BREAKING NEWS

২৫ বৈশাখ  ১৪২৮  রবিবার ৯ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বার্ষিক চুক্তির তালিকা প্রকাশ বোর্ডের, কত টাকা পাবেন বিরাট-রোহিতরা?

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: April 16, 2021 10:28 am|    Updated: April 16, 2021 10:28 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশের মাটিতে ফিরেছে আইপিএল (IPL)। ক্রিকেটাররা ব্যস্ত টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট খেলতে। এই পরিস্থিতিতে ক্রিকেটারদের সঙ্গে বার্ষিক চুক্তির তালিকা প্রকাশ করল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (BCCI)। এবার মোট ২৮ জন ক্রিকেটারকে বার্ষিক চুক্তির আওতায় রাখা হয়েছে। চারটে গ্রেডে ভাগ করা হয়েছে। আর গ্রেডেশনে উন্নতি হল হার্দিক পাণ্ডিয়ার (Hardik Pandya)। ভারতীয় এই অলরাউন্ডার এ গ্রেডে চলে এসেছেন।

বোর্ডের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, সর্বোচ্চ গ্রেড অর্থাৎ এ প্লাসে রয়েছেন তিনজন। এরা হলেন— ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি (Virat Kohli), সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মা (Rohit Sharma) এবং জসপ্রীত বুমরা (Jasprit Bumrah)। বিরাট-রোহিতরা বছরে পাবেন মোট সাত কোটি টাকা। এরপর গ্রেড এ—তে রয়েছেন দশজন খেলোয়াড়। ভারতের টেস্ট অধিনায়ক আজিঙ্ক রাহানে তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন। এছাড়া ওই তালিকায় রয়েছেন- শিখর ধাওয়ান, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, রবীন্দ্র জাদেজা, চেতেশ্বর পূজারা, ইশান্ত শর্মা, ঋষভ পন্থ, কেএল রাহুল, হার্দিক পাণ্ডিয়া এবং মহম্মদ সামি। এঁরা প্রত্যেকে পাবেন বছরে পাঁচ কোটি টাকা করে। ভাল পারফরম্যান্সের জন্যই হার্দিকের উন্নতি হয়েছে। তিনি আগে গ্রেড বি’তে ছিলেন।

[আরও পড়ুন: এবার কেকেআরেও ফিক্সিংয়ের ছায়া! ৮ বছরের জন্য নির্বাসিত নাইটদের প্রাক্তন বোলিং কোচ]

অন্যদিকে, বর্তমানে গ্রেড বি’তে রয়েছেন পাঁচজন। ভুবনেশ্বর কুমার যেমন এ গ্রেড থেকে বি’তে গিয়েছেন। তেমনই বি’তে রয়েছেন বাংলার আরেক ক্রিকেটার ঋদ্ধিমান সাহা। এছাড়াও রয়েছেন- উমেশ যাদব, শার্দূল ঠাকুর এবং মায়াঙ্ক আগরওয়াল। এঁরা বছরে পাবেন তিন কোটি। খারাপ ফর্মের জন্য আবার গ্রেড সি’তে নেমে গিয়েছেন কুলদীপ যাদব। এই গ্রুপে যুজবেন্দ্র চাহাল, নভদীপ সাইনিরাও। এই গ্রুপের ক্রিকেটাররা পাবেন এক কোটি। তবে বার্ষিক চুক্তির আওতা থেকে বাদ পড়েছেন মনীশ পাণ্ডে এবং কেদার যাদব। এদিকে, আরও কিছুটা হলেও স্বস্তি পেলেন BCCI সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly) এবং সচিব জয় শাহ। কারণ দুই শীর্ষকর্তার ‘কুলিং অফ’ আটকাতে সুপ্রিম কোর্টে দায়ের করা বোর্ডের আবেদনের শুনানি পিছিয়ে গেল আরও দু’সপ্তাহ। বৃহস্পতিবার শুনানি হওয়ার কথা থাকলেও শুরুতেই বিচারপতি জানিয়ে দেন, আরও দু’সপ্তাহ পর এই মামলার শুনানি হবে।

[আরও পড়ুন: শচীনের হাসপাতালে ভরতি হওয়া উচিত হয়নি, বিতর্কিত মন্তব্য মহারাষ্ট্রের মন্ত্রীর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement