Advertisement
Advertisement
ISL 10

তীরে এসে ডুবল মোহন-তরী, আইএসএল চ্যাম্পিয়ন মুম্বই

যুবভারতীতে হেরে গেল মোহনবাগান। খেলার ফলাফল মুম্বইয়ের পক্ষে ৩-১।

Mumbai City beat Mohun Bagan to become ISL Champion
Published by: Arpan Das
  • Posted:May 4, 2024 7:22 pm
  • Updated:May 5, 2024 12:14 pm

মোহনবাগান: ১ (কামিন্স)
মুম্বই সিটি এফসি: ৩ (দিয়াজ, বিপিন, জ্যাকুব)

মুম্বই সিটি এফসিকে হারিয়ে লিগ শিল্ড এনেছিল মোহনবাগান। সেই যুবভারতীতেই মধুর প্রতিশোধ নিল মুম্বই। আইএসএল ফাইনালে ৩-১ গোলে জিতল ছাংতেরা। মুম্বইয়ের হয়ে গোল করেন দিয়াজ, বিপিন ও জ্যাকুব। মোহনবাগান শুরুতেই এগিয়ে দিয়েছিলেন জেসন কামিন্স। কিন্তু জঘন্য ডিফেন্স ও ছন্নছাড়া ফুটবলে সেই লিড ধরে রাখতে ব্যর্থ হল হাবাসের ছেলেরা। একরাশ হতাশা নিয়ে যুবভারতী ছাড়লেন সবুজ-মেরুন ভক্তরা। ২০২১-র পর আরও একবার ফাইনালে মুম্বইয়ের কাছেই থেমে গেল হাবাস বাহিনীর জয়রথ। 

Advertisement

৯৬ মিনিট: ফের গোল মুম্বইয়ের। জ্যাকুবের গোলে ৩-১ গোলে এগিয়ে গেল পিটার ক্রাটকির দল। 

Advertisement

৯৪ মিনিট: গোলের সহজ সুযোগ হারালেন মুম্বই সিটির ফুটবলাররা। ডিফেন্ডারদের ভুল থেকে বল চলে আসে। কিন্তু গোলকিপারকে একা পেয়েও ব্যর্থ বিক্রম।

৯৩ মিনিট: মুম্বইয়ের অর্ধে প্রবল চাপ মোহনবাগানের। কিন্তু এখনও সমতা সূচক গোলটা খুঁজছে সবুজ-মেরুন বাহিনী।

শুরু ইনজুরি টাইম। অতিরিক্ত সময় দেওয়া হয়েছে ৯ মিনিট।

৮৯ মিনিট: জনি কাউকোর মরিয়া চেষ্টা। ডান দিক থেকে ভেসে আসা বল শরীর ছুঁড়ে গোলের চেষ্টা করেছিলেন তিনি। কিন্তু বল গোলে রাখতে পারেননি।

৮৬ মিনিট: ফের গোলের সুযোগ মুম্বইয়ের সামনে। কোনও রকমে বাঁচিয়ে দিলেন ডিফেন্ডাররা।

৮০ মিনিট: বিপিনের গোলে এগিয়ে গেল মুম্বই সিটি। ২-১ গোলে পিছিয়ে মোহনবাগান।

৭০ মিনিট: ফের চোট মুম্বই শিবিরে। আহত হয়ে মাঠের বাইরে গেলেন গোলদাতা দিয়াজ। তাঁর জায়গায় নামলেন জ্যাকুব।

৬৯ মিনিট: ইউয়েস্তের হেড অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট। থাপার পরিবর্তে মাঠে নামলেন সাহাল।

৬৮ মিনিট: চোট পেয়ে মাঠের বাইরে চলে গেলেন মুম্বইয়ের নগুয়েরা। তাঁর জায়গায় নামলেন বিপিং সিং।

৬৫ মিনিট: বক্সের মধ্যে ডাইভ বিক্রম প্রতাপের। পেনাল্টির আবেদন করলেও রেফারি প্লে অ্যাক্টিংয়ের জন্য তাঁকে হলুদ কার্ড দেখান।

৬০ মিনিট: গোলের পর উজ্জীবিত মুম্বই বাহিনী। জয়েশ রানের শট আনোয়ারের পায়ে লেগে কর্নার। 

৫২ মিনিট: গোল শোধ পেরেইরা দিয়াজের। খেলায় ফিরল মুম্বই। ফলাফল ১-১। গোলের পর যুবভারতীতে বাগান সমর্থকদের সামনে স্টেনগান সেলিব্রেশন করলেন দিয়াজ।

৪৬ মিনিট: আক্রমণাত্মক ফুটবল মোহনবাগানের। শুভাশিসের শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট। 

দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরু।

প্রথমার্ধ শেষ। কামিন্সের গোলে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে মোহনবাগান।

৪৩ মিনিট: জেসন কামিন্সের গোলে এগিয়ে গেল মোহনবাগান। পেত্রাতোসের দূরপাল্লার শট বুঝতে ভুল করেন লাচেনপা। শট ঠেকালেও কোনও নিয়ন্ত্রণ ছিল না। সুযোগসন্ধানী ফরওয়ার্ডের মতো বক্সে অপেক্ষা করছিলেন কামিন্স। গোলকিপারকে বোকা বানিয়ে হালকা চিপ করে বল জালে জড়িয়ে দেন তিনি।

৪১ মিনিট: দুরন্ত আক্রমণ সবুজ-মেরুনের। বাঁ দিক থেকে লিস্টন কোলাসো দ্রুত বক্সে ঢুকে যান। কিন্তু তাঁর শট কোনও রকমে থামিয়ে দেন মুম্বই গোলকিপার।

৩৮ মিনিট: অল্পের জন্য বেঁচে গেল মোহনবাগান। বাঁ দিক থেকে বিক্রমজিতের বল ধরে গোলমুখে শট ছাংতের। বারে লেগে বল ফিরে আসে।

৩৭ মিনিট: মুহুর্মুহু আক্রমণ মুম্বইয়ের। ৬টি কর্নার পেয়েছে পিটার ক্রাটকির দল। সেখানে মোহনবাগান একটিও কর্নার পায়নি।

৩৩ মিনিট: মুম্বইয়ের আধিপত্য। যদিও কোনও দলই এখনও গোল করতে পারেনি।

৩০ মিনিট: ছাংতের দুরন্ত ফ্রি-কিক বারে লেগে ফিরে আসে। অল্পের জন্য রক্ষা পেল মোহনবাগান।

২৯ মিনিট: গোলকিপারকে একা পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ ছাংতে। দিয়াজের বল ধরে বক্সের বাইরে মারলেন মুম্বই তারকা।

২৭ মিনিট: বক্সের মধ্যে ভাসানো বল দিয়াজের। পেনাল্টির আবেদন মুম্বইয়ের। যদিও আবেদন নাকচ করে দেন রেফারি।

২৫ মিনিট: একাধিক কর্নার মুম্বইয়ের। বারবার প্রশ্নের মুখে পড়ছেন বাগান ডিফেন্ডাররা। যদিও এখনও পর্যন্ত নিজেদের দুর্গ ধরে রেখেছে হাবাসের ছেলেরা।

১৭ মিনিট: বিক্রম প্রতাপের গতির কাছে পরাস্ত বাগান ডিফেন্ডাররা। কোনও রকমে বল ক্লিয়ার টাংরির।

১৪ মিনিট: বক্সের ডান দিক থেকে ক্রস জয়েশ রানের। হেড দিয়ে বাঁচান ইউয়েস্তে। কর্নার থেকে মেহতাবের হেড গোলের উপর দিয়ে চলে যায়।

১১ মিনিট: ডান দিক থেকে মুম্বই বক্সে ঢুকে পড়েছিলেন থাপা। কিন্তু তাঁর ভাসানো বল কর্নার করে বাঁচান মুম্বই ডিফেন্ডাররা।

৯ মিনিট: গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সাবধানী দুদলই। মুম্বই একাধিক আক্রমণ শানালেও আটকে দিয়েছেন শুভাশিসরা। অন্যদিকে লিস্টন-মনবীররাও দুদিক থেকে আক্রমণ তুলছেন।

৬ মিনিট: জমে উঠেছে ফাইনাল। বল দখলে এগিয়ে মুম্বই। রাহুল ভেকের দূরপাল্লার শট লক্ষ্যভ্রষ্ট।

৩ মিনিট: ফ্রি-কিক পেল মুম্বই সিটি। বক্সের বাইরে থেকে ভাসানো ফ্রি-কিক লক্ষ্যভ্রষ্ট।

সন্ধে ৭টা ৩০মিনিট: কিক-অফ! শুরু হল আইএসএল ফাইনাল।

সন্ধে ৭টা ৩ মিনিট: ঘোষিত মোহনবাগান প্রথম একাদশ। রয়েছেন, বিশাল কাইথ, আনোয়ার আলি, ইউয়েস্তে, শুভাশিস বোস, মনবীর সিং, জনি কাউকো, দীপক টাংরি, লিস্টন কোলাসো, দিমিত্রি পেত্রাতোস, জেসন কামিংস, অনিরুদ্ধ থাপা।

সন্ধে ৭টা ২ মিনিট: ঘোষিত মুম্বই সিটি এফসির প্রথম একাদশ। রয়েছেন, লাচেনপা, মেহতাব সিং, তিরি, ক্রৌমা, রাহুল ভেকে, আপুইয়া, জয়েশ রানে, নগুয়েরা, বিক্রম প্রতাপ সিং, পেরেইরা দিয়াজ, ছাংতে।

সন্ধে ৭টা: কার্ড সমস্যায় মোহনবাগান পাচ্ছে না ফরওয়ার্ড আর্মান্দো সাদিকুকে। অন্যদিকে চোটের জন্য মুম্বই দলে নেই ডিফেন্ডার আকাশ মিশ্রা। কার্ডের জন্য তারা পাচ্ছে না মিডফিল্ডার ইওল ভ্যান নিফকে।

 

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ