১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ৩ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আজ হারলেই বিদায়, বসুন্ধরা যুদ্ধের আগে সন্দেশ-ধোঁয়াশা মোহনবাগানে

Published by: Biswadip Dey |    Posted: May 21, 2022 11:32 am|    Updated: May 21, 2022 1:48 pm

It is do or die for Mohun Bagan in AFC cup। Sangbad Pratidin

স্টাফ রিপোর্টার: মূল রাউন্ডে গ্রুপ ম্যাচ খেলার আগে মোহনবাগান (ATK Mohun Bagan FC) কোচ ফেরান্দো বুঝতেই পারেননি, একটা ম্যাচ খেলতে না খেলতেই এরকম চাপে পড়ে যাবেন। পরিস্থিতি যা, তাতে শনিবার বাংলাদেশের (Bangladesh) বসুন্ধরা কিংসের (Bashundhara Kings) বিরুদ্ধে না জিতলে পরের রাউন্ডে যাওয়ার কোনও সম্ভাবনাই থাকবে না রয় কৃষ্ণদের। তার মধ্যেই খবর চলে এল, পরের মরশুমে মোহনবাগানে খেলবেন না অস্ট্রেলিয়ান স্ট্রাইকার ডেভিড উইলিয়ামস।

এএফসির মূলপর্বের গ্রুপের খেলা শুরুর আগে মোহনবাগান কোচ ফেরান্দো বলেছিলেন, এই গ্রুপে বসুন্ধরাকে নিয়েই তাঁর যা চিন্তা। কিন্তু আদপে দেখা গেল আই লিগ চ্যাম্পিয়ন গোকুলামের কাছে প্রথম ম্যাচেই হেরে বসে আছেন ফেরান্দোর ছেলেরা। ফলে ম্যাচ শেষে গোকুলাম কোচ আলবার্তোও কিছুটা ব্যাঙ্গ করে বলেছিলেন, “মোহনবাগানের থেকে আই লিগের দল রিয়াল কাশ্মীর আমাকে বেশি ভুগিয়েছে।” এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে গোকুলাম কোচের প্রসঙ্গ উঠতেই পাশ কাটিয়ে গেলেন মোহনবাগান কোচ জুয়ান ফেরান্দো। বললেন, “যা হয়ে গিয়েছে, সেগুলি নিয়ে আর কথা বলতে চাই না। এখন শুধু সামনের দিকে তাকাতে চাই।”

[আরও পড়ুন: ‘ভাষা নিয়ে সংঘাত তৈরির চেষ্টা, নাগরিকদের সতর্ক করুন’, বিজেপি কর্মীদের বার্তা মোদির]

শুধু কি প্রতিপক্ষ কোচ? নিজের ঘরেও তাঁকে ঘিরে সমস্যা তৈরি হয়েছে। আইএসএলের অন্যতম সফল কোচ হাবাসকে সরিয়ে আইএসএলের মাঝপথে নিয়ে আসা হয়েছিল ফেরান্দোকে। উদ্দেশ্য ছিল একটাই। ডিফেন্সিভ মনোভাব সম্পন্ন কোচ হাবাসের জায়গায় আক্রমণাত্মক কোচ ফেরান্দোর হাতে দল তুলে দেওয়া। কিন্তু আইএসএলের ফাইনালে পর্যন্ত দলকে তুলতে পারেননি তিনি। তারপর এএফসিতে এসে আই লিগের দলের কাছে হার।
চোট কাটিয়ে এখন পুরোপুরি সুস্থ সন্দেশ। হারলেও গোকুলামের বিরুদ্ধে মাঠে নামাননি ভারতীয় দলের নির্ভরযোগ্য স্টপারকে। চোট থেকে সবে সেরে উঠেছেন বলে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামার আগে প্রস্তুতি ম্যাচে বেশিক্ষণ ম্যাচ খেলেননি সন্দেশ। আর তাতেই ফেরান্দোর মনে হয়েছে ম্যাচ ফিট নন দলের এক নম্বর ভারতীয় ডিফেন্ডার। তিরি চোট পেয়ে মাঠের বাইরে চলে যাওয়ার পরও ফেরান্দো যখন সন্দেশকে মাঠে নামালেন না, তখন অনেকে অবাক হয়ে গিয়েছিলেন।

শনিবার বসুন্ধরার বিরুদ্ধে খেলার মতো জায়গায় রয়েছেন সন্দেশ। তবুও নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না, সন্দেশকে প্রথম থেকে মাঠে নামানো হবে কি না। তবে তিরি না থাকায় কার্ল দলে ফিরছেন, এখনই বলে দেওয়া যায়। এই জায়গা থেকে কি ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব? এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে ফেরান্দো বললেন, “কেন সম্ভব নয়? আমাদের দল বেশ ভাল। বসুন্ধরা ম্যাচ থেকেই আমরা ঘুরে দাঁড়াব।”

[আরও পড়ুন: প্রায় ১০ ঘণ্টা জেরা পরেশ অধিকারীকে, কার মাধ্যমে চাকরি পেয়েছিলেন মেয়ে? প্রশ্ন CBI-এর]

গত মরশুমে এই বসুন্ধরার সঙ্গেই ম্যাচটি ১—১ গোল ড্র রেখেছিল মোহনবাগান। এবার অবশ্য অন্য লড়াই। সবুজ-মেরুন খেলতে নামবে ঘরের মাঠে। তার উপর বসুন্ধরার কোচ অস্কার ব্রুজো এর আগে ভারতে কোচিং করে যাওয়ায়, ভারতীয় ফুটবলারদের ভালভাবেই চেনেন। ফলে শনিবার মোহনবাগানের লড়াই খুব একটা সহজ হবে না। আর তাই হয়তো ম্যাচের আগে অস্কার ব্রুজো বলছেন, “মোহনবাগান এখন দল গোছাচ্ছে। এই সুযোগটাই নিতে হবে।” পরিস্থিতি বুঝতে পেরে ফেরান্দো বললেন, “আমার ফুটবলাররা পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝতে পেরেছে। আশা করি ঠিক সময়ে নিজেদের সেরাটা তুলে ধরতে পারবে। কি ভাবে খেললে ম্যাচটা জিতে বের হওয়া যায়, আমরা তারই পরিকল্পনা করছি।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে