BREAKING NEWS

২৩ আষাঢ়  ১৪২৭  বুধবার ৮ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

পুণেতে আজ সিরিজের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ওয়ান ডে

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: October 27, 2018 10:13 am|    Updated: October 27, 2018 10:13 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্যাপ্টেন কোহলির ওয়ান ডে-র ইতিহাসে দ্রুততম ১০ হাজার রানে পৌঁছনোর মহাকীর্তির ম্যাচে ভারত টাই করার ধাক্কা কি এখনও সামলে উঠতে পারেনি? নইলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে বিশাখাপত্তনমে দ্বিতীয় ওয়ান ডে আর শনিবার পুণেতে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচের মাঝে দু’দিন সময় পেলেও ভারতীয় দল বলতে গেলে কোনও নেট সেশনই করল না কেন?
এমনিতেও ছত্রপতি শিবাজির শহরে আসতে গিয়ে বিশাখাপত্তনম বিমানবন্দরে নিরাপত্তার কারণে অনেকক্ষণ টিমবাসেই আটকে থাকতে হয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেটারদের। আসলে বিশাখাপত্তনমে ওয়াইএসআর কংগ্রেস সভাপতি জগমোহন রেড্ডির ছুরিকাহত হওয়ার মতো আকস্মিক বড়সড় রাজনৈতিক দুর্ঘটনার কারণে বৃহস্পতিবার শহরের বিমানবন্দরেও নজিরবিহীন নিরাপত্তা বলয় ছিল। যার দৌলতে টিম ইন্ডিয়ার দু’টো টিম বাস বিশাখাপত্তনম বিমানবন্দরে নির্বিঘ্নে পৌঁছনোর পরেও ক্রিকেটারদের বেশ কিছুক্ষণ বাসের মধ্যেই বসে থাকতে হয়। যতক্ষণ না পর্যন্ত নিরাপত্তা বাহিনী থেকে বিমানবন্দরে রবি শাস্ত্রী-বিরাট কোহলিদের নামার অনুমতি দেওয়া হয়।

[কেরিয়ারে প্রথমবার জাতীয় দল থেকে বাদ পড়লেন ধোনি!]

শুক্রবার আবার পুণেতে টিম হোটেলের বাইরে ভারতীয় ক্রিকেটারদের বেশিরভাগকে দেখাই যায়নি। ম্যাচের আগের দিন কোনও অনুশীলন হয়নি। গুটিকয়েকমাত্র ক্রিকেটার মাঠে এসেছিলেন। ভারতীয় দলের পক্ষ থেকে প্রাক্ ম্যাচ কোনও সাংবাদিক সম্মেলনও হয়নি এদিন। পাঁচ ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজ ১-১ অবস্থায় মহাগুরুত্বপূর্ণ তৃতীয় ম্যাচের আগে ভারতীয় দলের এহেন নিঃস্তব্ধতা কি শনিবার পুণের মাঠে ঝড় তোলার ওঠার ইঙ্গিত? সেটার উত্তর পেতে আরও কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হলেও অন্য একটা ব্যাপার নিয়ে ভারতীয় শিবিরের মনোভাব শুক্রবারই জানা যাচ্ছে।
কেদার যাদব প্রসঙ্গ! সিরিজের শেষ তিনটে ওয়ান ডে ম্যাচের স্কোয়াডে সুযোগ না পাওয়ায় মহারাষ্ট্রের যে অলরাউন্ডার জাতীয় নির্বাচকদের চব্বিশ ঘণ্টা আগেই একহাত নিয়েছেন। কেদার পুণেরই ছেলে। সেজন্য তরুণ ভারতীয় অলরাউন্ডারকে এদিন টিম হোটেলে এসে জাতীয় দলের সঙ্গে থাকতে ডেকেছিল ভারতের টিম ম্যানেজমেন্ট। কেদার আপাতত শুধু ভারতীয় দলের সঙ্গেই নেই। দেওধর ট্রফির ওয়ান ডে ম্যাচে ভারত সি-র বিরুদ্ধে ভারত এ-র হয়ে বৃহস্পতিবারই কেদার ২৫ বলে অপরাজিত ৪১ রান করেছেন। যার শেষ ওভারে তিনি তিনবার দু’রান করে নেন। পরে পুরো ৫০ ওভার ফিল্ডিং করার পাশাপাশি বেশ কয়েক ওভার বলও করেন। যা জানার পর বলাবলি চলছে, তা হলে কেদারের ফিটনেস নিয়ে জাতীয় নির্বাচকদের সন্দেহের কী আছে? যদিও নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদের ব্যাখ্যা, একটা ম্যাচ দেখে বিচার না করে তাঁরা কেদারের ফিটনেসের ধারাবাহিকতা দেখতে চাইছেন। তাই তাঁকে না কি চলতি ওয়ান ডে সিরিজের দলে রাখা হয়নি। কিন্তু শুক্রবার উদ্ভুত পুণের পরিস্থিতিতে কেদারের ছবিটা পাল্টে গেলে অবাকের কিছু হবে না।

[পুণে যাওয়ার পথে বিপত্তি, বিমানবন্দরে ঢুকতে দেওয়া হল না বিরাটদের]

পুণেতেও অবশ্য কেদার যাদব আর হার্দিক পাণ্ডিয়া বাদে পুরো শক্তির ওয়ান ডে দল নিয়ে নামছে ভারত। বিরাট ফিরে পাচ্ছেন ভুবনেশ্বর কুমার-যশপ্রীত বুমরা পেসার জুটিকে। কিন্তু মাঝে বিশ্রামে থাকার পর পুণেতে নামার আগে ভুবি-বুমরার কোনও প্র্যাকটিস না করে সটান ম্যাচে নেমে পড়তে চলা নিয়ে কেউ কেউ চিন্তিত। তবে পুণের ক্রিকেটমহলের খবর, পিচ না কি একেবারে ব্যাটিংয়ের স্বর্গ। যে পান্ডুরঙ্গ সালগাওকর পিচ কেলেঙ্কারিতে একটা সময় বোর্ড কর্তৃক সাসপেন্ড ছিলেন, তিনিই শনিবারের ম্যাচের উইকেট তৈরি করেছেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ কোচ স্টুয়ার্ট ল আবার এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে ভারতীয় দলকে খোঁচা মেরে রেখেছেন এই বলে যে, “প্রথম দু’টো ওয়ান ডে-তে আমাদের ব্যাটিং ভারতকে বাধ্য করেছে বুমরা-ভুবিকে দলে ফেরাতে। এটা আমাদের ক্যারিবিয়ানদের নৈতিক জয়।” সঙ্গে নিজেকে নিয়ে রসিকতাও করেছেন তিনি। প্রথম দু’ম্যাচে ক্যারিবিয়ান কোচ সাসপেন্ড থাকায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ড্রেসিংরুমে থাকতে পারেননি। “আমি ছেলেদের মিস করলেও ওরা আমাকে মিস করেছে কি না ঠিক জানি না। তবে সিরিজের অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, পুণেতেও আমি ব্যান থাকলে খারাপ হত না!”সত্যিই অদ্ভুত! ভারতীয় শিবির হঠাৎই নিশ্চুপ। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ হুঙ্কার ছাড়ছে। রসিকতার মেজাজে!

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement