BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

চ্যাম্পিয়ন মোহনবাগানই, লিগ কমিটির প্রস্তাবে সায় ফেডারেশনের কার্যকরী কমিটির

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 21, 2020 1:30 pm|    Updated: April 21, 2020 1:30 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শনিবার ফেডারেশনের লিগ কমিটির বৈঠকের পরই স্পষ্ট হয়ে যায় ইস্টবেঙ্গলের শত আপত্তি সত্বেও এবছর আই লিগ চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হবে মোহনবাগানকে। ফেডারেশনের (All India Football Federatio) লিগ কমিটি মোহনবাগানকে চ্যাম্পিয়ন করা এবং বাকি ক্লাবগুলির মধ্যে পুরস্কার মুল্য ভাগ করে নেওয়ার মতো বেশ কয়েকটি প্রস্তাব পাঠিয়েছিন ফেডারেশনের কার্যকরী কমিটির (AIFF Executive Committee) কাছে। সোমবার সেই সবকটি প্রস্তাবে সায় দিয়েছে কার্যকরী কমিটি। অর্থাৎ সরকারিভাবে মোহনবাগানের নামের পাশে চ্যাম্পিয়নের তকমা বসিয়ে দেওয়া হল।

Mohun Bagan

সোমবার লিগ কমিটির প্রস্তাব মেনে মোট ৭টি সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছে AIFF-এর কার্যকরী কমিটি। এই সিদ্ধান্তগুলি হল,

১। ২০১৯-২০ লিগ মরশুমের সমাপ্ত।
২। ২০১৯-২০ মরশুমের আই লিগ চ্যাম্পিয়ন মোহনবাগান (Mohun Bagan)।
৩। বাকি পুরস্কারমুল্য বাদবাকি ১০টি দলকে ভাগ করে দেওয়া হবে।
৪। কোনও অবনমন থাকবে না। কোনও ব্যাক্তিগত পুরস্কার দেওয়া যাবে না।
৫। আগামী মরশুমে আই লিগে প্রমোশনের জন্য দ্বিতীয় ডিভিশনের দলগুলিকে নিয়ে মিনি লিগ করতে পারে ফেডারেশন। এ বিষয়ে এএফসির সঙ্গে আলোচনা করা হবে।
৬। সমস্ত যুব লিগ অর্থাৎ বয়সভিত্তিক লিগ বাতিল। পরের বছর নতুন করে শুরু করা হবে।
৭। অ্যাকাডেমির স্বীকৃতির জন্য আবেদন করার সময়সীমা বাড়ানো হবে।

[আরও পড়ুন: বিশ বাঁও জলে ফেডারেশনের নির্বাচন, সমস্যায় অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ আয়োজন!]

করোনার জেরে লিগ স্থগিত হওয়ার আগেই পয়েন্টের বিচারে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়ে গিয়েছে মোহনবাগান। কিন্তু লিগের ২৮টি ম্যাচ তখনও বাকি ছিল। তাই দ্বিতীয় থেকে অবনমন পর্যন্ত বাকি স্থানগুলি চূড়ান্ত হয়নি। এই পরিস্থিতিতে শনিবার মোহনবাগানকে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করে ফেডারেশনের লিগ কমিটি। বাকি ৯টি ক্লাব এই সিদ্ধান্ত মানলেও বিরোধিতা করে ইস্টবেঙ্গল। লিগ কমিটির বৈঠকের আগেই তাঁরা ফেডারেশনকে চিঠি পাঠিয়ে আই লিগের মোট পুরস্কারমুল্য সবকটি ক্লাবের মধ্যে সমান ভাগে ভাগ করে দিতে অনুরোধ জানায়। যদিও সেই প্রস্তাব ধোপে টিকল না। ফেডারেশনের কার্যকরী কমিটি লিগ কমিটির সিদ্ধান্তেই সিলমোহর দিল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement