Advertisement
Advertisement
Igor Stimac

ভারতীয় ফুটবলে শেষ স্টিমাচ যুগ, ক্রোয়েশিয়ান কোচকে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত ফেডারেশনের

২০১৯ সালে স্টিমাচের হাতে উঠেছিল দলের রিমোট কন্ট্রোল।

AIFF has decided to sack Igor Stimac

ইগর স্টিমাচ।

Published by: Krishanu Mazumder
  • Posted:June 17, 2024 7:44 pm
  • Updated:June 17, 2024 8:21 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের জাতীয় দলের প্রশিক্ষক ইগর স্টিমাচকে বরখাস্তের রাস্তাতেই হাঁটল সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন। বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে ভারত তৃতীয় রাউন্ডে পৌঁছতে পারেনি। ভারতের ব্যর্থতার পরই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেডারেশন। 
বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে ভারতীয় হতাশাজনক পারফরম্যান্সের প্রেক্ষিতেই দেশের ফুটবল নিয়ামক সংস্থা স্টিমাচ-বিদায়ের পথে হাঁটল। সরকারি ভাবে এআইএফএফ-এর তরফে জানানো হয়, ”২০২৬ সালের ফিফা বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে ভারতের পারফরম্যান্স অত্যন্ত হতাশাজনক। সদস্যরা সর্বসম্মত ভাবে এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে যে নতুন হেডকোচই ভারতীয় দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবেন।” এআইএফএফ সচিবের সই সম্বলিত বরখাস্তপত্র পাঠানো হয়েছে স্টিমাচকে বলেই খবর। উল্লেখ্য, ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপে ব্রোঞ্জ মেডেল জয়ী ক্রোয়েশিয়া দলের সদস্য ছিলেন স্টিমাচ। ১৫ মে, ২০১৯ সালে তাঁর হাতেই উঠেছিল ভারতীয় ফুটবল দলের রিমোট কন্ট্রোল। স্টিফেন কনস্ট্যানটাইনের পরেই দায়িত্ব নিয়েছিলেন তিনি। 

[আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে চূড়ান্ত ব্যর্থ পাকিস্তান, জনরোষ থেকে বাঁচতে বাবররা যাচ্ছেন লন্ডন]

Advertisement

ফেডারেশনের সঙ্গে ইগর স্টিমাচের চুক্তি ছিল এরকম। মোট চার বছরকে দুটো ভাগে ভাগ করা হয়েছিল। প্রথম পর্বের চুক্তি ২০২৪ পর্যন্ত। চুক্তিতে লেখা ছিল, এই পর্বে ভারতীয় দলকে স্টিমাচ যদি বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের তৃতীয় রাউন্ডে নিয়ে যেতে পারেন, তাহলে আরও দু’বছরের চুক্তি বেড়ে তা হবে ২০২৬ পর্যন্ত। আর দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে যদি বিদায় হয় ভারতের, তাহলে পদত্যাগ ঘোষণা করতে হবে না স্টিমাচকে, চুক্তিমাফিকই তাঁর বিদায় ঘটবে। সেই মতোই স্টিমাচ অধ্যায় শেষ হয়ে গেল ভারতীয় ফুটবলে।
ক্রোয়েশিয়ান কোচ আগেই জানিয়েছিলেন, ভারত যদি তৃতীয় রাউন্ডে না পৌঁছয়, তাহলে তিনি পদত্যাগ করবেন। যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে কুয়েতের বিরুদ্ধে ম্যাচে গোলশূন্য ড্র করে ভারত। কাতারের বিরুদ্ধে ভারত এক গোলে এগিয়ে থেকেও শেষেমেশ ২-১ গোলে হার মানেন গুরপ্রীতরা। আর তার পরই বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের তৃতীয় রাউন্ডে যাওয়ার স্বপ্ন শেষ হয়ে যায়। ভারতের পরাজয়ের পরে পরিস্থিত যেদিকে গড়াচ্ছিল, তাতে স্টিমাচের চাকরি যে যাচ্ছেই, তা দিনের আলোর মতো পরিষ্কার হয়ে যায়। 
ভারতের কোচ হিসেবে বিতর্কেও জড়িয়েছেন তিনি। জ্যোতিষীর পরামর্শমতো দলগঠন করতেন তিনি বলে অভিযোগ উঠেছিল। বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচে  আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে ২-১ গোলে হার মেনেছিল স্টিমাচের ভারত। আবার অ্যাওয়ে ম্যাচে আফগানদের কাছেই ড্র করেছিল তাঁর দল। যুবভারতীতে সুনীল ছেত্রীর শেষ ম্যাচেও ভারত ও কুয়েতের ম্যাচ গোলশূন্যভাবে শেষ হয়। কাতারে গিয়ে রেফারির ভুল সিদ্ধান্তে ভারত হারায় বিশ্বকাপের তৃতীয় রাউন্ডে পৌঁছনোর আশা শেষ হয়ে যায় গুরপ্রীতদের। 
ভারতের কোচ হিসেবে বিতর্কেও জড়িয়েছেন তিনি। জ্যোতিষীর পরামর্শমতো দলগঠন করতেন তিনি বলে অভিযোগ উঠেছিল। বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচে  আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে ২-১ গোলে হার মেনেছিল স্টিমাচের ভারত। আবার অ্যাওয়ে ম্যাচে আফগানদের কাছেই ড্র করেছিল তাঁর দল। যুবভারতীতে সুনীল ছেত্রীর শেষ ম্যাচেও ভারত ও কুয়েতের ম্যাচ গোলশূন্যভাবে শেষ হয়। কাতারে গিয়ে রেফারির ভুল সিদ্ধান্তে ভারত হারায় বিশ্বকাপের তৃতীয় রাউন্ডে পৌঁছনোর আশা শেষ হয়ে যায় গুরপ্রীতদের। সেই মতোই স্টিমাচ অধ্যায় শেষ হয়ে গেল ক্রোয়েশিয়ান কোচের। 

Advertisement

[আরও পড়ুন: সুপার এইটেও রোহিতদের ভোগাবে বৃষ্টি! কেমন থাকতে পারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের আবহাওয়া?]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ