২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  রবিবার ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রোনাল্ডো না মেসি, এই প্রজন্ম যখন এই দু’জনকে নিয়ে বিতর্কে মগ্ন, তখন খানিকটা চমকে দিয়ে সেরা হিসেবে রোনাল্ডোর নাম নিলেন মেসি। না ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো নন, মেসি বলছেন ব্রাজিলের রোনাল্ডো লুইস নাজারিও ডি লিমাই সর্বকালের সেরা ফরোয়ার্ড। অন্তত, তিনি যাদের খেলা দেখেছেন তাদের মধ্যে রোনাল্ডোই সেরা।


মেসি যে ক্লাবে খেলেন অর্থাৎ বার্সেলোনার হয়ে একসময় খেলতেন রোনাল্ডো নাজারিও, আবার প্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো যে ক্লাব থেকে যাবতীয় পুরস্কার-খ্যাতি অর্জন করেছেন সেই রিয়াল মাদ্রিদেও খেলেছেন রোনাল্ডো। একসময় চোখ বন্ধ করে বিশ্বের সেরা ফরোয়ার্ড তাঁকেই বলা হত। ক্লাব পর্যায়ে তিনশোর বেশি ম্যাচ খেলেছেন রোনাল্ডো। গোল করেছেন ৩৪৩টি। ব্রাজিলের জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ৯৮ ম্যাচে ৬২টি গোল করেছেন রোনাল্ডো। এর মধ্যে বিশ্বকাপের মঞ্চে তিনি গোল করেছেন ১৫টি। আন্তর্জাতিক ফুটবলে তাঁর এই সাফল্য সত্যিই অভাবনীয়। তাছাড়া, রোনাল্ডোর খেলার প্রভাব যে শুধু এই পরিসংখ্যানের মধ্যে সীমাবদ্ধ তা নয়। তাঁকে যারা চাক্ষুস করেছেন, তাঁরা বলেন রোনাল্ডোর গতি, ক্ষীপ্রতা আর শৈলী যে কোনও ফুটবলারের জন্য ঈর্ষণীয়। ২০১১ সালে আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় জানান রোনাল্ডো ডি লিমা। তাঁর গুণমুগ্ধের সংখ্যা নেহাত কম নয়। সেই তালিকায় নাম লেখালেন খোদ মেসিও।

[আরও পড়ুন: ঘরের মাঠে দুর্দান্ত জয়, আনকোরা হায়দরাবাদকে গোলের মালা পরাল এটিকে ]

যদিও, মেসি ভক্তদের মতে এটা তাঁর অতি বিনয়ের নির্দশন, আসলে সর্বকালের সেরা ফরোয়ার্ড মেসি নিজেই। পরিসংখ্যান বলছে রোনাল্ডো ডি লিমার চেয়ে পরিসংখ্যানের বিচারে অনেকটাই এগিয়ে মেসি। তাছাড়া সব মিলিয়ে মোট ৬ বার ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলারও হয়েছেন তিনি। একইভাবে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো সমর্থকরাও মনে করেন, সর্বকালের সেরা ফরোয়ার্ড ক্রিশ্চিয়ানো। কেরিয়ারে ইতিমধ্যেই ৭০০ গোলের গণ্ডি পেরিয়ে গিয়েছেন তিনি। এ প্রজন্মের ফুটবল সমর্থকদের মধ্যে মেসি-রোনাল্ডোর এই চিরন্তন বিবাদ হয়তো চলতেই থাকবে। কিন্তু, মেসি নিজে যে সিনিয়র রোনাল্ডোকেই বেশি পছন্দ করেন তা জানা গেল রবিবার।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং