BREAKING NEWS

১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘বিরাট নিজেকে বিক্রি করেছে, ওঁকে জেলে পাঠানো উচিত’

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 19, 2017 2:00 pm|    Updated: June 19, 2017 2:00 pm

'Jail Virat Kohli', Kamaal Khan's repulsive remark irks netizens

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাঝেমধ্যেই আলটপকা মন্তব্য করে বসেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর সে কারণে জড়িয়ে পড়েন বিতর্কেও। রবিবার পাকিস্তানের কাছে হেরেছে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারত, আর তিনি চুপ করে থাকবেন? এটা কখনওই সম্ভব নয়। আর তাই ম্যাচের পরেই বিরাট-সহ টিম ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে টুইট করেন স্বঘোষিত ফিল্ম সমালোচক কমল আর খান। দাবি করেন, কোহলি এবং ভারতীয় দলের বাকি খেলোয়াড়রা টাকা খেয়েছেন। তাঁদের অবিলম্বে নির্বাসিত করা হোক। এমনকী তাঁদের ‘দেশদ্রোহী’ আখ্যা দেন তিনি। শুধু তাই নয়, বিরাটকে জেলে পাঠানোর দাবি তোলেন তিনি। যদিও এরপরে অনেকেই কমল আর খানের এই বক্তব্যের বিরোধিতা করেন। এমনকী বিরাটদের সমর্থনে এগিয়ে আসেন পাকিস্তানি সমর্থকরাও।

[হারের জের: অশ্বিনদের পোস্টারে আগুন, নেটদুনিয়ায় বিরাটের হাতে কমোড]

রবিবার ওভালের ফাইনালে ১৮০ রানে ভারতের হারের পরেই বেশ কয়েকটি টুইট করেন কমল আর খান। লেখেন, ‘ভারতীয় দলের সমস্ত খেলোয়াড়কে নির্বাসিত করুক কেন্দ্র। ওরা নিজেদের সঙ্গে সঙ্গে দেশের সম্মানকেও বিক্রি করেছে। বিরাটকে জেলে পাঠানো উচিত। ও ১৩০ কোটি ভারতবাসীর সম্মান পাকিস্তানের কাছে বিক্রি করে দিয়েছে। বিসিসিআই ও দেশবাসীকে বোকা বানিয়ে ম্যাচ গড়াপেটা করছে এবং কোটি কোটি টাকা কামাচ্ছে। ভারতীয় খেলোয়াড়রা লন্ডন থেকে ফিরলেই লোকেদের উচিত পচা ডিম, টোম্যাটো ছুড়ে মারা। কারণ ওঁরাই আসল দেশদ্রোহী। কোহলি, যুবরাজ, ধোনির মতো যাঁরা ম্যাচ গড়াপেটা করে, তাঁদের এখনই অবসর নিয়ে নেওয়া উচিত। আমি ধোনি, ধাওয়ান, যুবরাজ, কোহলিদের ‘দেশদ্রোহী ২’ সিনেমায় অভিনয়ের সুযোগ দিতে চাই। কারণ এরা সহজেই ১৩০ কোটি ভারতীয়কে বোকা বানাতে পারে।পাণ্ডিয়া রান করতে পারলে বড় বড় ব্যাটসম্যানরা কেন পারল না? আসলে ওঁরা ম্যাচটা জিততেই চায়নি। পাণ্ডিয়া ম্যাচ জিততে চেয়েছিল। ম্যাচ গড়াপেটার ব্যাপারে সে হয়ত কিছু জানত না। কিন্তু ম্যাচ গড়াপেটায় শামিল থাকা জাদেজা তাঁকে রান আউট করে দেয়। ভারতের সেরা ব্যাটসম্যানরা কখনই এত খারাপ খেলতে পারে না। যদিও ভারতীয় দল নিজেদের বিক্রি করেছে, তবুও পাকিস্তান দলকে অভিনন্দন চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জেতার জন্য।’

 

এদিকে, ‘কেআরকে’-র করা এই টুইটগুলির পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কের ঝড় ওঠে। অনেকেই সমালোচনা করেন তাঁর। পিছিয়ে ছিলেন না পাকিস্তানি সমর্থকরাও। তাঁরাও বিরাট-ধোনির সমর্থনে প্রশ্ন তোলেন। কেউ লেখেন, ‘বিরাট বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যান ও মহান খেলোয়াড়। ও ভারতের গর্ব। বিরাট দেশের জন্য কী করেছে, সেটা একটি ম্যাচ দেখেই ভুলে গেলে হবে? আমি পাকিস্তানে থাকি, তবুও বিরাটের ব্যাটিংয়ের ভক্ত।’ অপর একজন লেখেন, ‘তোমার মতো কিছু মানুষের কথা বলার ওপরেই নিষেধাজ্ঞা চাপানো উচিত। বিরাট একজন সেরা খেলোয়াড়।’ এরকম ভাবেই অনেকেই বিরাট-ধোনির প্রতি নিজেদের আস্থার কথা জানান। পাশাপাশি কমল আর খানের এই ধরনের মন্তব্যের কড়া ভাষায় নিন্দা করেন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে