BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২২ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

খারাপ বোলিংয়ের খেসারত দিল চেন্নাই, অনবদ্য ইনিংস খেলে আইপিএল অভিযান শুরু স্মিথের

Published by: Sulaya Singha |    Posted: September 22, 2020 11:31 pm|    Updated: September 23, 2020 3:42 pm

An Images

রাজস্থান রয়্যালস: ২১৬/৭ (স্মিথ-৬৯, স্যামসন-৭৪)
চেন্নাই সুপার কিংস: ২০০/৬ (ওয়াটসন-৩৩, ডু প্লেসিস-৭২)
১৬ রানে জয়ী রাজস্থান রয়্যালস

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চোট সারিয়ে সম্পূর্ণ ফিট হয়ে স্টিভ স্মিথ যখন ঘোষণা করেছিলেন, আজ মাঠে নামবেন, তখনই যেন আত্মবিশ্বাসটা দ্বিগুণ হয়ে গিয়েছিল রাজস্থানের। দিনের শেষে সেটাই যেন কাজে দিন। নিজেদের প্রথম ম্যাচেই সেই চেনা ছন্দে ধরা দিলেন অজি তারকা। নেতৃত্ব দিয়ে দলকে জেতানোর পাশাপাশি অনবদ্য একটা ইনিংসও দর্শকদের উপহার দিলেন স্মিথ।

[আরও পড়ুন: নেটে আগুন ঝড়াচ্ছেন পাওয়ার হিটার রাসেল, এক শটে ভাঙলেন ক্যামেরার কাচ, দেখুন ভিডিও]

চলতি আইপিএলের (IPL 2020) প্রথম সাদামাটা একপেশে ম্যাচ বলাই যায় চেন্নাই-রাজস্থানের লড়াইকে। যেখানে স্কোরবোর্ডে ২১৬ রান দেখলেই আন্দাজ করে নেওয়া যায় যে কার পাল্লা ভারি। স্মিথ ও স্যামসন শুরুটা তো মারকাটারি করেইছিলেন, আর শেষটায় রাজস্থানকে রানের পাহাড়ে পৌঁছে দিলেন লুঙ্গি এনগিডি। শেষ ওভারে জোড়া ফ্রি-হিটের সৌজন্যে ৩০ রান ঝুলিতে ভরলেন হোফ্রা আর্চাররা। ১৯ বলে হাফ সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে এদিন নয়া রেকর্ডের মালিকও হয়ে গেলেন স্যামসন। কে এল রাহুলের পর আইপিএলে দ্বিতীয় তারকা হিসেবে দ্রুততম হাফসেঞ্চুরি করলেন তিনি। তিনটি উইকেট নেন তেওয়াটিয়া।

তবে ম্যাচ চলাকালীনই শিরোনামে উঠে আসেন ধোনিপত্নী সাক্ষী। টম কুরানের ব্যাটিংয়ের সময় থার্ড আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্ষোভ উগরে দেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। দীপক চাহারের ওভারে কুরান হয়ে বল চলে যায় ধোনির হাতে। আউটের অ্যাপিল করে চেন্নাই। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে থার্ড আম্পায়ারের শরণাপন্ন হন ফিল্ড আম্পায়ার। দেখা যায়, বল ব্যাটে লাগেনি। আর ধোনির ক্যাচ ধরার আগে তা মাটিতেও ড্রপ করে। কিন্তু কেন LBW হয়েছে কি না দেখা হল না, তা নিয়ে টুইট করেন ক্ষুব্ধ সাক্ষী। যদিও পরে তা ডিলিটও করে দেন।

এবার ফেরা যাক ম্যাচে। রানের পাহাড় মাথায় নিয়ে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই চেন্নাইয়ের ব্যাটিং লাইন আপে ধস নামে। তবে ফাইভ ডাউনে নেমে লড়াইটা জমিয়ে দিয়েছিলেন ধোনি (MS Dhoni)। সঙ্গী ফ্যাফ ডু প্লেসিস। ক্যাপ্টেন কুল তাঁর কানে কী মন্ত্র দিয়েছিলেন, জানা নেই, তবে সেই পেপ-টকেই যেন তেতে উঠছিলেন ডু প্লেসিস। আর হাঁকাচ্ছিলেন একের পর এক ছক্কা। তবে তাঁর মারকাটারি ইনিংসে ব্রেক কষে দিলেন আর্চার। ৩৭ বলে ৭২ রানের চোখ ধাঁধানো ইনিংস খেলে প্যাভিলিয়নে ফিরলেন প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান। বুড়ো হাড়ে ভেলকি দেখালেন ধোনি নিজেও। শেষ ওভারে পরপর তিনটে ছক্কা হাঁকিয়ে ২৯ রানে অপরাজিত রইলেন। তবে যে দলই জিতুক, এদিন ছক্কার রেকর্ডের সাক্ষী হলেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। রাজস্থান (১৭) ও চেন্নাই (১৬) মিলিয়ে ৩৩টি ওভার বাউন্ডারি হল। যা এক ম্যাচে আইপিএলের ইতিহাসে নয়া নজির।

[আরও পড়ুন: টিভি ভিউয়ারশিপে বিশ্বরেকর্ড আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচের, হার মানল ফুটবল বিশ্বকাপও]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement