১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ৩ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জুলাইয়ে ফের ইউরোপে পরীক্ষায় নামবেন সন্দেশ, এখনই সই করছেন না মোহনবাগানে

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 29, 2022 4:32 pm|    Updated: May 29, 2022 4:32 pm

Sandesh Jhingan will try in European Club, not signing at Mohun Bagan for now | Sangbad Pratidin

ফাইল ছবি

দুলাল দে: পরের মরশুমেও সন্দেশ ঝিঙ্ঘানকে শুরু থেকে মোহনবাগান পাবে কি না, এখনই বলা যাচ্ছে না। গত মরশুমে সুযোগ পেয়েও চোটের জন্য ক্রোয়েশিয়ার সিবেনিক ক্লাব থেকে ফিরে আসতে হয়েছিল এই ভারতীয় ডিফেন্ডারটিকে। এবার তাই মরশুম শেষ হলেই ইউরোপীয় ফুটবলে নিজেকে পরীক্ষা করার জন্য ফের উড়ে যেতে চান সন্দেশ (Sandesh Jhingan)। আপাতত যা ঠিক আছে, তাতে জুলাইয়ে ইউরোপে যাবেন ট্রায়াল দিতে। যে কারণে, পরের মরশুমের জন্য এখনই মোহনবাগানের চুক্তপত্রে সই করছেন না তিনি।

প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক বাইচুং ভুটিয়া এখনও বলেন, চার বছর ইংল্যান্ডের বারি এফসিতে থাকার সময় আর্থিক ভাবে বিশাল কিছু লাভ করেননি। যা বেতন পেয়েছেন, তার ৪০ শতাংশ প্রফেশনাল ট্যাক্স দিয়েছেন। কিন্তু চার বছর ইংল্যান্ডের ফুটবল পরিকাঠামোয় কাটানোয় যেটা হয়েছে, তা হল, ফুটবল কেরিয়ারটা তৈরি হয়ে গিয়েছে। ঠিক একই পথে চলতে চাইছেন সন্দেশও। ভালভাবেই জানেন, আইএসএল (ISL 2022-23) খেলার জন্য মোহনবাগানের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হলে যে পরিমাণ টাকা পাবেন, ইউরোপের কোনও দ্বিতীয় ডিভশন টিমে খেলে সেই বেতন পাবেন না। তবুও টাকা নয়। স্বপ্নপূরণের উদ্দেশ্যে আরও একবার ইউরোপে পাড়ি দিতে চান সন্দেশ।

[আরও পড়ুন: কেরিয়ারে হোঁচট খাওয়ার ভয়? বিয়ের কথা ৩ মাস গোপনে রেখেছিলেন প্রয়াত মডেল মঞ্জুষা]

গতবার ট্রায়াল দিয়েই সুযোগ পেয়ে গিয়েছেন ক্রোয়েশিয়ার প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব সিবেনিকে। শুরুর দিকে রিজার্ভ দলেও ছিলেন। কিন্তু প্র‌্যাকটিসে চোট পেয়ে মূল দল থেকে ছিটকে যান তিনি। যখন সুস্থ হন, তখন সিবেনিকের খেলা মোটামুটি শেষ। বাধ্য হয়ে ফিরে এসে মোহনবাগানের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হন। পরে জাতীয় দলে খেলতে গিয়ে ফের চোট পান। ফলে মোহনবাগানের (Mohun Bagan) হয়েও কিছু ম্যাচ মাঠের বাইরে থাকেন তিনি।

অবশেষে সুস্থ হয়ে এএফসি কাপের (AFC Cup) দ্বিতীয় ম্যাচ থেকে ফের মাঠে সন্দেশ। এই মুহূর্তে জাতীয় দলের হয়ে দোহায় গিয়েছেন ফ্রেন্ডলি ম্যাচ খেলতে। জুনে কলকাতায় অনুষ্ঠিত হবে এশিয়ান কাপের কোয়ালিফাইং রাউন্ড। সেখানে তিনটে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবেন তিনি। মানে একটি ফ্রেন্ডলি নিয়ে টানা ৬টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলবেন ভারতীয় দলের এই নির্ভরযোগ্য ডিফেন্ডার। যে কারণে সন্দেশ মনে করছেন, টানা ৬টা ম্যাচ ঠিক ভাবে খেলতে পারলে, তাঁর সুস্থতা নিয়ে কেউ আর কোনও প্রশ্ন তুলবেন না। এমনকী ইউরোপের যে ক্লাবে ট্রায়াল দিতে যাবেন, সেখানেও সন্দেশের ফিটনেস নিয়ে কারও সন্দেহ থাকবে না। সেই কারণেই, জুনে কলকাতায় এশিয়ান কাপের কোয়ালিফাইং রাউন্ডের তিনটি ম্যাচকে পাখির চোখ করেছেন এই পাঞ্জাবি ডিফেন্ডার।

জুনে ভারতীয় দলের হয়ে তিনটে ম্যাচ খেলার পরই মরশুম শেষ হয়ে যাবে জাতীয় দলের ফুটবলারদের। এদিকে, জুলাই মাসে ইউরোপের বিভিন্ন ক্লাবে ফুটবলার বেছে নেওয়ার জন্য ট্রায়াল শুরু হয়। সন্দেশও তাই ঠিক করেছেন, জুলাইতে ইউরোপ উড়ে যাবেন ট্রায়াল দেওয়ার জন্য। সত্যি বলতে কী, ইউরোপের কোন ক্লাবে ট্রায়াল দিতে যাবেন, তা এখনও ঠিক করে উঠতে পারেননি সন্দেশ। আপাতত লক্ষ্য এশিয়ান কাপের কোয়ালিফাইং রাউন্ড খেলে দেশকে এশিয়ান কাপের মূলপর্বে নিয়ে যাওয়া। তারপরই তাঁর সবরকম যোগাযোগ কাজে লাগিয়ে ট্রায়াল দেওয়ার জন্য ইউরোপের বিভিন্ন ক্লাবের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। তবে আপাতত ইচ্ছে, ইউরোপের বিভিন্ন ক্লাবের পাশাপাশি জার্মানির দ্বিতীয় ডিভিশনের কোনও ক্লাবের সঙ্গেও যোগাযোগ করা। জার্মানির দ্বিতীয় ডিভিশন ক্লাবে ট্রায়াল দিলে সুযোগ পাওয়ার ব্যাপারে ভীষণই আত্মবিশ্বাসী তিনি।

[আরও পড়ুন: সমকামীদের মধ্যেই বেশি ছড়াচ্ছে Monkeypox! ‘সংক্রমণ আরও বাড়বে’, উদ্বেগ WHO’র]

আর জুলাই মাসের মধ্যে ইউরোপের কোনও ক্লাবে সুযোগ না পেলে দেশে ফিরে ডুরান্ড কাপ খেলবেন। এ ব্যাপারে প্রথম পছন্দ অবশ্যই মোহনবাগান। কিন্তু ইউরোপে নিজের দক্ষতা আরও একবার পরীক্ষা করে নেওয়ার জন্য ফের একটা ঝুঁকি তিনি নেবেনই।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে