BREAKING NEWS

৭ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সমর্থকদের কটাক্ষের শিকার, ২৩ বছর বয়সেই অবসর ঘোষণা ‘ইরানিয়ান মেসি’র

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 29, 2018 7:15 pm|    Updated: June 29, 2018 7:15 pm

Football World Cup: Insulted 'Iranian Messi' Sardar Azmoun retires

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্পেনের কাছে হার আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর পর্তুগালের কাছে আটকে গিয়েই এবারের মতো বিশ্বকাপ সফর শেষ ইরানের। আর তারপরই ইরান সমর্থকদের তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে ফুটবলারদের। যে হতাশা সহ্য করতে পারলেন না সর্দার আজমৌন। তাই জীবনের সবচেয়ে বড় সিদ্ধান্তটা নিয়েই ফেললেন তিনি। চূড়ান্ত অপমানিত হওয়ার পর মাত্র ২৩ বছর বয়সেই অবসর ঘোষণা করলেন ‘ইরানিয়ান মেসি’।

২০১৫ ও ২০১৬, পরপর দু’বছর কোপা আমেরিকার ফাইনালে পৌঁছেও চিলির কাছে হারতে হয়েছিল মেসির আর্জেন্টিনাকে। দেশের জার্সি গায়ে ক্রমাগত ব্যর্থতার পর অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন এলএম টেন। কিন্তু ভক্তদের অনুরোধ ও দেশকে ট্রফি দেওয়ার লক্ষ্য নিয়েই অবসর ভেঙেছিলেন বার্সা তারকা। চলতি বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়ে ঠিক তেমনই হতাশ ‘ইরানিয়ান মেসি’ সর্দার। দেশের জন্য ধারাবাহিকভাবে ভাল পারফরম্যান্স করার পরও যে সমর্থকদের কাছে এভাবে হেনস্তার শিকার হতে হবে, তা স্বপ্নেও ভাবেননি তিনি। দলকে জেতানোর জন্য নিজের সেরাটাই দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন ইরানের স্ট্রাইকার। তাই বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্যায় থেকেই বিদায় নেওয়াটা যেন মেনে নিতে পারছেন না। তাই মাত্র ২৩ বছরেই দেশের জার্সি খুলে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললেন।

[বিশ্বকাপে কি মুখোমুখি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা? কতটা সম্ভাবনা মেসি-রোনাল্ডো দ্বৈরথের?]

ফুটবল স্কিল ও গোল করার দক্ষতার কারণেই ফুটবল বিশ্বে ‘ইরানিয়ান মেসি’ হিসেবে পরিচিত সর্দার। দেশের জার্সি গায়ে ইতিমধ্যেই যিনি ৪০-এরও কম ম্যাচ খেলে ২৩টি গোল করেছেন, সেই সর্দারের অবসর নেওয়া মানে যে ইরান দলের কাছে বড়সড় বিপর্যয়, তা বলাই বাহুল্য। বর্তমানে রাশিয়ান ক্লাব এফসি রুবিন কাজানে খেলেন তিনি। ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপেও ভাল ফর্মে দেখা গিয়েছিল এই সুঠাম চেহারার তারকাকে।

যোগ্যতা অর্জন পর্বে ১১টি গোল করলেও মূল পর্বে তাঁর নামের পাশে কোনও লেখা নেই। আর সেই কারণেই দেশের ফুটবল সমর্থকদের কড়া নিন্দার মুখে পড়তে হয় তাঁকে। সর্দার জানান, তাঁকে ক্রমাগত বাক্যবাণে বিদ্ধ হতে দেখে অসুস্থ হয়ে পড়েন তাঁর মা। সেই কারণেই অবসরের সিদ্ধান্ত। তবে এত বড় সিদ্ধান্ত নেওয়াটা নেহাত সহজ ছিল না। সর্দার বলছেন, “আমাকে এবং আমার সতীর্থদের যে ভাষায় আক্রমণ করেছে ইরানের সমর্থকরা, তা কিছুতেই মেনে নেওয়া যায় না। এসব খবর শুনে আমার মা গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। এমন অবস্থায় যে কোনও একদিক বেছে নিতে হত আমায়। আমি মাকে বেছে নিয়েছি।”

[পর্নস্টার নই, বিতর্কের মুখে বললেন বিশ্বকাপের ‘হটেস্ট’ ফ্যান]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে