BREAKING NEWS

১ আষাঢ়  ১৪২৮  বুধবার ১৬ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

দ্রুত চুক্তিপত্রে সই না করলে ISL না খেলার হুমকি শ্রী সিমেন্টের, চূড়ান্ত অস্বস্তিতে ইস্টবেঙ্গল

Published by: Biswadip Dey |    Posted: May 29, 2021 12:42 pm|    Updated: May 29, 2021 1:45 pm

Row intensifies over SC East Bengal and Sree Cements contract | Sangbad Pratidin

স্টাফ রিপোর্টার: চুক্তিপত্রে তাড়াতাড়ি সই না করে দিলে তারা আইএসএলে (ISL) খেলবে না। ইস্টবেঙ্গল ক্লাবকে (East Bengal) চিঠি দিয়ে এমনটাই জানিয়ে দিল ইনভেস্টর শ্রী সিমেন্ট (Shree Cement)। টার্মশিট আর চুক্তিপত্রে সই নিয়ে লাল-হলুদে বিতর্ক চলছেই। এদিন ফের ক্লাবকে চিঠি দিয়ে শ্রী সিমেন্ট জানিয়ে দিল, “টার্মশিটের সঙ্গে মূল চুক্তিপত্রে কোথায় পার্থক্য রয়েছে জানান। সঙ্গে তাড়াতাড়ি চুক্তিপত্রে সই করে দিন। এভাবে চললে দল তৈরি করতে সমস্যা হবে। আর চুক্তিপত্রে সই না করলে, শ্রী সিমেন্ট আইএসএলে থাকবে না।”

ইনভেস্টরের তরফে এরকম হুমকির চিঠি পেয়ে লাল-হলুদের অন্যতম শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার বললেন, “চিঠির উত্তর অবশ্যই ক্লাব থেকে দেওয়া হবে। কিন্তু একটা জিনিস বুঝতে পারছি না, সেই অক্টোবর থেকে এই ইস্যুতেই তো বারবার চিঠি দিয়ে বলছি, টার্মশিটের সঙ্গে চুক্তিপত্রে বহু পার্থক্য রয়েছে। আমরা চিঠি দেওয়ার পরেও ওঁরা একই চিঠি দিয়ে যাচ্ছেন। ওঁরাও যখন বুঝতে পারছেন, ইস্যুটা সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ, তাহলে সেটা নিয়ে অবশ্যই এক টেবিলে আলোচনায় বসা উচিত। আমরাও সেই আলোচনা চাইছি।”

[আরও পড়ুন: সুশীলের কথাতেই কুস্তিগিরকে মারধর! বিস্ফোরক দাবি রানা হত্যাকাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্তর]

ক্লাবের অন্য একটা অংশ বলছে, আলোচনায় না বসতে চেয়ে ইনভেস্টর কি তাহলে ক্লাবের উপর পুরো দোষটা চপিয়ে চলে যেতে চাইছে? সব মিলিয়ে এখনও জট। প্রসঙ্গত, কোন শর্তে শ্রী সিমেন্টের পাঠানো চুক্তিপত্রে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব সই করে দেবে, তা আগেই জানিয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গলের অন্যতম শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার। তিনি জানিয়েছিলেন, “মোহনবাগান ক্লাব যে শর্তে চুক্তিবদ্ধ হয়ে আইএসএলে খেলছে, সেই শর্তে চুক্তিপত্রে এখনই সই করতে রাজি রয়েছে ইস্টবেঙ্গল।”

যদিও সেকথার পরিপ্রেক্ষিতে শ্রী সিমেন্টের কর্ণধার হরিমোহন বাঙ্গুর বলেন, “মোহনবাগান ক্লাব ঠিকভাবে ইনভেস্টরের সঙ্গে চুক্তি করেছে। ওদের ফুটবল স্বত্ত্ব পুরোটাই এটিকে-কে দিয়ে দিয়েছে। তার মানে মোহনবাগান (Mohun Bagan) নিশ্চয়ই এটিকের কাছে বিক্রি হয়ে যায়নি। ইস্টবেঙ্গল তাহলে কেন সই করছে না বুঝতে পারছি না।”

ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে চুক্তির বিষয় নিয়েও পরিস্কার ব্যাখ্যা দিয়েছেন হরিমোহন বাঙ্গুর। তাঁর কথায়, “চুক্তিপত্রে সই করলেই ইস্টবেঙ্গল ক্লাব বিক্রি হয়ে যাবে না। আগে একটা দল ক্লাবের উন্নতিতে কাজ করছিল। এখন আরেকটা দল ক্লাবকে আরও উন্নতির দিকে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাজ করবে। এর মধ্যে অন্যায়টা কোথায় আছে? ”

[আরও পড়ুন: করোনাই কাল! টোকিও অলিম্পিকে খেলার স্বপ্নভঙ্গ সাইনার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement