১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ম্যাকয়ের তাণ্ডবে ভেঙে পড়ল ভারত, সিরিজে সমতা ফেরাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

Published by: Krishanu Mazumder |    Posted: August 2, 2022 9:31 am|    Updated: August 2, 2022 11:21 am

Obed Mccoy destroys India in 2nd T-20 | Sangbad Pratidin

ভারত: ১৩৮/১০ (হার্দিক- ৩১, জাদেজা- ২৭, ম্যাকয়- ৬-১৭)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ১৪১/৫ (কিং ৬৮, থমাস ৩১*)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫ উইকেটে জয়ী। 
সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কম রানের পুঁজি নিয়ে খেলতে নেমেছিল ভারত (Indian Cricket Team)। অল্প রান হাতে থাকলেও দু’ দলের লড়াই হয় তীব্র। ম্যাচের ফয়সলা হল গিয়ে শেষ ওভারে।

ভারতের রান তাড়া করতে নেমে একসময়ে চাপ অনুভব করতে শুরু করে দিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ (West Indies)। কিন্তু শেষপর্যন্ত স্নায়ুর পরীক্ষায় পাশ করে ক্যারিবিয়ানরা। ভারতকে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-১ সমতা ফিরিয়ে আনল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ব্র্যান্ডন কিং (Brandon King) ৫২ বলে ৬৮ রান করেন। তাঁর ইনিংস ওয়েস্ট ইন্ডিজকে শক্ত ভিতের উপরে দাঁড় করিয়ে দেয়। ডেভন থমাস ১৯ বলে ৩১ রান করে অপরাজিত থেকে যান। তিনিই জয় এনে দেন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। শেষ ওভারে ১০ রান দরকার ছিল ক্যারিবিয়ানদের। শেষ ওভারের প্রথম বলটাই ছিল নো বল। ফ্রি হিটে থমাস ছক্কা হাঁকান। তার পরেই বাউন্ডারি মেরে ম্যাচ জিতিয়ে দেন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে।
ম্যাচ শুরু হওয়ার কথা ছিল ভারতীয় সময় রাত আটটায়। কিন্তু কিন্তু তা পিছিয়ে রাত ১০টায় শুরু হয়। কারণ দলের কিছু গুরুত্বপূর্ণ লাগেজ ত্রিনিদাদ থেকে সেন্ট কিটসে আসতে দেরি হয়।

[আরও পড়ুন: হাওড়ার দরজি থেকে কমনওয়েলথে সোনার পদক, অচিন্ত্যর যাত্রাকে কুর্নিশ শচীনের]

ভারতের ব্যাটিং মেরুদণ্ড ভেঙে দেন ওবেদ ম্যাকয়। চার ওভার হাত ঘুরিয়ে ৬ উইকেট নেন তিনি। রান দেন মাত্র ১৭। তাঁর দাপটেই ভারতীয় ব্যাটিং তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে। ভারত ১৩৮ রান তুলে সমর্থ হয়। ভারতীয়দের মধ্যে হার্দিক পান্ডিয়া সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন। অধিনায়ক রোহিত শর্মা খাতা খুলতে পারেননি। কোনও ব্যাটসম্যানই সেভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারেননি। নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট পড়েছে।
ভারতীয়রা কম রান করলেও ম্যাচ জিততে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে রীতিমতো ঘাম ঝরাতে হয়। জেতার জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজকে অপেক্ষা করে থাকতে হয় শেষ ওভার পর্যন্ত। ব্র্যান্ডন কিং এবং শেষের দিকে ডেভন থমাস ছাড়া বাকিরা রান পাননি।

ব্র্যান্ডন কিং ফেরার পরে কিছুটা হলেও ঠকঠকানি ধরে গিয়েছিল ক্যারিবিয়ান শিবিরে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান যখন ১০৭, তখন আবেশ খানের বল বুঝতে না পেরে ফিরে যান তিনি। যে কোনও সেট ব্যাটসম্যান ফিরে গেলে রান তোলার গতি মন্থর হয়ে যায়। এক্ষেত্রেও তাই হয়। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে চাপে রাখার কাজ করছিলেন হার্দিক এবং অর্শদীপ সিংহ।

কিন্তু শেষ ওভার করার জন্য আবেশ খানের হাতে বল তুলে দেওয়া হয়। প্রথম বলটিই নো বল করায় পরের বলটি ফ্রি হিট পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ছক্কা ও চার মেরে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ম্যাচ জেতান টমাস।

[আরও পড়ুন: ১১ বছর বয়সে পিতৃহারা, জরির কাজ করে চলত সংসার, কঠিন পথ পেরিয়ে ইতিহাসের পাতায় অচিন্ত্য]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে