভিলিয়ার্স আগেই অবসর নিয়েছেন। ফাফ ডু’প্লেসি নেই। যার ফলে মিডল অর্ডার বেশ অনভিজ্ঞ। তবে ভারতের চিন্তা ঋষভ পন্থ। ফর্মের ধারেকাছে নেই। গত ম্যাচেও এমন জায়গায় ব্যাট করতে নেমেছিলেন, যেখানে বিরাটের সঙ্গে থেকে তাঁর ম্যাচ শেষ করে আসা উচিত ছিল।কিন্তু সেটা না করে উইকেট দিয়ে যান। সিরিজ শুরুর আগে থেকেই এটা নিয়ে চর্চা হচ্ছে। শোনা যাচ্ছে, বিরাট কোহলি-রবি শাস্ত্রীরা এটা নিয়ে তাঁর সঙ্গে কথাও বলেছেন। রাহুল দ্রাবিড়ও নাকি ঋষভের সঙ্গে আলাদা করে আলোচনা করেছেন। দ্রাবিড় এখন ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমি (এনসিএ-র) ডিরেক্টর। শুক্রবার ভারতীয় দলের প্র্যাকটিসের রাহুল ছিলেন। সেখানেই আলাদা করে ঋষভকে বুঝিয়েছেন বলেই খবর।

[আরও পড়ুন: তৃতীয় টি-টোয়েন্টির আগে বিশ্বরেকর্ডের সামনে রোহিত, নজির গড়তে পারেন ধাওয়ানও]

অবশ্য শুধু ঋষভ নয়, চিন্তার আরও একটা কারণও থাকছে। রবিবার বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। বৃষ্টিতে ম্যাচ বাতিল হলে সিরিজ অবশ্য ভারত জিতবে। কিন্তু মনে হয় না বিরাটরা তাতে খুব একটা খুশি হবেন। কারণ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতির জন্য প্রত্যেকটা ম্যাচই খুব গুরুত্বপূর্ণ।

এমনিতেই চিন্নস্বামীর উইকেটের যা চরিত্র, তাতে বড় রান হবে সেটা ধরেই নেওয়া যায়। পিচে হালকা ঘাস রয়েছে। বল ভাল ব্যাটে আসবে। স্ট্রোক প্লেয়ারদের কাছে স্বর্গভূমি।তবে শিশির ফ্যাক্টর হতে পারে। বিরাট টসে জিতলে নিশ্চিত আগে ফিল্ডিং করে নিতে চাইবেন। মোহালিতে বোলাররা বেশ ভাল বল করেছেন। বিশেষ করে দীপক চাহার আর ওয়াশিংটন সুন্দর। শিখর দু’জনের প্রশংসাও করে গেলেন। বলছিলেন, “ওয়াশিংটন খুব ভাল বল করছে। ব্রেক থ্রু দিচ্ছে। সবচেয়ে বড় কথা হল, অসম্ভব ভাল কন্ট্রোল। ভ্যারিয়েশনও রয়েছে। আর চাহার? দু’দিকেই সুইং করাতে পারে। ভাল পেস রয়েছে।টি—টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নেওয়ার খুব ভাল মঞ্চ এটা।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং