১ মাঘ  ১৪২৫  বুধবার ১৬ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রিয়েল কাশ্মীর ২ (রবার্টসন ২)

মোহনবাগান ১ (সোনি)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোনি নর্ডির দুর্দান্ত গোলেও শেষরক্ষা হল না। ঘরের মাঠে রিয়েল কাশ্মীরের কাছে হেরে আই লিগ জয়ের লড়াইয়ে আরও পিছিয়ে পড়ল মোহনবাগান। রবার্টসনের জোড়া গোলের সুবাদে ৩ পয়েন্ট তুলে নিয়ে লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এল আই লিগে অভিষেককারী দল রিয়েল কাশ্মীর। অন্যদিকে, মোহনবাগানের সংগ্রহ ১১ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট। লিগ জয়ের স্বপ্ন নিয়ে অভিযান শুরু করা সবুজ মেরুন এখন পয়েন্ট টেবিলে ষষ্ঠ স্থানে। যা পরিস্থিতি তাতে অতি বড় মোহনবাগান সমর্থকরাও হয়তো আর লিগ জয়ের আশা করবেন না।

[এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচ, ৩২ বছর পর থাইল্যান্ডকে হারাতে মরিয়া সুনীলরা]

নিজেদের শেষ ম্যাচে হারের পর ঘরের মাঠে কাশ্মীরের কাছে জয়ই ছিল কোচ শংকরলাল চক্রবর্তীর একমাত্র লক্ষ্য। সেই মতো দলের সেরা অস্ত্র সোনিকে এদিন শুরু থেকেই নামান কোচ। কোচের ভরসার দাম দিয়ে ফ্রি কিক থেকে দুর্দান্ত গোলও করেন হাইতির ম্যাজিশিয়ান। কিন্তু তা কাজে লাগল না। দলের সার্বিক ব্যর্থতার জেরে ঘরের মাঠে অনামী রিয়েল কাশ্মীরের কাছেই হারতে হল সবুজ মেরুনকে। এমনিতে এবছরই আই লিগে অভিষেক করছে রিয়েল কাশ্মীর। দল অনামী হলেও তাদের সাম্প্রতিক ফর্ম কিন্তু ছিল চমকপ্রদ। কোঝিকোড়ে গোকুলাম, চেন্নাইয়ে চেন্নাই ও কলকাতায় ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচেই অপরাজিত ছিল তারা। লিগের ফার্স্ট বয় চেন্নাইকেও হারিয়ে আত্মবিশ্বাসে ফুটছিল রিয়েল। ফলে তাদের হারানোটা সহজ হবে না তা আগে থেকেই আন্দাজ করেছিলেন মোহনবাগান কোচ। কিন্তু, সবুজ মেরুন ফুটবলারদের মধ্যে ভাল খেলার সেই ক্ষিদেটাই লক্ষ্য করা গেল না।

[আলভিটোকে নিয়ে সংঘাত কোয়েস এবং ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের]

কিন্তু এহেন ফর্মে থাকা দলকে হারানোর জন্য যে মানসিকতা আর একাগ্রতার প্রয়োজন ছিল তা দেখাতে পারলেন না মোহনবাগান ফুটবলাররা। ম্যাচের বেশিরভাগ সময় বল নিজেদের দখলে রাখলেও গোলের মুখ খুলতে পারলেন না ফৈয়াজ-হেনরিরা। উলটে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে প্রথমার্ধের ৩৩ মিনিটে দুর্দান্ত গোল করে রিয়েলকে এগিয়ে দেন রবার্টসন। ৪২ মিনিটে ফ্রি কিক থেকে দুর্দান্ত গোল করে মোহনবাগানকে ম্যাচে ফেরান সোনি। কিন্তু সোনির সেই অনবদ্য ফ্রি কিক কাজে লাগেনি। ম্যাচের ৭৩ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে ফের গোল তুলে নেন রবার্টসন। এরপর মোহনবাগান বেশ কয়েকটা সুযোগ তৈরি করলেও হেনরি-ডিকাদের ব্যর্থতায় আর সমতায় ফিরতে পারেনি সবুজ মেরুন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং