২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৪ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত টিম ইন্ডিয়া, ইনিংসের শুরুতেই মুখ থুবড়ে পড়ল দক্ষিণ আফ্রিকা

Published by: Sulaya Singha |    Posted: October 11, 2019 5:40 pm|    Updated: October 11, 2019 5:40 pm

An Images

ভারত: ৬০১/৫ ডিক্লেয়ার্ড (মায়াঙ্ক-১০৮, কোহলি-২৫৪*, জাদেজা- ৯১)
দক্ষিণ আফ্রিকা: ৩৬/৩ (ব্রুইন-২০*)
দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ব্যাটে-বলে মারকাটারি টিম ইন্ডিয়া। বোলার এবং ব্যাটসম্যানদের এমন ফর্মের সামনে যে কোনও দলেরই ভিরমি খেয়ে যাওয়াটাই স্বাভাবিক। তেমনটাই হল দক্ষিণ আফ্রিকার। একেতেই বিরাট কোহলির চওড়া ব্যাটে ভর করে রানের পাহাড় গড়েছে ভারত। আর গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো হাত ঘুরিয়ে বিধ্বংসী হয়ে উঠলেন উমেশ যাদব এবং মহম্মদ শামি। তাতেই দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিন অনেকটাই ব্যাকফুটে ডু প্লেসি অ্যান্ড কোং।

[আরও পড়ুন: অনবদ্য ব্যাটিং, ব্র্যাডম্যান ও শচীনকে টপকে টেস্টে নয়া ইতিহাস বিরাটের]

ঘরের মাঠে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হোয়াইটওয়াশ করাই লক্ষ্য কোহলিদের। সে লক্ষ্যে বেশ ভালভাবেই এগিয়ে চলেছেন তাঁরা। ভাইজ্যাগে বড় ব্যবধানে জয় এসেছে। পুণেতে দ্বিতীয় টেস্টেও দুর্দান্ত ছন্দে ব্যাটসম্যান এবং বোলাররা। প্রথমদিন মায়াঙ্কের সেঞ্চুরির পর দ্বিতীয়দিন আড়াইশো রানের গণ্ডি টপকে নয়া রেকর্ড গড়লেন ক্যাপ্টেন কোহলি। চলতি বছরে এটাই তাঁর প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি। দলের অধিনায়ক হিসেবে এই নিয়ে ন’বার ১৫০ রানের গণ্ডি পেরোলেন কোহলি। আর তাতেই তৈরি হয় নয়া ইতিহাস। অধিনায়ক হিসেবে দেড়শোর গণ্ডি টপকানোর নিরিখে অজি কিংবদন্তি ব্র্যাডম্যানকে পিছনে ফেলে দিলেন তিনি। দলকে নেতৃত্ব দেওয়াকালীন আটটি সেঞ্চুরি করেছিলেন ব্র্যাডম্যান। এখানেই শেষ নয়, আন্তর্জাতিক টেস্ট কেরিয়ারে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান করে শচীন তেণ্ডুলকরকেও টপকে গেলেন কোহলি। টেস্টে মাস্টার ব্লাস্টারের সর্বোচ্চ রান ২৪৮। এদিন ২৫৪ রানে অপরাজিত থেকে ইনিংস ডিক্লেয়ার করেন ক্যাপ্টেন। টেস্টে ব্যক্তিগত সাত হাজারেরও বেশি রানের মালিক হয়ে গেলেন তিনি। কোহলির যোগ্য সঙ্গী হয়ে ওঠেন রবীন্দ্র জাদেজা। ৯১ রান করে প্যাভিলিয়ে ফিরলেন তিনি।

[আরও পড়ুন: যুবভারতীতে ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচের টিকিট বিক্রি শুরু, জেনে নিন কীভাবে কাটবেন]

বিরাট রানের বোঝা মাথায় নিয়ে নামলে যা হয়, সেটাই হল প্রোটিয়াদের। উমেশ ও শামির পেস ঝড়ে ধস নামল টপ অর্ডারে। দলের ৩৩ রানের মধ্যেই ফিরে গেলেন এলগার, মারক্রাম এবং টেম্বা বাভুমা। উমেশ দুটি এবং শামি একটি উইকেট তুলে নেন। ভারতীয় বোলারদের এই ছন্দই বজায় থাকলে, পুণে টেস্টের ভবিষ্যৎও যে ভাইজ্যাগের মতোই হবে, তা বলাই বাহুল্য।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement