৭  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আইএসএল জয়ের জন্য এটিকে মোহনবাগানকেই ফেভারিট বাছলেন ‌কেরালার হুপার

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: January 7, 2021 10:36 pm|    Updated: January 7, 2021 10:36 pm

ISL 2020: Kerala blasters Garry Hooper's Interview | Sangbad Pratidin

সোহম দে:‌ তাঁর ফুটবল সিভি দেখলেই পরিষ্কার তিনি এবারের ISL-এর অন্যতম তারকা নাম। টটেনহ্যাম যুব দল থেকেই তাঁর ফুটবলে হাতেখড়ি। তবে ঐতিহাসিক স্কটিশ ক্লাব সেল্টিক–এর জার্সিতেই সবচেয়ে বেশি সাফল্য পান তিনি। সেল্টিকের হয়ে ১৩২ ম্যাচে ৮২ গোল করেন তিনি। তাঁর ট্রফি ক্যাবিনেটে আছে দু’টো স্কটিশ লিগ ও দু’টো স্কটিশ কাপ। প্রিমিয়ার লিগেও নরউইচ সিটির হয়ে খেলেছিলেন তিনি। তিনি–কেরালা ব্লাস্টার্সের (Kerala Blasters) তারকা ফরোয়ার্ড গ্যারি হুপার। আইএসএল নিয়ে ‘সংবাদ প্রতিদিন’–কে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে অনেক বিষয়েই মুখ খুললেন হুপার….

প্রশ্ন: আইএসএলে খেলার অভিজ্ঞতা কী রকম?
হুপার: আইএসএলে খেলতে পেরে দারুণ লাগছে। কোভিডের জন্য পরিস্থিতি একটু হলেও কঠিন। বায়ো বাবলের মধ্যে থাকাটা সত্যি একটা চ্যালেঞ্জ। তবে যা অবস্থা তাতে কিছু করার নেই।

প্রশ্ন: কেরালা ব্লাস্টার্স ধারাবাহিকতার অভাবে ভুগছে। কোথায় সমস্যা হচ্ছে?
হুপার: দেখুন লম্বা লিগে সব সময় লাক ফ্যাক্টরও দরকার হয়। আমাদের সেই লাক ফ্যাক্টরটাই নেই। অনেক ম্যাচ ভাল খেলেও আমরা হেরেছি। আমাদের প্রধান সমস্যা হল দল বেশি সুযোগ তৈরি করতে পারছে না। নিঃসন্দেহে বলতে পারি এখনও আমরা প্লে অফে যাওয়ার ক্ষমতা রাখি। তবে তার জন্য পরের ম্যাচগুলোয় ফাইনাল থার্ডে আরও বেশি সুযোগ তৈরি করতে হবে।

[আরও পড়ুন: চড়ছে পারদ!‌ ব্রিসবেন টেস্টে খেলার জন্য অজিদের ‘শর্ত’ দিল BCCI]

প্রশ্ন: আপনার মতে আইএসএল জয়ের প্রধান দাবিদার কে?
হুপার: এটিকে মোহনবাগানই আইএসএল জেতার প্রধান দাবিদার।

প্রশ্ন: এটিকে মোহনবাগানকে প্রধান দাবিদার বলার কারণ কী?
হুপার: এ বারের আইএসএলের প্রথম ম্যাচেই এটিকে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে নেমেছিলাম। দলটা খুবই কম্প্যাক্ট। ওদের রক্ষণও খুব আঁটোসাঁটো। তার উপর আবার কাউন্টারেও এটিকে মোহনবাগান ভয়ঙ্কর। দলে ম্যাচ উইনারের সংখ্যাও অনেক বেশি।

প্রশ্ন: কলকাতা ফুটবলের আর এক ঐতিহাসিক ক্লাব এসসি ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে নাটকীয় ড্র করে কেরালা। এসসি ইস্টবেঙ্গল নিয়ে কী বলবেন?
হুপার: দুর্ভাগ্যজনক ভাবে সেই ম্যাচটায় চোট পেয়ে বেরিয়ে আসতে হয়। এসসি ইস্টবেঙ্গল ফ্লুইড ফুটবল অর্থাৎ পাসিং ফুটবল খেলার চেষ্টা করে।

[আরও পড়ুন: টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম মহিলা আম্পায়ার, সিডনিতে নজির গড়লেন ক্লেয়ার]

প্রশ্ন: কিবু ভিকুনার কোচিংয়ে খেলতে কেমন লাগছে?
হুপার: কিবু ভিকুনা খুব বড়মাপের কোচ। কিবুর সঙ্গে ফোনে কথা বলার পরেই ঠিক করেছিলাম কেরালা ব্লাস্টার্সে সই করব। কিবুর ফুটবল মডেল আমার খুব পছন্দ। আশা করছি ওর কোচিংয়ে কেরালা ব্লাস্টার্স অনেক সাফল্য পাবে।

প্রশ্ন: স্কটল্যান্ডের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্লাব সেল্টিক-এ থাকাকালীন আপনি নিছক প্রতিভা থেকে হয়ে উঠেছিলেন মহাতারকা। সেল্টিকের জার্সিতেই কি নিজের সেরা ফুটবল খেলেছেন?
হুপার: অ্যাবসোলিউটলি। সেল্টিকের মতো এত বড় ক্লাবের হয়ে খেলতে পারাটা আমার কাছে গর্বের। স্কটিশ লিগ ও স্কটিশ কাপ দুটোই জিতেছি। এক মরশুম স্কটিশ লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতাও হয়েছি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ইউরোপা লিগ প্রতিটা টুর্নামেন্টে খেলেছি। সব মিলিয়ে সেল্টিকেই নিজের সেরা ফুটবলটা খেলেছি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে