৩০ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

গৌতম ভট্টাচার্য, লন্ডন: ওয়ার্ম আপ ম্যাচ এত একপেশে ভাবে হেরে যাওয়ার হ্যাংওভার? নাকি মিডিয়ার সামনে প্লেয়ারদের খুল্লামখুল্লা যেতে না দেওয়া? যেটাই কারণ হোক, ওভালে এ দিন ম্যাচ শেষে আইসিসি-র বাধ্যতামূলক ওপেন মিডিয়া সেশন বয়কট করল ভারত। বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ইতিহাসে এই প্রথম প্র্যাকটিস ম্যাচের পর ওপেন মিডিয়া সেশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যার লক্ষ্য, ক্রিকেটারদের কথা বলতে দিয়ে খেলাটার আরও প্রচার। তাই প্রেস কনফারেন্স রুমের মধ্যেই একটা আলাদা সেট তৈরি হয়েছে। যাকে বলা হচ্ছে মিক্সড জোন। টিমের তিন থেকে চারজন ক্রিকেটারের এখানেই এসে মিনিট পনেরো মিডিয়ার লোকেদের মুখোমুখি কথা বলার কথা। যেমন এ দিন এসেছিল নিউজিল্যান্ড তাদের তিন তারকা রস টেলর, ট্রেন্ট বোল্ট আর কলিন মুনরোকে নিয়ে। বারবার অনুরোধ সত্ত্বেও ভারত সেখানে অনুপস্থিত থাকল।

বিশ্বকাপ ফুটবলের মিক্সড জোন মডেলে ক্রিকেটের এ বার প্রথম এই ব্যবস্থা। নামটাও রাখা হয়েছে এক- মিক্সড জোন। তফাতের মধ্যে ফুটবলে মিক্সড জোনের জন্য আলাদা পাস সংগ্রহ করতে হয়। বেশিরভাগ সময় সাংবাদিকদের বেছে নিতে হয় কোন পাসটা নেবেন? মিডিয়া কনফারেন্সের? না মিক্সড জোনের? আর এখানে প্রেস কনফারেন্সের পাসেই মিক্সড জোন কভার করা যাবে। বিশ্বকাপ ফুটবলে গোটা টুর্নামেন্ট জুড়ে চলে মিক্সড জোন ইন্টারভিউজ। প্লেয়াররা বাসে ওঠার আগে এই মিক্সড জোনে আসতে বাধ্য। এমনকী মেসি-রোনাল্ডোকেও দাঁড়াতে হয়। এখানেও আইসিসি টুর্নামেন্ট জুড়ে মিক্সড জোন চালাতে চায়। প্রশ্ন হল তাদের উচ্চাকাঙ্খা সফল হবে তো?

[আরও পড়ুন: ক্রিকেট বিশ্বকাপ দেখতে ইংল্যান্ডে যাচ্ছেন দুই লক্ষ ভারতীয়]

টিম ইন্ডিয়া যেমন এ দিন দেখাল আইসিসির তারা পরোয়াই করে না! পরিষ্কার তাচ্ছিল্য দেখিয়ে এ দিন মিক্সড জোনে এল না এবং আইসিসির নিজের টুর্নামেন্টে আইসিসিকে ‘না’ বলে দিল। আইসিসি-র মুখপাত্র খেলার পর সংবাদমহলকে ডেকে এনেছিলেন মিক্সড জোনে। বললেন, ভারত আসছে। একটু পরে খবর দিলেন, ওরা আসতে চাইছে না কিন্তু আমরা বলেছি এটা তো নিয়ম। মানতে হবে। সাংবাদিকেরা তাই দাঁড়িয়ে রইলেন পরবর্তী ঘটনাক্রম কী হয়? এর মিনিট দশেক বাদে আইসিসি মিডিয়ার পক্ষ থেকে সরকারি ভাবে বলা হল, ওরা আসতে অস্বীকার করেছে। এটা খুব দুঃখজনক এবং অনভিপ্রেতও। আমরা দেখব পরের দিন যাতে এর পুনরাবৃত্তি না হয়। পরের দিন মানে ২৮ মে বাংলাদেশ ম্যাচের পরে।

ভারতীয় সাংবাদিকেরা তাদের মতো আশাবাদী নন। তাঁরা জানেন বিশ্ব ক্রিকেটে আইসিসি ভারতের মুখাপেক্ষী এটাই সত্যি। উলটোটা নয়! রবি শাস্ত্রীকে যোগাযোগ করা হলে খেলার পর জানালেন, ওপেন মিডিয়া সেশনের ব্যাপারটা তিনি অন্তত কিছু জানেন না। আর জাদেজাকে তো টিম পাঠিয়েছিল। বলা হল ওপেন মিডিয়া সেশন মানে একের বেশি ক্রিকেটার। শাস্ত্রী জানালেন তাঁর কোনও ধারণা নেই।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং