BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সৌরভই অনুপ্রেরণা, ৩ বছর পর ভারতীয় দলে কামব্যাক করতে চান ‘স্পাইডারম্যান’ সুব্রত পাল

Published by: Sulaya Singha |    Posted: August 9, 2020 5:38 pm|    Updated: August 9, 2020 5:38 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত তিন বছর নীল জার্সিতে বল পায়ে দেখা যায়নি তাঁকে। তবে দলকে এখনও অনেক কিছু দেওয়ার ইচ্ছেটা একইরকম রয়ে গিয়েছে। আর সেই ইচ্ছেপূরণ করতেই কামব্যাক করার স্বপ্ন দেখছেন ভারতীয় দলের ‘স্পাইডারম্যান’ সুব্রত পাল (Subrata Paul)। ২০২৩ সালে এশিয়ান কাপে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে আরও একবার নামার আশায় তিনি।

২০১৭ সালে শেষবার দেশের হয়ে মাঠে নেমেছিলেন বাংলার গোলকিপার। তারপর থেকে সুনীল ছেত্রীদের দলের তেকাঠির নিচে দেখা যায় পাঞ্জাব দা পুত্তর গুরপ্রীত সিং সাঁধুকে। যদিও আইএসএলে (ISL) খেলে ফুটবলের মধ্যেই রয়েছেন ৩৩ বছরের সুব্রত। জামশেদপুর এফসির পর এখন তাঁকে দেখা যায় হায়দরাবাদ এফসির জার্সিতে। তাই কঠোর পরিশ্রম করে মেন ইন ব্লুতে ফের জায়গা নেবেন বলেই আশা তাঁর। সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের AIFF TV-তে একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “আমি সত্যিই বিশ্বাস করি জাতীয় দলকে দেওয়ার আমার এখনও অনেক কিছু বাকি। কোচ (ইগর স্টিমাচ) তো বলেই দিয়েছেন, ভারতীয় পাসপোর্ট থাকলেই তার দেশের হয়ে খেলার সুযোগ আছে। অর্থাৎ প্রতিভা থাকলে তা নজর এড়াবে না। আর সেই জায়গাটায় পৌঁছতে দিনরাত পরিশ্রম করছি। শুনলে হয়তো হাসি পাবে, তবে আরও একটা এশিয়ান কাপ খেলতে চাই।”

[আরও পড়ুন: করোনায় আক্রান্ত নন টুটু বোস, ভিডিও বার্তায় গুজব ওড়ালেন মোহনবাগান সভাপতি]

২০২২ কাতার বিশ্বকাপে যোগ্যতা অর্জন করতে ব্যর্থ হয়েছেন সুনীল ছেত্রীরা (Sunil Chhetri)। তাই ২০২৩ এশিয়ান কাপকেই পাখির চোখ করতে চান স্টিমাচ। সেই কারণেই চলতি বছর অক্টোবরে দেশের মাটিতে এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন কাতারের বিরুদ্ধে ম্যাচের জন্য প্রস্তুতিতে কোনও ত্রুটি রাখবেন না তিনি। কিন্তু স্টিমাচের পছন্দের তালিকায় সুব্রত পাল নাম লেখাতে পারেন কি না, সেটাই এখন বড় প্রশ্ন।

এশিয়ান কাপে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর। ২০১১ দোহা এশিয়ান কাপে নজর কেড়েছিলেন এই গোলকিপার। সেভাবেই আরও একটা এশিয়ান কাপে নীল জার্সিতে ত্রাতায় ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে চান। বলছেন, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে দেখেই অনুপ্রেরণা পান। হাজার প্রতিকূলতা কাটিয়ে টিম ইন্ডিয়ায় কামব্যাক করেছিলেন দাদা। তিনিই ঘুরে দাঁড়াতে আত্মবিশ্বাস জোগান।

[আরও পড়ুন: প্রয়াত মোহনবাগানের প্রাক্তন অধিনায়ক মণিতোম্বি সিং, ময়দানে শোকের ছায়া]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement