BREAKING NEWS

১২ শ্রাবণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৯ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

Euro 2020: দৌড় থেমে গেল ডেনমার্কের, হ্যারি কেনের দাপটে ফাইনালে ইংল্যান্ড

Published by: Krishanu Mazumder |    Posted: July 8, 2021 3:08 am|    Updated: July 8, 2021 3:52 am

Euro 2020: England wins in style against Denmark and through to the Final for the first time | Sangbad Pratidin

ইংল্যান্ড২ (সাইমন আত্মঘাতী, হ্যারি কেন)
ডেনমার্ক (মিকেল)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইউরো কাপে (Euro 2020) ইংল্যান্ডের ফুটবল রূপকথা। সেমিফাইনালে গ্যারেথ সাউথগেটের ছেলেরা ২-১ গোলে হারাল ডেনমার্ককে (Denmark)। সেই সঙ্গে প্রথম বার ইউরো কাপের ফাইনালে যাওয়ার নজির গড়ল ইংল্যান্ড। ১২০ মিনিটের লড়াইয়ে পেন্ডুলামের মতো ম্যাচ দুলল দু’প্রান্তে। শেষমেশ হ্যারি কেনদের কাছে থেমে গেল ডেনমার্কের মরিয়া লড়াই। ফাইনালে ইটালির সামনে এবার ইংল্যান্ড (England)। 

নির্ধারিত সময়ে খেলার ফল ছিল ১-১। খেলার দ্বিতীয়ার্ধে একাধিক সুযোগ তৈরি করেছিল ইংল্যান্ড। হ্যারি ম্যাগুয়ের তিন বার হেড নিয়েছিলেন ডেনমার্কের গোল লক্ষ্য করে। কিন্তু প্রতিবারই ডেনমার্কের গোলকিপার স্মাইকেল থামিয়ে দেন ম্যাগুয়েরকে। ৯০ মিনিটের একেবারে শেষ লগ্নে গ্রিলিশের পাস ডেনমার্কের পেনাল্টি বক্সে কাঁপুনি ধরিয়ে দিলেও হ্যারি কেন তা থেকে গোল করতে পারেনি। ৯০ মিনিটের শেষে খেলার ফলাফল ১-১ হওয়ায় ম্যাচ যায় এক্সট্রা টাইমে। এক্সট্রা টাইমে ইংল্যান্ড সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটান হ্যারি কেন। রহিম স্টার্লিংকে ফাউল করা হলে পেনাল্টি পায় ইংল্যান্ড। হ্যারি কেনের পেনাল্টি স্মাইকেল বাঁচালেও ফিরতি বল থেকে গোল করে যান ইংল্যান্ড অধিনায়ক। সেই গোল আর শোধ করতে পারেনি ডেনমার্ক।  

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, লিওনেল মেসিদের ফ্রি কিক দেখার জন্য মুখিয়ে থাকেন সবাই। এদিন ডেনমার্কের মিকেল ফ্রি কিক থেকে যে গোলটি করলেন, তা এককথায় দুর্দান্ত। তাঁর মারা শট যখন গোঁত খেয়ে গোলে ঢুকছে তখন শরীর ছুড়ে বল বাঁচানোর চেষ্টা করেন পিকফোর্ড। কিন্তু সেই যাত্রায় দলকে বাঁচাতে পারেননি তিনি। খেলার বয়স তখন ৩০ মিনিট। এই সময় ডেনমার্ক দাপট দেখালেও, গোল হজম করার পরে ইংল্যান্ড খোলস ছেড়ে বেরোয়। এর ঠিক ৯ মিনিট পরেই সমতা ফেরায় ইংল্যান্ড। গোলটি অবশ্য সাইমনের আত্মঘাতী। 

[আরও পড়ুন: কলম্বিয়াকে টাই ব্রেকারে হারাল আর্জেন্টিনা, কোপার হাইভোল্টেজ ফাইনালে মুখোমুখি মেসি-নেইমার]

দ্বিতীয়ার্ধে ইংল্যান্ড নিয়ন্ত্রণ করে ম্যাচ। ম্যাগুয়েরের একাধিক প্রয়াস ব্যর্থ করেন স্মাইকেল। ইংল্যান্ডের আগ্রাসনের সামনে ডেনমার্ক দাঁত কামড়ে ডিফেন্স করে যায়। সেই রক্ষণ ভাঙতে পারেননি ইংল্যান্ডের স্টার্লিং-হ্যারি কেনরা। ডেনমার্কের গোলকিপারও বারের নীচে হয়ে উঠেছিলেন অপ্রতিরোধ্য। এক্সট্রা টাইমে অবশ্য শেষ হাসি হাসল ইংল্যান্ড। দিনের শেষে ট্র্যাজিক নায়ক হয়েই থাকতে হল স্মাইকেলকে।  

[আরও পড়ুন: দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পুরস্কার, ২ বছর পর ফের ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে মিতালি রাজ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement