BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে খেলতে মরিয়া ভারত, প্রয়োজনে ১৪দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন কোহলিরা!

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 8, 2020 4:24 pm|    Updated: May 9, 2020 11:55 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত মার্চে দক্ষিণ আফ্রিকা এসেছিল ভারত সফরে। যদিও করোনার কোপে সে সিরিজ শেষমেশ বাতিল হয়ে যায়। ব্যস, তারপর থেকে গৃহবন্দি ক্রিকেটাররা। মারণ ভাইরাসের জেরে স্তব্ধ খেলার দুনিয়া। স্বাভাবিকভাবেই যতদিন যাচ্ছে, বাইশ গজে ফেরার জন্য যেন ছটফট করছেন তারকারা। তাই তো ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (BCCI) মনে প্রাণে চায়, চলতি বছর ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ হোক নির্ধারিত সূচিতেই। প্রয়োজনে
অস্ট্রেলিয়া সফরে গিয়ে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন বিরাট কোহলিরা।

এ বছর অক্টোবরে ব্র্যাডম্যানের দেশে টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে সফর শুরু করার কথা টিম ইন্ডিয়ার। ডিসেম্বরে রয়েছে টেস্ট সিরিজ। কিন্তু নির্ধারিত সূচিতে আদৌ খেলা যাবে কি না, তা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। কারণ সেই করোনা মহামারি। ততদিনেও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে নাকি সেই সময়ও কোহলিদের বিদেশ সফরের উপর বিধিনিষেধ জারি থাকবে, সে উত্তর এখনও অজানা। তবে শোনা যাচ্ছে, বিসিসিআই নাকি এই সিরিজের জন্য মরিয়া। তেমন হলে ক্রিকেটারদের আইসোলেশনে রাখতেও রাজি বোর্ড। একটি অজি সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, বিসিসিআইয়ের কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমল বলেনেছন, “ক্রিকেটকে ফেরানোটাই মূল লক্ষ্য। কোয়ারেন্টাইনে থাকা ছাড়া তো অন্য কোনও উপায় নেই। দু’টো সপ্তাহ এমন কিছু দীর্ঘ লকডাউন নয়। এতদিন গৃহবন্দি থাকার পর অন্য একটা দেশে গিয়ে দুটো সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে থাকা যে কোনও ক্রীড়াবিদের জন্যই ভাল হবে। পরিস্থিতি বুঝেই সবটা ঠিক করা হবে।”

[আরও পড়ুন: ক্রিকেটারদের বুঝতে টিম ইন্ডিয়ায় রাখা হোক মনোবিদ, মন্তব্য ধোনির]

সম্প্রতি অজি অধিনায়ক টিম পেইন ক্রিকেটের অনিশ্চয়তা নিয়ে নিজের উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন। জানিয়েছিলেন, ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজ না হলে বিরাট ক্ষতির মুখে পড়বে অজি ক্রিকেট বোর্ড। একমাত্র টিম ইন্ডিয়াই পারে অস্ট্রেলিয়াকে এই আর্থিক ক্ষতি থেকে বাঁচাতে। এবার জানা গেল, সেই দেশের বোর্ডের মতোই বিসিসিআইও ক্রিকেটীয় কার্যকলাপ শুরুর অপেক্ষায় প্রহর গুনছে।

বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ আরও বলেন, “যখন নিশ্চিতভাবে জানতে পারব যে কবে থেকে ক্রিকেট ফের শুরু করা যাবে, তারপরই এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তাছাড়া সিরিজে ম্যাচের সংখ্যাতে কোনও বদল হবে কি না, তাও ঠিক হবে।” তবে শোনা যাচ্ছে, করোনা পরবর্তী সময়ে সীমিত ওভারের ম্যাচেই বেশি জোর দিতে চাইছে ভারতীয় বোর্ড।

[আরও পড়ুন: ‘এ দৃশ্য সহ্য করা যায় না’, ভাইজ্যাগ গ্যাস দুর্ঘটনায় মর্মাহত বিরাট-সানিয়ারা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement