১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৪ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

IPL 2022: হেরেই চলেছে মুম্বই, রাহুলের চওড়া ব্যাটে সহজ জয় লখনউয়ের

Published by: Krishanu Mazumder |    Posted: April 16, 2022 7:34 pm|    Updated: April 16, 2022 8:36 pm

IPL 2022: Lucknow Super Giants win it in style against Mumbai Indians | Sangbad Pratidin

লখনউ সুপার জায়ান্টস: ১৯৯/৪ (লোকেশ রাহুল-১০৩*, জয়দেব-৩২/২)
মুম্বই ইন্ডিয়ান্স: ১৮১/৯ (ব্রেভিস-৩১, সূর্যকুমার-৩৭, আবেশ-৩০/৩)
১৮ রানে জয়ী লখনউ
সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইপিএলে (IPL) হারের ধারা অব্যাহত মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের (Mumbai Indians)। এখনও পর্যন্ত একটিও ম্যাচ জিততে পারেনি রোহিত শর্মার দল। শনিবার লখনউ সুপার জায়ান্টসের (Lucknow Super Giants) কাছেও হেরে গেল মুম্বই। টস জিতে লখনউকে ব্যাট করতে পাঠিয়েছিল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। ২০ ওভারে লখনউ করে ৪ উইকেটে ১৯৯ রান। মুম্বই থামল ৯ উইকেটে ১৮১ রানে। ১৮ রানে জিতল লখনউ।  

লখনউ সুপার জায়ান্টসের এই বিশাল রানের পিছনে রয়েছ লোকেশ রাহুলের চওড়া ব্যাট। ওপেন করতে নেমে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে যান তিনি। ৬০ বলে ১০৩ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। লোকেশ রাহুলের ইনিংসে সাজানো ছিল ৯টি চার ও পাঁচটি ছক্কা। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধেই রাজস্থানের জস বাটলার সেঞ্চুরি করেছিলেন। এদিন করলেন লোকেশ রাহুল। শতরান উদযাপন করলেন নিজের স্টাইলে। ব্যাট মাটিতে শুয়ে রেখে কানে আঙুল দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেল লোকেশ রাহুলকে। সেঞ্চুরি করার পরে এভাবেই তিনি উদযাপন করেন। নিন্দুকদের তিনি বলতে চান, সমালোচনায় কান দেওয়া চলবে না।

লোকেশ রাহুল শুরু থেকে সবার সঙ্গে পার্টনারশিপ করে গেলেন। ওপেন করতে নেমে কুইন্টন ডি ককের সঙ্গে ৫২ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। ডি কক ফেরেন ব্যক্তিগত ২৪ রানে। তার পরে মণীশ পাণ্ডের সঙ্গে জুটি বাঁধেন লোকেশ রাহুল। দলের রান যখন ১২৪, তখন ফেরেন মণীশ পাণ্ডে (৩৮)। স্টয়নিস (১০) ও দীপক হুডা (১৫) কিছু করতে না পারলেও ১৯৯ রানে পৌঁছতে সমস্যা হয়নি লখনউ সুপার জায়ান্টসের। লোকেশ রাহুল একাই মুম্বই বোলারদের ছিন্নভিন্ন করেন। 

[আরও পড়ুন: Harbhajan Singh: নিজের জন্য নয়, সাংসদ পদের বেতন এই বিশেষ কাজেই ব্যবহার করবেন হরভজন]

জবাবে ব্যাট করতে নেমে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের শুরুটা ভাল হয়নি। রোহিত শর্মা (৬) বিপজ্জনক হওয়ার আগেই ফিরে যান ডাগ আউটে। মুম্বইয়ের রান তখন মাত্র ১৬। ব্রেভিস মাত্র ১৩ বলে ৩১ রান করেন। ব্রেভিস মুম্বইয়ের ইনিংসে গতি আনেন। ব্রেভিস ফেরার কিছুক্ষণের মধ্যেই ফেরেন ঈশান কিষান (১৩)। এর পরে ইনিংস গোছানোর কাজ করেন সূর্যকুমার যাদব ও তিলক ভার্মা। ব্যক্তিগত ২৬ রানে ফেরেন তিলক। সূর্যকুমার যাদব ক্রাইসিস ম্যান। তিনি কিছুটা লড়লেন। ব্যক্তিগত ৩৭ রানে ফেরেন তিনি। শেষের দিকে পোলার্ড (২৫) ও জয়দেব উনাদকড় (১৪) মারমুখী ইনিংস খেললেও শেষ হাসি তোলা ছিল লখনউয়ের জন্য। 

[আরও পড়ুন: নিয়ন্ত্রণে করোনা, আইপিএলের গ্ল্যামার বাড়াতে ফিরতে চলেছে সমাপ্তি অনুষ্ঠান]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে