BREAKING NEWS

৩ আষাঢ়  ১৪২৮  শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘অভিনন্দন জানানোর ভাষা নেই’, এটিকে-বাগান গাঁটছড়া প্রসঙ্গে মন্তব্য ইস্টবেঙ্গল কর্তার

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 11, 2020 12:45 pm|    Updated: July 11, 2020 1:37 pm

East Bengal welcomes Mohun Bagans move to join hands with ATK

স্টাফ রিপোর্টার: করোনায় মানুষ আতঙ্কিত। প্রত্যেকদিন রাজ্যে মানুষ প্রাণ হারাচ্ছেন। তবু এটিক-মোহনবাগান (ATK Mohun Bagan) সংযুক্তিকরণ নিয়ে সারা রাজ্যে হইচই পড়ে গিয়েছে। বিশেষ করে পালতোলা নৌকোর লোগো ও ঐতিহ্যবাহী সবুজ-মেরুন জার্সি অপরিবর্তিত থেকে যাওয়ায়। কিছুদিন ধরে শোনা যাচ্ছিল, জার্সির রং বদলে যেতে পারে। এমন কী ভিন রাজ্য কিংবা বিদেশে খেলতে গেলে সবুজ-মেরুন জার্সি নাকি এটিকে-মোহনবাগান ফুটবলারদের পরতে দেখা যাবে না। কিন্তু শুক্রবার ভিডিও কনফারেন্সে এটিকের কর্ণধার সঞ্জীব গোয়েঙ্কা বুঝিয়ে দিলেন, তাঁর কাছে আবেগ আর ঐতিহ্যের কদর অনেক বেশি। তাই তো ময়দান জুড়ে সকলেই আপ্লুত। এমন কী ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের কর্তারাও মনে করছেন, সত্যি এটা একটা ইতিহাস হয়ে রইল। মহামেডান কর্তারাও গাঁটছড়ার এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানালেন। 

দেবব্রত সরকার (ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য): অভিনন্দন জানানোর মতো ভাষা সত্যি আমার জানা নেই। এর চেয়ে ভাল উদ্যোগ আর কিছু হতে পারে না। যে কোনও দলকে কোনও সংস্থার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধতে গেলে শেয়ার ছাড়তেই হবে। সেক্ষেত্রে মোহনবাগান (Mohun Bagan) যা ছেড়েছে, তা যুক্তিসঙ্গত। দেখার বিষয় ছিল, ক্লাবের ঐতিহ্য ধরে রাখতে পারে কি না, সেই ঐতিহ্যটাকেই ধরে রেখে এগোচ্ছে মোহনবাগান। তাদের এই কর্মযজ্ঞকে সাধুবাদ না জানিয়ে উপায় নেই। যাদের মস্তিষ্কপ্রসূত এই উদ্যোগ, তাঁদের আমি সাধুবাদ জানাই। একটা কথা বলে রাখা এই প্রসঙ্গে ভাল কলকাতার তিন প্রধানের নাম কেউ মুছে দিতে পারবে না। তিন প্রধানের সঙ্গে জড়িয়ে আছে কোটি কোটি মানুষের আবেগ। শত শত বছর ধরে তিন প্রধানকে বয়ে নিয়ে এসেছেন বহু কর্তা। তাঁদের পরিশ্রম, নিষ্ঠা, সততা কখনও ব্যর্থ হতে পারে না। তাই এটিকে, রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা যেই এই তিন প্রধানের সঙ্গে সংযুক্ত হোক না কেন, তাদের নাম কিন্তু এই দেশে মুছে যাবে। সে বার্সাই হোক, কিংবা রিয়াল মাদ্রিদ। আসলে তিন প্রধানের ঐতিহ্য, আবেগ আর দেশের মানুষের ভালবাসার কাছে সব কিছু তুচ্ছ। আমার মনে হয়, আমাদের দেশে তিন প্রধানের যা সমর্থক, তা মনে হয় না অন্য কোনও দেশে এত ফুটবল সমর্থক আছে। অনেকে আমাদের ক্লাবের আইএসএল খেলা নিয়ে জানতে চাইছেন। তাঁদের আমি জানিয়ে দিই, “জীবন যখন যেরকম, সময়মতো সকলকে ঠিক জানিয়ে দেব”।

[আরও পড়ুন: ‘অন্যবারের থেকে এবার আরও স্পেশ্যাল মোহনবাগান দিবস’, ২৯ জুলাইয়ের অপেক্ষায় সঞ্জীব গোয়েঙ্কা]

ওয়াসিম আক্রম (মহামেডান সচিব): ময়দান তিন প্রধান ছিল, আছে, থাকবে। এই তিন প্রধানের ঐতিহ্যকে কেউ মুছে দিতে পারবে না। কোটি কোটি মানুষের আবেগ তিন প্রধানের সঙ্গে জড়িয়ে আছে। মোহনবাগান আজ যা করল, তাকে সাধুবাদ জানানোর পাশাপাশি মনে শুধু খটকা লাগছে এক জায়গাতেই নিজেদের ক্লাবের নামের আগে অন্য কোনও নাম জুড়ে যাক, তা কখনও চাইব না। এটা আমার ব্যক্তিগত মত। এর বেশি কিছু বলা উচিত নয়।

জয়দীপ মুখোপাধ্যায়, (আইএফএ সচিব): নতুনভাবে পথচলা শুরু করল মোহনবাগান। এই পথচলাকে অবশ্যই সাধুবাদ জানাব। দেবাশিস দত্ত, সৃঞ্জয় বোসরা মোহনবাগানকে এতদিন টেনে নিয়ে যাচ্ছিলেন। এঁদের সঙ্গে এবার যুক্ত হল সঞ্জীব গোয়েঙ্কা, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়দের এটিকে। আশা করি এবার বাংলা বা ভারতবর্ষে শুধু নয়, সারা পৃথিবীতে এই নাম ছড়িয়ে পড়বে। এবার আশা করি একই পথ ধরে এগিয়ে আসবে
ইস্টবেঙ্গল (East Bengal)। এমনকী, মহামেডানও।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement