BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

অন্তর্দ্বন্দ্বে জর্জরিত টিম ইন্ডিয়া! বিরাট-রোহিতের ঠান্ডা যুদ্ধই বিশ্বকাপে হারের কারণ?

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 13, 2019 12:36 pm|    Updated: July 13, 2019 12:36 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেঁচো খুঁড়তে কেউটে! বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের হারের কারণ খুঁজতে গিয়ে প্রকাশ্যে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, এই মুহূর্তে দুই শিবিরে বিভক্ত টিম ইন্ডিয়া। একটি শিবিরে অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং কোচ রবি শাস্ত্রী। অন্য শিবিরে সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন বিদ্রোহী ক্রিকেটাররা। কোহলি-শাস্ত্রী জুটির বিরুদ্ধে অভিযোগ তাঁরা দলে একাধিপত্য চালাচ্ছেন। কোনও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে অন্য কারও সঙ্গে আলোচনা করা হচ্ছে না। এমনকী সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মাও সেই সিদ্ধান্তের কথা জানতে পারছেন না। সেই সব ক্রিকেটারই দলে সুযোগ পাচ্ছেন, যারা কোহলি-শাস্ত্রীর ‘গুড বুকে’ আছেন। বা কোহলি-শাস্ত্রীকে তৈলমর্দন করে চলেন।

[আরও পড়ুন: হারের কারণ কী? দেশে ফিরলেই কোহলি-শাস্ত্রীর কাছে কৈফিয়ত চাইবে বোর্ড]

অনিল কুম্বলেকে কোচের পদ থেকে সরতে হয়েছিল কোহলির জন্যই, অন্তত সমালোচকদের তেমনটাই দাবি। কোহলিই নাকি শাস্ত্রীকে চেয়েছিলেন কোচ হিসেবে, তাই কার্যত বাধ্য হয়ে বিসিসিআইয়ের উপদেষ্টামণ্ডলী শাস্ত্রীকে বেছে নেন। তারপর থেকেই নাকি দলে একাধিপত্য দেখাচ্ছে শাস্ত্রী-কোহলি জুটি। এমন কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে, যা বাকি দলের পছন্দ নয়। অথচ, বিদ্রোহী ক্রিকেটারদের পাত্তাই দেওয়া হচ্ছে না। সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে নাম জানাতে অনিচ্ছুক টিম ইন্ডিয়ার এক তারকা এমনটাই জানিয়েছেন। কোহলির দলে এই অবাধ দাপটের পিছনে হাত রয়েছে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশিত প্রশাসক প্যানেলের প্রধান বিনোদ রাইয়ের। তিনি কোহলির অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ হওয়ার জেরে বিরাট টিমে কার্যত ‘ফ্রি হ্যান্ড’ পেয়ে গিয়েছেন। যা একেবারেই পছন্দ নয় অধিকাংশ ক্রিকেটারের। এর জেরেই তৈরি হয়েছে দ্বন্দ্ব।

[আরও পড়ুন: বোর্ডে ফের শ্রীনিবাসনের থাবা! এখনই চাকরি যাচ্ছে না শাস্ত্রীর]

নাম জানাতে অনিচ্ছুক ওই ক্রিকেটার স্পষ্টই জানিয়েছেন, টিম ইন্ডিয়ায় এখন দুটি দল। একটা দল বিরাটের ঘনিষ্ঠদের। অন্য দলটি, রোহিতের অনুগামীদের। দলে রায়ডু, রাহানেদের সুযোগ না পাওয়ার পিছনে এটাই কারণ বলে মনে করছেন অনেকে। জসপ্রিত বুমরাহও নাকি কোহলিদের গুড বুকে নেই। তবে, নেহাতই দুর্দান্ত পারফর্ম্যান্সের দরুন তাঁকে দল থেকে বাদ দেওয়া যাচ্ছে না। দুই শিবিরের মধ্যে একটি ঠান্ডা লড়াই চলছে। বিরাট-রোহিতের মধ্যে অদৃশ্য একটি লড়াই নিয়ে গুঞ্জন অবশ্য নতুন কিছু নয়। এর আগে সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে বিরাটকে আনফলো করে শিরোনামে এসেছিলেন রোহিত। যদিও, এসবই নেহাত জল্পনা। হাতেগরম প্রমাণ কিছু নেই। প্রকাশ্যে কোহলি-রোহিতের মধ্যে রসায়ন কিন্তু দেখার মতো। খেলার মাঠে অন্তত অভিন্ন-হৃদয় বন্ধুর মতোই আচরণ করেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement