৪ মাঘ  ১৪২৬  শনিবার ১৮ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo ফিরে দেখা ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

ইস্টবেঙ্গল- ১ (গিমিনেজ)
রিয়াল কাশ্মীর- ১ (ক্রিজো)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ম্যাচের শেষ লগ্নে গোল। আর সেই গোলের মাধ্যমে দলকে খাদের কিনারা থেকে তুলে ধরলেন ইস্টবেঙ্গলের মার্ক গিমিনেজ। সেইসঙ্গে আই লিগের শুরুতেই কোনক্রমে হার বাঁচাল লাল-হলুদ শিবির। ঘরের মাঠে প্রথম ম্যাচেই রিয়াল কাশ্মীরের কাছে আটকে যাওয়ায় কপালে চিন্তার ভাঁজ ইস্টবেঙ্গল কোচ আলেজান্দ্রোর। বুধবার কল্যাণীতে খেলার ফল ১-১। মোহনবাগানের মতো মরশুমের শুরুতে প্রথম ম্যাচে ড্র করল ইস্টবেঙ্গল।

এদিন রিয়ালের বিরুদ্ধে খেলতে নামার আগে ইস্টবেঙ্গল কোচ আলেজান্দ্রোর সমস্যা ছিল, বোরহা এবং ডিকার মতো ফুটবলারকে চোটের জন্য না পাওয়া। দু’জনেই রিহ্যাবে আছেন। ডার্বির আগে ওঁদের সম্ভবত পাওয়া যাবে না। কোলাডো আর মার্ক গিমিনেজই ভরসা ছিল কোচের। এদিন ম্যাচের শুরুতেই গোল করে কাশ্মীরকে এগিয়ে দেন ক্রিজো। প্রথমার্ধে প্রচুর চেষ্টা করেও গোলমুখ খুলতে পারেননি ইস্টবেঙ্গলের ফুটবলাররা।

[আরও পড়ুন: আই লিগের প্রথম ম্যাচেই হোঁচট, আইজলের কাছে আটকে গেল মোহনবাগান]

দ্বিতীয়ার্ধেও প্রচুর সুযোগ তৈরি করলেও ফিনিশিংয়ের অভাবে গোল করতে ব্যর্থ হচ্ছিলেন কোলাডোরা। ঘরের মাঠে কয়েক হাজার সমর্থকদের সামনে বারবার গোল করার ব্যর্থতার চিন্তা ফুটে উঠছিল কোচ আলেজান্দ্রোর চোখেমুখে। ম্যাচ যখন মনে হচ্ছে প্রায় কাশ্মীর জিততে চলেছে, ঠিক সেইসময় জ্বলে ওঠেন ইস্টবেঙ্গলের স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড গিমিনেজ। হুয়ান মেরার পাসে বক্সের মধ্যে তাঁর ডান পায়ের গড়ানে শট জালে জড়িয়ে যেতেই উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন কল্যাণী স্টেডিয়ামে উপস্থিত লাল-হলুদ সমর্থকরা। হারের মুখ থেকে দলকে টেনে বের করলেন গিমিনেজ যেন।

চলতি আই লিগে প্রথম ম্যাচে কোনওক্রমে হার বাঁচাল ইস্টবেঙ্গল। ম্যাচ থেকে এক পয়েন্ট পেলেও ঘরের মাঠে লাল-হলুদ শিবিরের ফুটবলারদের ওভারঅল পারফরম্যান্স হতাশই করেছে। যা কিন্তু পরবর্তী ম্যাচগুলির আগে চিন্তা বাড়াবে আলেজান্দ্রোর।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং