৭ ভাদ্র  ১৪২৬  রবিবার ২৫ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ময়দানে হঠাৎই ফিরেছে আটের দশকের সোনালি সময়। ইস্টবেঙ্গলের হাত ধরে ফের নিজের অতি পরিচিত শহর কলকাতায় পা রেখেছেন ‘প্রিন্স চার্মিং’ মজিদ বাসকর। এককালের দেশ কাঁপানো সেন্টার ফরোয়ার্ডকে চাক্ষুস করে নস্ট্যালজিক হয়ে পড়েছে ফুটপ্রেমীদের হৃদয়। মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গল নির্বিশেষে কিংবদন্তিকে দেখতে উপচে পড়ছে ভিড়। আর তাঁর সেই ভক্তের তালিকায় রয়েছেন অভিনেতা মীরও। ইস্টবেঙ্গলের একসময়ের প্রাণ ভোমরাকে পাশে পেয়ে তিনি আপ্লুত। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই আবেগের বহিঃপ্রকাশও ঘটেছে ইতিমধ্যেই। সেই সঙ্গে লাল-হলুদ জার্সি গায়ে চাপিয়ে মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায়কেও যেন হালকা খোঁচা দিতে ছাড়লেন না কমেডিয়ান।

[আরও পড়ুন: ‘গোটা পাকিস্তান কাশ্মীরের পাশে আছে’, ৩৭০ ইস্যুতে মুখ খুললেন সরফরাজ আহমেদ]

ইস্টবেঙ্গলের শতবর্ষ পূর্তির দিনকয়েক আগে তথাগত রায়ের একটি মন্তব্য নিয়ে বিতর্কের ঝড় উঠেছিল শহরের ফুটবল ময়দানে। টুইটারে তিনি লিখেছিলেন, “ইস্টবেঙ্গল ক্লাব শতবর্ষের উৎসবে মেতে উঠেছে। কিন্তু এই ক্লাবের কর্তা বা কোনও সমর্থকদের মাথায় কি কখনও এসেছে, যে তারা পশ্চিমবঙ্গে বসে ইস্টবেঙ্গলকে কেন সমর্থন করছে?” এমন টুইটে নেটদুনিয়া সরগরম হয়ে উঠলে সপক্ষে যুক্তিও খাঁড়া করেছিলেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ। ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে ফের টুইট করেন, “ভাষার সমস্যা হতেই পারে-বিদেশি ভাষা তো! যদি আমি পাঁচ মিনিটের জন্য ঠান্ডা মাথায় ভাবি, ওয়েস্ট বেঙ্গলে থেকে কেন আমি ইস্টবেঙ্গল সমর্থক, তাহলেই সত্যটা বেরিয়ে আসবে। আমার বাড়ি ছিল পূর্ব বাংলায়, সেখানে আমার যাবার অধিকার নেই। আমার বক্তব্য, এই কথাটা যেন আমরা বাঙালরা কখনও ভুলে না যাই।” উদ্বাস্তুদের ক্ষোভের কথাই তুলে ধরার চেষ্টা করেছিলেন বলে দাবি তাঁর। মঙ্গলবার লাল-হলুদ জার্সি গায়ে নিজের ছবি পোস্ট করে পরোক্ষভাবে তথাগত রায়কেই খোঁচা দিলেন মীর।

মীর লেখেন, “আমি পশ্চিমবঙ্গের। আর এই জার্সি ইস্টবেঙ্গলের। এরপর মোহনবাগানের মানুষ কি আমায় ত্যাগ করবে?” এরাজ্যে থেকেই যে গর্বের সঙ্গে নিজের পছন্দের ক্লাবকে সমর্থন জানানো যায়, সেটাই যেন মজার ছলে, প্রকারান্তরে বুঝিয়ে দিলেন মীর। মঙ্গলবার কিংবদন্তি মজিদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে লাল-হলুদ জার্সি গায়ে সঞ্চালকের ভূমিকায় ছিলেন তিনি। জামসিদ নাসিরি এবং মজিদকে সামনে থেকে দেখে দারুণ খুশি অভিনেতা।

[আরও পড়ুন: মহামেডানে সংবর্ধিত ‘বাদশাহ’, সুব্রতকে দেখে আপ্লুত মজিদ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং