BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

FIFA Ban AIFF: কোন শর্তে উঠতে পারে ভারতীয় ফুটবলের নির্বাসন? নিষেধাজ্ঞা কাটাতে উদ্যোগী ক্রীড়ামন্ত্রক

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 16, 2022 3:42 pm|    Updated: August 16, 2022 5:24 pm

Sports ministry in gray as FIFA bans AIFF | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের জন্য ভারতীয় ফুটবলের উপর নির্বাসনের খাঁড়া চাপিয়েছে ফিফা। যার জেরে জাতীয় দল থেকে বিভিন্ন ক্লাব, ভারতীয় ফুটবলের সব স্তরেই সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। এমনকী কষ্টার্জিত এশিয়ান কাপে সুনীলদের খেলা নিয়েও অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। সব মিলিয়ে একধাক্কায় বহু বছর পিছিয়ে পড়েছে ভারতীয় ফুটবল। কিন্তু কোন পথে এই সংকটজনক পরিস্থিতি থেকে মুক্তি মিলবে? কোন শর্তে AIFF-এর উপর নির্বাসন তুলতে পারে আন্তর্জাতিক ফুটবল নিয়ামক সংস্থা?

FIFA মূলত তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের জেরে AIFF-কে নির্বাসিত করেছে। সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত প্রশাসক প্যানেল অর্থাৎ কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনকে ‘তৃতীয় পক্ষ’ বলে মনে করছে ফিফা। আন্তর্জাতিক ফুটবল নিয়ামক সংস্থা স্পষ্ট করে দিয়েছে, এই তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ সরিয়ে যদি কোনও নির্বাচিত কমিটি এআইএফএফের শীর্ষপদে বসে তাহলেই নিষেধাজ্ঞা উঠে যেতে পারে। অর্থাৎ FIFA চাইছে সুপ্রিম কোর্ট দ্বারা নিযুক্ত প্রশাসক প্যানেলকে সরিয়ে দিয়ে AIFF-এর নির্বাচন হোক। সেটা হলেই নির্বাসন উঠে যেতে পারে।

[আরও পড়ুন: পিৎজার মণ্ডের উপর ঝুলছে শৌচালয় পরিষ্কারের ব্রাশ! নিন্দার ঝড় নেটদুনিয়ায়, কী সাফাই সংস্থার?]

এমনিতেই এ মাসের শেষে AIFF-এর নির্বাচন হওয়ার কথা। যাতে লড়তে পারেন বাইচুং ভুটিয়া এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল। সেই নির্বাচন প্রক্রিয়া মিটলেই সরে যাবে প্রশাসক প্যানেল। অর্থাৎ ফিফার সব শর্ত ভারত পূরণ করে ফেলতে পারবে। সেটা হলেই ভারতীয় ফুটবল ফের ফিরতে পারবে স্বমেজাজে। করতে পারবে বিশ্বকাপ আয়োজনও। মোহনবাগানও খেলতে পারবে এএফসি কাপে। কিন্তু কোনওভাবেই আর নির্বাচন পিছিয়ে দেওয়া চলবে না। AIFF-ও ব্যাপারটি গুরুত্ব দিয়ে দেখছে। বৃহস্পতিবারই সব রাজ্য সংস্থাগুলির সঙ্গে বৈঠকে বসছে প্রশাসক প্যানেল।

[আরও পড়ুন: প্রেমিকার সঙ্গে বিমানে বসে চ্যাটিংয়েই যত বিপত্তি, যুবকের কাণ্ডে উড়ানে ছ’ঘণ্টা দেরি!]

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আসরে নামছে কেন্দ্র সরকারও। কেন্দ্রের তরফে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করা হয়েছে, যাতে দ্রুত এই মামলার শুনানি করা হয়। সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়ের বেঞ্চের কাছে এআইএফএফ সংক্রান্ত মামলার দ্রুত শুনানির আবেদন জানিয়েছেন। বুধবার মূল মামলার শুনানি হবে। তার আগেই কেন্দ্রের এই আরজি শুনবে সুপ্রিম কোর্ট। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে