BREAKING NEWS

১৪ কার্তিক  ১৪২৭  রবিবার ১ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

খেলোয়াড়রা সবাই আইসোলেশনে, রোনাল্ডোর জুভেন্তাসের বিরুদ্ধে নামতেই পারল না নাপোলি

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: October 5, 2020 3:56 pm|    Updated: October 5, 2020 3:56 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ গত চারদিনে দু’‌জন খেলোয়াড় করোনা (Covid-19) পজিটিভ। স্থানীয় স্বাস্থ্য আধিকারিকদের পক্ষ থেকে তাই গোটা দলকেই পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল সেলফ আইসোলেশনে। সেকারণে মাঠে একজন খেলোয়াড়কেও আনতে পারল না নাপোলি (Napoli)। ভেস্তে গেল ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর (Cristiano Ronaldo) জুভেন্তাসের (Juventus) সিরি এ (Serie A) লিগের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ।

[আরও পড়ুন: ‌শারজায় প্রতি ম্যাচে ২০০, এবার আইপিএলের জন্য দুর্দান্ত নিয়মের সুপারিশ করলেন মঞ্জরেকর]

রবিবার রাতে, নির্দিষ্ট সময়েই মাঠে উপস্থিত হয়েছিল জুভেন্তাসের খেলোয়াড়রা। ছিলেন ম্যাচ অফিশিয়ালরাও। কিন্তু খেলা শুরুর হওয়ার সময় পেরিয়ে আরও ৪৫ মিনিট অতিক্রান্ত হয়ে যায়। কিন্তু সেলফ আইসোলেশনে থাকায় নাপোলির কোনও খেলোয়াড়ই উপস্থিত ছিলেন না। শেষপর্যন্ত ম্যাচটি বাতিল বলে ঘোষণা করেন অফিশিয়ালরা। নিয়মানুযায়ী, এই ম্যাচে তাই ৩–০ গোলে জুভেন্তাসকেই জয়ী বলে ঘোষণা করে দেওয়া হবে।

এদিকে, EPL-এ অক্টোবরের প্রথম রবিবারটা অবিশ্বাস্য গেল। ইংল্যান্ডের দুই ঐতিহ্যশালী ক্লাবকে মহাবিপর্যয়ের মুখোমুখি হতে হল। গতবারের ইপিএল জয়ী লিভারপুল (Liverpool) সাত গোল খেল অ্যাস্টন ভিলার কাছে। ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড (Manchester United) আবার ছ’গোল হজম করল টটেনহ্যামের কাছে। ইউনাইটেডের হার তবু কিছুটা মানা যায়। কারণ উল্টোদিকে বিলিতি ফুটবলের সেরা তারকা হ্যারি কেন ছিলেন। কিন্তু লিভারপুলেরটা অবিশ্বাস্য বললেও কম বলা হয়। ম্যাচের চার মিনিটের মাথায় অ্যাস্টন ভিলার অলি ওয়াটকিন্স গোল করে এগিয়ে দেন। তিনি আরও দুটো গোল করেন ২২ ও ৩৯ মিনিটে। ওয়াটকিন্সের হ্যাটট্রিক ছাড়াও গোল করেন জন ম্যাকগিন, রস বার্কলে ও জ্যাক গ্রিলিশ। লিভারপুলের হয়ে দুটো গোল করেন মহম্মদ সালাহ। কিন্তু তাতে বিপর্যয় আটকানো সম্ভব হয়নি।

[আরও পড়ুন: বঙ্গতনয়ার অলিম্পিকের স্বপ্নে বাদ সাধল ব্রেন টিউমার, আর্থিক সমস্যায় থমকে চিকিৎসা‌]

অন্য ম্যাচে টটেনহ্যামের বিরুদ্ধে দুই মিনিটের মধ্যেই গোল করে এগিয়ে যায় ইউনাইটেড। পেনাল্টি থেকে গোল করেন ব্রুনো ফার্নান্ডেজ। তখনও কেউ ভাবতেই পারেননি ইউনাইটেড হারবে ১-৬ গোলে। হ্যারি কেন এবং সন হিউং মিন দুটি করে গোল করলেন। ফার্নান্ডেজের গোলের পর ম্যাচে সমতায় ফিরতে খুব বেশি সময় নেয়নি টটেনহ্যাম। চার মিনিটের মাথায় এনদোমবেলের গোলে তারা সমতা ফেরায়। এরপর ম্যাচের বাকিটা শুধুই মোরিনহোর দলের। সাত মিনিটে টটেনহ্যামের হয়ে গোল করে যান সন। ২৮ মিনিটে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের মার্শিয়াল লাল কার্ড দেখেন। ফলে আরও চাপে পড়ে যায় তারা। এরপর ৩০ মিনিটে হ্যারি কেনের গোল। ৩৭ মিনিটে ফের গোল করেন সন। বিরতির পর ৫১ মিনিটের মাথায় অরিয়ের টটেনহ্যামের হয়ে গোল করে যান। ৭৯ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করেন হ্যারি কেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement