৬ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২০ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo ফিরে দেখা ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৬ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২০ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইপিএলের আগামী দুই মরশুমে আটের জায়গায় দেখা যেতে পারে দশটি দলকে। সম্প্রতি এমন খবর উঠেছিল শিরোনামে। কিন্তু এবার বিসিসিআইয়ের তরফে জানা গেল, দশ নয়, আসন্ন আইপিএল হতে পারে ন’টি দল নিয়ে।

দলবদলের মরশুমে নানা চমক দিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি। ফর্মে থাকা ক্রিস লিনকে ছেড়ে দিয়ে অবাক করেছে কেকেআর। আবার দিল্লি ক্যাপিটালস তুলে নিয়েছে অজিঙ্ক রাহানে-রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে। সবমিলিয়ে ডিসেম্বরে নিলামে কী হয়, সেদিকে নজর প্রত্যেকের। কিন্তু এরই মধ্যে জানা গেল, ন’টি দল নিয়ে টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে চায় বিসিসিআই। কেন এমন ভাবনা? কারণ প্রত্যেক দেশের ক্রিকেটারদেরই আন্তর্জাতিক ম্যাচের ক্রীড়াসূচি ঠাসা। ফলে দশটি দল খেললে ৯০-এর বেশি ম্যাচ হবে। সেক্ষেত্রে গোটা বিষয়টা বেশ সময়সাপেক্ষ। তবে ন’টি দল নিয়ে টুর্নামেন্ট হলে ম্যাচের সংখ্যা কমে হবে ৭৬। শোনা যাচ্ছে, আমেদাবাদ থেকে নতুন একটি ফ্র্যাঞ্চাইজিকে নেওয়া হতে পারে। একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, বিসিসিআই জানিয়েছে, এখন একটি ফ্র্যাঞ্চাইজিকে টুর্নামেন্টে প্রবেশের সুযোগ দিলে নিঃসন্দেহে তা আকর্ষণীয় হবে।

[আরও পড়ুন: গোলাপি টেস্টের প্রথম দিন দুরন্ত ছন্দে ভারত, নয়া রেকর্ডের মালিক কোহলি-ঋদ্ধি]

এও শোনা যাচ্ছে, নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজির জন্য অন্তত ২০০০ কোটি টাকা বেঁধে দেওয়ার কথা ভাবছে বিসিসিআই। তবে কোনও এক লগ্নিকারীর এই অর্থ দেওয়া সম্ভব হবে, নাকি কারও সঙ্গে হাত মিলিয়ে নতুন দল আনা হবে, সে নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা রয়েছে। তবে আমেদাবাদ থেকে দল তৈরি হওয়ার পাল্লাই ভারী। কারণ এক লক্ষ দশ হাজার আসন বিশিষ্ট সর্দার পাতিল স্টেডিয়াম তৈরি হয়েছে সেই শহরেই। অথচ আইপিএলের মতো বিশ্বখ্যাত টুর্নামেন্টে গুজরাত থাকবে না, সেখানে কোনও ম্যাচের আয়োজন হবে না, সেটিও ভাববার বিষয়।    

আগামী ১ ডিসেম্বর বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ বৈঠকে এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। এই ভাবনাতে সিলমোহর পড়লে ২০২২ সাল পর্যন্ত হয়তো ন’টি দলকেই আইপিএল খেলতে দেখা যাবে।    

[আরও পড়ুন: ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে নেতৃত্বে ফিরছেন বিরাট]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং