BREAKING NEWS

১৭ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  রবিবার ৩১ মে ২০২০ 

Advertisement

স্টেডিয়াম বদলে গেল হাসপাতালে, করোনা মোকাবিলায় বিশেষ উদ্যোগ ফুটবল ক্লাবগুলির

Published by: Sulaya Singha |    Posted: March 24, 2020 3:11 pm|    Updated: March 24, 2020 3:47 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বের সর্বত্র করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। ব্রাজিলও ব্যতিক্রম নয়। সোমবার পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ১৫০০-র বেশি। বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। এই কালান্তক করোনা ভাইরাসের মোকাবিলা করতে এগিয়ে এসেছে ব্রাজিলের ফুটবল ক্লাবগুলি। তাদের স্টেডিয়ামগুলি দেশের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের চিকিৎসার জন্য মাঠগুলি অস্থায়ী হাসপাতাল হিসাবে ব্যবহার করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো এই মুহূর্তে ব্রাজিলেও ফুটবল বন্ধ। পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত খেলা শুরু করা যাবে না। সাও পাওলো এবং রিও দি জেনেইরোর মতো ঘন জনবসতিপূর্ণ এলাকায় করোনা আক্রান্তদের উপযুক্ত চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন হাসপাতালের। সেই কারণে এমন সিদ্ধান্ত। বর্তমান দক্ষিণ আমেরিকান চ্যাম্পিয়ন ফ্ল্যামেঙ্গো জানিয়েছে, তাদের বিখ্যাত মারাকানা স্টেডিয়াম স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের চিকিৎসার জন্য। ব্রাজিলের বড় শহর সাও পাওলোর কর্তৃপক্ষ শহরের হাসপাতালগুলির উপর চাপ কমাতে পাচেম্বু পুর স্টেডিয়ামে ২০০ শয্যার অস্থায়ী হাসপাতাল গড়ে তুলছে।

[আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা খাতে ছ’মাসের বেতন দিলেন ভারতীয় কুস্তিগির বজরং পুনিয়া]

ব্রাজিলের দুই বড় ক্লাব কোরিন্থিয়ান্স ও স্যান্টোস একইরকম পদক্ষেপ করেছে। তারাও স্টেডিয়াম ছেড়ে দিয়েছে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য। তাদের সদর দপ্তরকে এই কাজে ব্যবহার করার অনুমতি দিয়েছে। স্যান্টোসের তরফে জানানো হয়েছে, ভিলা বেলমিরো স্টেডিয়ামের লাউঞ্জে একটি অস্থায়ী ক্লিনিক তৈরি করা হচ্ছে। 

ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী লুই এনরিকে ম্যানডেট্টা সম্প্রতি জানিয়েছেন, এপ্রিল-জুন নাগাদ করোনা ভাইরাসের প্রভাব সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছতে পারে। তাঁর আশঙ্কা, এই ভাইরাসের প্রকোপে অসংখ্য মানুষ আক্রান্ত হতে পারেন। তাই সবাইকে সাহায্যের হাতে বাড়িয়ে দিতে বলা হয়েছে। সেটাই পাওয়া গেল ক্লাবগুলির কাছ থেকে।

[আরও পড়ুন: কুলিং-অফ বাতিল করে বোর্ড প্রেসিডেন্ট রাখা হোক সৌরভকেই, মামলা সুপ্রিম কোর্টে!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement