৮ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ২৬ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বজয়ী দলের সদস্য ছিলেন। তবে ফুটবল সম্রাট পেলের শট বাঁচিয়ে প্রবাদপ্রতিম হয়ে ওঠেছিলেন তিনি। প্রয়াত ইংল্যান্ডের কিংবদন্তী গোলকিপার গর্ডন ব্যাংকস। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮১ বছর। শোকের ছায়া আন্তর্জাতিক ফুটবলমহলে।

[ এবার বড়পর্দায় কিংবদন্তি চুনী গোস্বামীর চরিত্রে রহিম নবি]

ছয়ের দশকে ইংল্যান্ডের জার্সিতে আর্ন্তজাতিক ফুটবলে যখন অভিষেক হয় তাঁর, তখন স্বয়ং ফুটবল সম্রাট পেলে মধ্যগগনে। ১৯৬৬ সালে বিশ্বকাপের আসর বসেছিল ইংল্যান্ডে। বিশ্বকাপের প্রতিটি ম্যাচেই ব্রিটিশ দুর্গের শেষ প্রহরী ছিলেন গর্ডন ব্যাংকস। সেবার ঘরের মাঠে বিশ্বসেরা হয়েছিলেন ইংরেজরাই। পেলেকে কৌশলে আটকে দিয়েছিলেন ইংল্যান্ডের ডিফেন্ডাররা। জীবনের প্রথম বিশ্বকাপেই চ্যাম্পিয়ন দলের সদস্য হওয়ার স্বাদ পান গর্ডন ব্যাংকস। সত্তরের বিশ্বকাপেও খেলেছিলেন তিনি। ব্রাজিল ম্যাচে গোল পোস্টের একদিক থেকে অন্যদিকে উড়ে গিয়ে পেলের ‘নিশ্চিত গোল’ বাঁচিয়ে দিয়েছিলেন। এরপরই রাতারাতি বিখ্যাত হয়ে যান ইংল্যান্ডের গোলকিপার। বলা ভাল, কিংবদন্তী হয়ে ওঠেন তিনি।

Gordon Banks

১৯৬৩ থেকে ১৯৭২ পর্যন্ত ইংল্যান্ডের হয়ে ৭৩টি ম্যাচ খেলেছেন। জাতীয় দলে অভিষেকের মাত্র তিন বছরের পর, ১৯৬৬ সালে ইংল্যান্ডের হয়ে বিশ্বকাপ জেতেন এই কিংবদন্তী গোলকিপার। ১৯৬৬ থেকে ১৯৭১ সাল পর্যন্ত পরপর ছয়বার ফিফার বিচার বর্ষসেরা গোলকিপার নির্বাচিত হন ব্যাংকস। সাতের দশকের গোড়ার দিকে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর নেন তিনি।  ইংল্যান্ডের সময় সোমবার মধ্যরাতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বকালের অন্যতম সেরা গোলকিপার।  ফুটবল জীবনে টানা ৬ বছরের খেলেছেন স্টোক সিটি ক্লাবে। পরিবারের তরফে বিবৃতি দিয়ে গর্ডন ব্যাংকসের মৃত্যসংবাদ জানিয়েছে সেই ক্লাবই।

[ ফের খেলার মাঠে অসুস্থ হয়ে তরুণ ফুটবলারের মৃত্যু়

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং