BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

লকডাউন উঠে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে মেটানো হবে বকেয়া বেতন, ফুটবলারদের আশ্বস্ত করল মোহনবাগান

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 12, 2020 9:20 pm|    Updated: May 12, 2020 9:20 pm

An Images

উচ্ছ্বসিত কোচ কিবু ভিকুনা ও টিম

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তিন মাসের বেতন বকেয়া। খুব সমস্যা হচ্ছে। দ্রুত বেতন মেটানোর ব্যবস্থা করা হোক। এই মর্মেই মোহনবাগান কর্তাদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছিলেন ফুটবলাররা। জবাবে তাঁদের আশ্বস্ত করে ক্লাবের তরফে জানানো হল, শীঘ্রই সমস্ত ফুটবলারের বকেয়া বেতন মিটিয়ে দেওয়া হবে। প্রত্যেকেই বেতন পাবেন। লকডাউন শিথিল হলে পরিস্থিতি খানিকটা স্বাভাবিক হলেও বেতন দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করা হবে।

দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণার আগেই দ্বিতীয়বার আই লিগ ট্রফি নিশ্চিত করে ফেলেছিল মোহনবাগান। কল্যাণীর মাঠে আইজলকে হারানোর পর টুর্নামেন্ট বাকি থাকতেই চ্যাম্পিয়নের তকমা গায়ে লেগে যায় দেবজিৎ, ফ্রান গঞ্জালেসদের। তখনই জানানো হয়েছিল, দলকে চ্যাম্পিয়ন করার জন্য প্রত্যেক ফুটবলারকে ইনসেনটিভ দেওয়া হবে। কিন্তু সেই অর্থ এখনও পাননি তাঁরা। এ প্রসঙ্গে ক্লাব জানিয়েছে, ফেডারেশন (AIFF) আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পুরস্কার অর্থ দিয়ে দিলেই ফুটবলাররা ইনসেনটিভ পেয়ে যাবেন।

[আরও পড়ুন: আগামী বছরই ভারতে অনূর্ধ্ব-১৭ মহিলা বিশ্বকাপ, দিনক্ষণ ঘোষণা করল ফিফা]

সবুজ-মেরুনকে দেওয়া চিঠিতে ফুটবলাররা জানান, তাঁদের তিন মাসের বেতন বাকি। যেখানে বিদেশিরা পাবেন শেষ দু’মাসের বেতন। বিদেশি তারকাদের ক্লাবকর্তারা আগেই জানিয়েছিলেন যে আগামী ৩১ মে’র মধ্যেই বকেয়া মিটিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু বাকিরা কোনও প্রতিশ্রুতি না পাওয়ায় বকেয়া বেতন মেটানোর দাবিতে চিঠি পাঠান। ১৫ মে’র মধ্যে সমস্ত বকেয়া মিটিয়ে দেওয়ার অনুরোধও জানিয়েছেন ফুটবলাররা। ইনসেনটিভের কথাও উল্লেখ করেছেন তাঁরা। একই সঙ্গে বকেয়া মেটানোর একটি সময়সীমাও বেঁধে দিতে হবে বলে দাবি করেছেন তাঁরা। এমনকী এও বলা হয়, তাঁদের দাবি পূরণ না হলে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের (AIFF) কাছে অভিযোগ জানাবেন।

সেই চিঠির উত্তরে বাগান জানায়, এর আগে লোন নিয়েও ফুটবলারদের বেতন মেটানো হয়েছে। তাঁরা যাতে কোনও সমস্যায় না পড়েন, এবারও সেই খেয়াল রাখা হবে। প্রত্যেকেই বেতন পাবেন। বাগানের তরফে যে চিঠি দেওয়া হয়, সেখানে বলা হয়েছে, মুম্বইয়ে লকডাউন ওঠার অপেক্ষায় রয়েছেন সবুজ-মেরুন ক্লাব। কারণ করোনা মহামারির জেরে সেখানকার কাজকর্ম কার্যত অচল। তাই বেতন মেটাতে সমস্যা হচ্ছে। লকডাউন উঠে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ফুটবলারদের বকেয়া বেতন দিয়ে দেওয়া হবে। ঘোষিত ইনসেনটিভও পেয়ে যাবেন ফুটবলাররা।  

[আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়ায় শুরু হচ্ছে রাগবি এবং ফুটবল টুর্নামেন্ট, অনিশ্চিত ক্রিকেট বিশ্বকাপ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement