BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২০ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

শেষ টি-টোয়েন্টিতে ইংল্যান্ডকে দুরমুশ করে সিরিজ পকেটে পুরল ভারত

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 8, 2018 10:05 pm|    Updated: July 8, 2018 10:17 pm

India beats England to seal T-20 series

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ম্যাচ শুরুর আগে জায়ান্ট স্ক্রিনে ভেসে উঠল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নাম। লেখা ছিল হ্যাপি বার্থডে সৌরভ গাঙ্গুলি। যে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় দেখিয়েছিলেন ইংল্যান্ডের বুকে দাঁড়িয়ে দাদাগিরি কিভাবে করতে হয়, তাঁর জন্মদিনে মাঠে দাদাগিরি দেখাল বিরাটরাও। বলা যায়, দাদার ভাষাতেই দাদাকে বার্থডে গিফট দিল টিম ইন্ডিয়া। আর এই দুর্দান্ত জয়ের কারিগর অবশ্যই রোহিত শর্মা এবং হার্দিক পাণ্ডিয়া। ইংল্যান্ড যখন ব্যাট হাতে দুর্দান্ত গতিতে এগোচ্ছিল তখন চার উইকেটের দুর্দান্ত স্পেলে ভারতকে ম্যাচে ফেরালেন হার্দিক। আর বড় রানের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে দুর্দান্ত শতরান করে দলকে জেতালেন রোহিত।

[শুধু ফুটবলের জন্য… পুতিনের ঘরেই এক হল ভারত-পাকিস্তান]

সিরিজ নির্ণায়ক ম্যাচে টস জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। চোটের জন্য ভুবনেশ্বর কুমারকে পাওয়া যায়নি এদিনের ম্যাচে। তাঁর পরিবর্তে দলে আসেন সিদ্ধার্থ কাউল। টেস্ট এবং ওয়ান ডে সিরিজের কথা ভেবে বিশ্রাম দেওয়া হয় কুলদীপ যাদবকে। তাঁর পরিবর্তে অভিষেক করেন আইপিএলে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা পেসার দীপক চাহার। কিন্তু, পাটা উইকেটে কোহলির বোলিং করার সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ল শুরুতেই। ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার জেসন রয় এবং জস বাটলার শুরু থেকেই আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে ব্যাট করছিলেন। দুই আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যানের সামনে অসহায় দেখাচ্ছিল ভারতের অনভিজ্ঞ বোলিং লাইন-আপকে। একসময় মাত্র ৭.৪ ওভারে ৯৪ রান করে ফেলেছিল ইংল্যান্ড। এরপরই ঘুরে দাঁড়ায় ভারত। প্রথমে বাটলারকে আউট করেন কাউল। কিছুক্ষণের মধ্যেই দীপক চাহারের বলে ৬৭ রান করে স্টেডিয়ামে ফেরেন রয়। এরপর একের পর এক উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের রান গতি স্তব্ধ করে দেন হার্দিক পাণ্ডিয়া। ৪ ওভারে ৩৮ রান দিয়ে ৪ টি উইকেট দখল করেন হার্দিক। একসময় মনে হচ্ছিল ২২০ রানের গণ্ডিও পেরিয়ে যেতে পারে ইংরেজরা। কিন্তু হার্দিকের অনবদ্য স্পেলের জেরেই তাঁরা আটকে যায় ১৯৮ রানে। এরই মধ্যে নয়া রেকর্ডের মালিক হয়ে গেলেন ধোনি। উইকেটের পিছনে দাঁড়িয়ে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে পাঁচটি ক্যাচের মালিক হলেন তিনি।

[‘লেডিলাক’-এর অনুপস্থিতিতেই হার? রাশিয়া ম্যাচে দেখাই গেল না হটেস্ট ফ্যানকে]

 

ব্যাটিং সহায়ক পিচ হলেও ১৯৯ রানের লক্ষ্যমাত্রা সহজ ছিল না ভারতের জন্য। কিন্তু কঠিন লক্ষ্যকে সহজ করে দিলেন রোহিত শর্মা। ইনিংসের শুরু থেকেই মারকাটারি অবতারে দেখা গেল ভারতীয় দলের সহ-অধিনায়ককে। রোহিতের ইনিংসকে শুধু মারকাটারি বললে অবশ্য ভুল বলা হবে, রীতিমতো দায়িত্ব নিয়ে শেষ পর্যন্ত খেললেন টিম ইন্ডিয়ার হিটম্যান। মাত্র ৫৬ বলে নিজের টি-২০ কেরিয়ারের তৃতীয় শতরানটি করে ফেললেন রোহিত। ১০০ রানের ইনিংসে ৫ টি ছক্কা এবং ১১ টি ঝকঝকে বাউন্ডারি উপহার দিলেন হিটম্যান। রোহিত একা নন, সঙ্গ দিয়েছেন অধিনায়ক বিরাট কোহলিও। কোহলি ৪৩ রান রান করেন, ব্যাট হাতেও নজর কাড়েন হার্দিক। মাত্র ১৪ বলে ৩৩ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন তিনি। দুর্দান্ত ব্যাটিং পারফরম্যান্সের জেরে ৮ বল বাকি থাকতেই নির্ধারিত লক্ষ্যে পৌঁছে গেল টিম ইন্ডিয়া।

জয়ের ফলে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতল ভারত। এবং সেই সঙ্গে আগামী ১২ জুলাই থেকে শুরু হওয়া ওয়ান ডে সিরিজের আগে বাড়তি আত্মবিশ্বাসও জোগাড় করে ফেলল টিম ইন্ডিয়া।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে