৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শনিবারের ম্যাচটা মোহনবাগানের কাছে স্রেফ নিয়মরক্ষার। ডুরান্ডে ইন্ডিয়ান নেভির বিরুদ্ধে যা-ই ঘটুক না কেন, তাতে বাগানের শেষ চারে যাওয়া আটাকবে না।

[আরও পড়ুন: শিয়রে ডুরান্ডের সেমিফাইনাল, চোটের কথা ভেবে আজ লিগের ম্যাচ খেলবে না ইস্টবেঙ্গল]

তবে তার মানে এই নয় যে, বাগান শিবির খুব নিশ্চিন্তে রয়েছে। নিয়মরক্ষার ম্যাচের আগেও কোচ কিবু ভিকুনাকে চিন্তায় রাখছে বেইতিয়ার চোট। কাস্টমস ম্যাচে গোড়ালিতে চোট পেয়েছিলেন স্প্যানিশ মিডিও। শুক্রবার প্র্যাকটিসে নামেননি। পায়ে বরফ বেঁধে বসে থাকতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। শনিবার যে তিনি খেলছেন না, সেটা আগেই ঠিক হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এখন প্রশ্ন হল, তাঁকে সেমিফাইনালে পাওয়া যাবে তো? বেইতিয়া যে মোহনবাগান মাঝমাঠের প্রধান স্তম্ভ, সেটা এখন সর্বজনবিদিত। শোনা গেল, বেইতিয়ার চোট সারতে তিন-চার দিন সময় লাগবে। বাগান টিম ম্যানেজমেন্ট অবশ্য নিশ্চিত যে তাঁকে সেমিফাইনালে পাওয়া যাবে। টিম ম্যানেজমেন্টের এক সদস্য বলছিলেন, “মনে হয় না সেমিফাইনালে বেইতিয়ার খেলা নিয়ে কোনও সমস্যা হবে।”

শুধু বেইতিয়া নয়, আরও কয়েকজন ফুটবলারকে নেভি ম্যাচে বিশ্রাম দিতে পারেন কোচ ভিকুনা। আসলে পরপর ম্যাচ খেলতে হচ্ছে। তাই শনিবারের গুরুত্বহীন ম্যাচে ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে সবাইকে দেখে নিতে চান ভিকুনা। বেইতিয়া না থাকায় মাঝমাঠে হয়তো ফ্রান গঞ্জালেজ খেলতে পারেন। সালভা চামোরোর সঙ্গে শুরু থেকেই খেলবেন সুহের। মাঝমাঠেও বেশ কিছু বদল করতে পারেন মোহনবাগান কোচ।

[আরও পড়ুন: কবে হবে মরশুমের প্রথম ডার্বি? মুখ খুললেন আইএফএ সচিব]

ডুরান্ডের দুটি ম্যাচ জিতলেও লিগের দুটি ম্যাচে নিজেদের মাঠে পয়েন্ট হারিয়েছেন চামোরোরা। দুটি ম্যাচ খেলে তাঁদের পয়েন্ট মাত্র এক। ডুরান্ডে অবশ্য যুবভারতীতে মহমেডানকে সহজেই হারিয়েছিল  মোহনবাগান। নিজেদের মাঠে জিতেছে এটিকের বিরুদ্ধেও। আজ যুবভারতীতে যাদের বিরুদ্ধে খেলা সেই নৌসেনার দলটা শারীরিক দিক থেকে মন্দ নয়। তাই সেমিফাইনালের আগে রিজার্ভ বেঞ্চও ঝালিয়ে নিতে পারেন বাগানের স্প্যানিশ কোচ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং