৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

মোহনবাগান: ১ (গঞ্জালেজ)
ইন্ডিয়ান নেভি: ০

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সপ্তাহ খানেক আগে এই ইন্ডিয়ান নেভিকেই হাফডজন গোলের মালা পরিয়েছিল মহামেডান। কিন্তু সেই দলের বিরুদ্ধে বেশ কষ্ট করেই জিততে হল হেভিওয়েট মোহনবাগানকে। নেহাতই নিয়মরক্ষার ম্যাচ বলেই কি দলের এমন পারফরম্যান্স? নাকি বেইতিয়ার অনুস্থিতি বেশি করে টের পেল সবুজ-মেরুন ব্রিগেড! ম্যাচ শেষে নিঃসন্দেহে এসব নিয়ে কাঁটাছেড়া হবে। তবে স্বস্তি একটাই। চলতি ডুরান্ড কাপের গ্রুপ পর্বের তিনটি ম্যাচ জিতেই শেষ চারে পৌঁছলো কিবু ভিকুনার দল।

[আরও পড়ুন: অর্জুন পুরস্কারের জন্য মনোনীত জাদেজা, সম্মানিত হবেন বাংলার দুই তারকাও]

চোটের কারণে যে বেইতিয়া মাঠের বাইরেই থাকবেন, তা আগেই ঠিক হয়ে গিয়েছিল। কাস্টমস ম্যাচে গোড়ালিতে চোট পেয়েছিলেন স্প্যানিশ মিডিও। তবে এদিন দলে ছিলেন না চামোরোও। সুহেরের সঙ্গে খেলেন শুভ ঘোষ। এদিন নেভির ডিফেন্স চিড়তে ব্যর্থ হন বাগান স্ট্রাইকাররা। শুভ দু’বার গোলের সুযোগ পেয়েও তা নষ্ট করেন। দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকেই একটি মাত্র গোল করে দলের মানরক্ষা করেন ফ্রান গঞ্জালেজ। সেমিফাইনালের আগে চিন্তা বাড়াল কিমকিমার হলুদ কার্ড। ব্রিটোকে ফাউল করলে হলুদ কার্ড দেখেন তিনি।

তবে এদিনের রেফারিং নিয়ে খুব একটা সন্তুষ্ট নয় বাগান। ২১ মিনিটে নেভির বক্সে ফৈয়াককে ফাউল করা হলেও পেনাল্টি দেননি রেফারি। তবে দ্বিতীয়ার্ধে সেই ফৈয়াজকে ফাউলের জন্যই পেনাল্টি পায় বাগান। লিগের দুটি ম্যাচে নিজেদের মাঠে পাঁচ পয়েন্ট হারিয়েছেন ভিকুনার ছেলেরা। তবে আপাতত ডুরান্ডের সেমিফাইনালে এই জয়ের ধারাই বজায় রাখতে চাইছেন স্প্যানিশ কোচ। শেষ চারে তাঁদের মুখোমুখি রিয়াল কাশ্মীর। প্রশ্ন এখন একটাই। সেমিফাইনালের আগে বেইতিয়া সুস্থ হয়ে উঠবেন তো?

[আরও পড়ুন: কোহলিদের কোচ বাছাইয়ের সময় এ কী ভুল করলেন! কটাক্ষের শিকার কপিল দেবরা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং