BREAKING NEWS

১১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  সোমবার ২৫ মে ২০২০ 

Advertisement

‘আইপিএলের চুক্তির জন্য ভারতীয় ক্রিকেটারদের ভয় পান বিদেশিরা’, বিস্ফোরক মাইকেল ক্লার্ক

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 7, 2020 12:15 pm|    Updated: April 7, 2020 12:15 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইপিএলের জন্য ভারতীয় ক্রিকেটের অভূতপূর্ব উন্নতি হয়েছে। বিশেষজ্ঞদের একটা বড় অংশ এমনটাই মনে করেন। বাস্তবিকই, গত এক দশক ধরে ভারতীয় ক্রিকেটে অন্তত প্রতিভার ঘাটতি পড়েনি কখনও। এত গেল প্রত্যক্ষ সুবিধা। অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক (Michael Clarke) মনে করছেন, আইপিএলের জন্য পরোক্ষেও সুবিধা পাচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট। গোটা বিশ্বের ক্রিকেটাররা আইপিএলে (IPL) নিজেদের চুক্তি বাঁচানোর জন্য নরম মনোভাব দেখান ভারতীয় ক্রিকেটারদের প্রতি।

FF

অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বজয়ী অধিনায়কের দাবি, “সকলেই জানে ক্রিকেটের আর্থিক দিক থেকে দেখতে গেলে ভারত কতটা শক্তিশালী। সেটা আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেই হোক, আর ঘরোয়া স্তরেই হোক। আমার মনে হয়, গত কয়েক বছর ধরে বিশ্বের সবকটি দেশের ক্রিকেটাররা, বিশেষ করে অস্ট্রেলিয়া নিজেদের স্বভাবের বিরুদ্ধে গিয়েছে। ভারতকে তাঁরা সমঝে চলছে। কেউ কোহলি (Virat Kohli) বা অন্য ভারতীয় ক্রিকেটারদের স্লেজিং করতে সাহস করছে না। কারণ সবাই জানে এপ্রিল মাসে ওই ভারতীয়দের সঙ্গেই খেলতে হবে।” 

[আরও পড়ুন: ‘নিজেকে জেলবন্দি মনে হচ্ছে’, লকডাউনে মন ভাল নেই বাংলাদেশের ক্রিকেটার লিটন দাসের]

ক্লার্ক বলছেন, ভারতের প্রথম সারির বেশ কয়েকজন তারকা আইপিএলের দলগুলির অধিনায়ক। তাই, অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা ওদের স্লেজিং করেন না। তিনি বলছেন,”আপনি যে কোনও দশজন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারকে দেখুন। আইপিএলে ওদের জন্য প্রচুর টাকা নিলাম হয়। ওঁরা ভাবে আমি কোহলিকে স্লেজিং করব না। তাহলে আমাকে ব্যাঙ্গালোর দলে নিয়ে নেবে। মাত্র ৬ সপ্তাহে আমার ১ লক্ষ মার্কিন ডলার রোজগার হবে।” ক্লার্কের মতে, ঠিক এই কারণেই অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা তাঁদের আগ্রাসী মনোভাব হারিয়ে ফেলছেন। তাঁদের জয়ের জেদটাও কমে যাচ্ছে।

ক্লার্কের যুক্তি অদ্ভুদ মনে হলেও বাস্তবের মাটিতে যে এর ভিত্তি আছে, তা অস্বীকার করার জায়গা নেই। আইপিএলে খেলার দরুন ওয়ার্নার-ম্যাক্সওয়েলদের সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেটারদের সম্পর্ক এখন বন্ধুত্বপূর্ণ। অন্তত আগের মতো ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের সাপে-নেউলে সম্পর্ক আর নেই।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement