২২ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ৭ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

‘রিয়ালের খারাপ চেহারাটার মুখোমুখি হলাম’, এল ক্লাসিকো হেরে কেন এমন বললেন পিকে?

Published by: Sulaya Singha |    Posted: March 2, 2020 10:17 am|    Updated: March 2, 2020 10:17 am

An Images

রিয়াল মাদ্রিদ: ২ (ভি জুনিয়র, মারিয়ানো)
বার্সেলোনা: ০

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “স্যান্টিয়াগো বার্নাব্যুয়ে অনেকবার রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হয়েছি। কিন্তু এদিন প্রথমার্ধে রিয়ালের অন্যতম খারাপ চেহারাটার মুখোমুখি হলাম।” এল ক্লাসিকোয় হারের পর এভাবেই নিজের হতাশা প্রকাশ করলেন বার্সেলোনা ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে। তবে পালটা দিতে ছাড়েননি রিয়াল অধিনায়ক সের্জিও ব়্যামোসও।

এই মাঠে এককালে দাপিয়ে বেরিয়েছেন। বার্সেলোনাকে মাটি ধরিয়ে মার্সেলোর সঙ্গে সেলিব্রেশনে মেতেছেন। আজ তিনি অন্য ক্লাবের জার্সি গায়ে চাপালেও এল ক্লাসিকোর প্রতি টান এতটুকু কমেনি। তাই তো গ্যালারিতে বসে রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ উপভোগ করলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। আর দিনের শেষে প্রাক্তন সতীর্থদের মুখে চওড়া হাসি দেখে মন ভাল হয়ে গেল সিআর সেভেনেরও। কিন্তু এমন হাইভোল্টেজ ম্যাচে একটু তর্ক-বিতর্ক হবে না, তাও কি সম্ভব? হলও তাই। প্রথমার্ধে রিয়ালের খেলাকে রীতিমতো তুলোধোনা করে ছাড়লেন পিকে।

[আরও পড়ুন: ওয়ানডে’র পর টেস্ট সিরিজেও হোয়াইটওয়াশ, লজ্জার হার থেকে শিক্ষা নিতে চান বিরাট]

ক্যাটালান ডিফেন্ডারের কথায়, “প্রথমার্ধে খেলা আমাদের নিয়ন্ত্রণেই ছিল। দ্বিতীয়ার্ধে ওরা ঘুরে দাঁড়িয়ে হতাশাজনক মুহূর্তে গোল করে। প্রথমার্ধে আমরা গোল করতে পারলেই হতে যেত। আমি সমালোচনা করছি না। কিন্তু প্রত্যেক দলেরই কিছু না কিছু সমস্যা থাকে। আমরা খুব একটা ভাল খেলিনি। তবে প্রথমার্ধে পাওয়া সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারলে ওরা চাপে পড়ে যেত।” এককথায় পিকের মতে, প্রথমার্ধে রিয়ালের মাঠে রাজত্ব করেছে বার্সাই। পিকেকে একহাত নিতে ছাড়লেন না ব়্যামোস। কটাক্ষের সুরে বলেন, “ওর (পিকে) মতে আমরা প্রথমার্ধে এতই খারাপ যখন খেলেছি, তখন এমন খারাপ খেলেও প্রত্যেকটা ক্লাসিকো আমি এভাবেই জিততে রাজি।”

Real

এল ক্লাসিকো জয়ের পর ২৬ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট ৫৬। সমসংখ্যক ম্যাচ খেলে এক পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেমে গিয়েছে বার্সা। তবে ভাঙলেও মচকাচ্ছেন না পিকে। সাফ জানিয়ে দিচ্ছেন, লা লিগের জয়ের আশা এতটুকুও কমেনি বার্সেলোনার। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার বিষয়ে আশাবাদী বার্সা কোচও। তবে মেসি এদিন রইলেন পর্দার আড়ালেই। মাঠের ভিতর এবং বাইরে। মার্সেলোদের মাঠে তাঁকে বেশ নিষ্প্রভ দেখাল। দু-একবার প্রতিপক্ষের বক্সের ভিতর ঢুকে পড়া ছাড়া সেভাবে আর কোনও ভূমিকা পালন করলেন না। ম্যাচের পরও নিশ্চুপ আর্জেন্টাইন তারকা।

[আরও পড়ুন: সেমিফাইনালের প্রথম পর্বে হার, ফাইনালে ওঠার অঙ্ক জটিল হল এটিকের]

বার্সা শিবিরের ছবিটা যখন এমন, পিকে যখন হিসেব-নিকেশে ব্যস্ত, তখন দলের এই জয়ে দারুণ তৃপ্ত রিয়াল কোচ জিদান। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ম্যাঞ্চেস্টার সিটির কাছে হেরে আত্মবিশ্বাসে ধাক্কা লেগেছিল। সেখান থেকে ছেলেরা ঘুরে দাঁড়াতে পারাটাই স্বস্তি দিচ্ছে জিদানকে। গোলদাতা ভিনিসিয়াস জুনিয়রের প্রশংসাও শোনা গেল কোচের মুখে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement